জাতীয়, জেলার খবর

প্রতিবন্ধী সন্তানের গলায় রশি বেঁধে ভিক্ষা করেন মা

প্রতিবন্ধী সন্তানের গলায় রশি বেঁধে ভিক্ষা করেন মা
February 06
03:35pm 2020

আই নিউজ বিডি ডেস্ক

প্রতিবন্ধী সন্তানের গলায় রশি বেঁধে তা টেনে টেনে ভিক্ষা করেন এক অসহায় মা। এবাই চলে তাদের জীবিকা নির্বাহ। প্রতিবন্ধী সন্তানের গলায় রশি বাঁধার বিষয়টি অমানবিক হলেও তাদের সহযোগিতায় এগিয়ে আসেনি কেউ। সন্তানের গলার রশি টেনে টেনে প্রতিদিন এক গ্রাম থেকে অন্য গ্রামে ভিক্ষার জন্য ছুটে যান তিনি। তবে ছেলের ভবিষ্যত নিয়ে চিন্তিত এই মা। এ অবস্থায় ছেলের চিকিৎসা করাতে চান তিনি। একই সঙ্গে প্রতিবন্ধী ছেলের মাথা গোঁজার ঠাঁই নিশ্চিত করে যেতে চান এই মা। এজন্য সবার সহযোগিতা চেয়েছেন নেত্রকোনার দুর্গাপুর পৌরসভার শৈলাডহর গ্রামের প্রতিবন্ধী জাকির হোসেনের মা জামেনা খাতুন। স্থানীয় সূত্র জানায়, প্রতিবন্ধী ছেলে জাকিরের গলায় রশি বেঁধে দুর্গাপুর উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে ভিক্ষা করেন মা জামেনা খাতুন। তাদের বাড়িঘর নেই। অন্যের বাড়িতে বসবাস করেন তারা। প্রতিদিন এক গ্রাম থেকে অন্য গ্রামে ছুটে যান বেঁচে থাকার তাগিদে। ভিক্ষা করে যা পান তা দিয়ে চলে তাদের সংসার। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শ্রবণশক্তিহীন ও বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী হয়ে জন্ম নেয় জাকির হোসেন। জন্মের কিছুদিন পর বাবাকে হারায় জাকির। এরপর জীবিকার তাগিদে একমাত্র প্রতিবন্ধী ছেলের গলায় রশি বেঁধে গ্রামে গ্রামে ভিক্ষা করেন মা। জাকিরের মা জামেনা খাতুন বলেন, প্রতিবন্ধী হয়ে জন্মেছে জাকির। টাকার অভাবে চিকিৎসা করাতে পারিনি। স্বামীর মৃত্যুর পর চলতে পারছিলাম না আমরা। এজন্য সন্তানের গলায় রশি বেঁধে ভিক্ষা করতে নামি। ভিক্ষা করে যা পাই তা দিয়ে মা-ছেলে খেয়ে বেঁচে আছি। মাঝেমধ্যে রশি ছিঁড়ে ছুটে যায় জাকির। তখন পাগল বলে মানুষে মারধর করে। আমি মরে যাওয়ার পর ছেলের কি হবে তা নিয়ে চিন্তিত। ছেলের চিকিৎসার জন্য সবার সহযোগিতা চাই আমি। প্রতিবেশীরা জানায়, জাকিরকে বাড়িতে বেঁধে রেখে গেলে রশি ছিঁড়ে চলে যায়। পথে ঘাটে মানুষে মারধর করে। জাকিরের মা এভাবে রশিতে বেঁধে ভিক্ষা করলে সবার খারাপ লাগে। পশুর মতো ছেলের গলায় রশি বেঁধে নিয়ে যায় মা। আমরা সাধ্যমতো সহযোগিতা করি। ঘরবাড়ি নেই। থাকার জায়গা নেই। অন্যের বাড়িতে থাকে মা-ছেলে। আপন বলতে তাদের কেউ নেই। তাদের সহযোগিতায় কেউ এগিয়ে এলে অসহায় মা-ছেলের একটা ব্যবস্থা হতো। দুর্গাপুর সার্কেলের এএসপি মাহমুদা শারমিন নেলী বলেন, ‘বিষয়টি শুনেছি। খুবই অমানবিক ঘটনা। আমরা সাধ্যমতো অসহায় মা-ছেলের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করব।’ দুর্গাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফারজানা খানম বলেন, ‘জাকির হোসেনকে প্রতিবন্ধী ভাতা দেয়া হয়। আমি উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে চিকিৎসার জন্য কিছুটা সাহায্য করেছি। আমরা জাকির ও তার মাকে সরকারি সহযোগিতা দেয়ার চেষ্টা করব।’

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

লোহাগাড়ায় মাদ্রাসা ছাত্রী অপহৃত নাকি নিখোঁজ? থানায় অভিযোগ

লোহাগাড়ায় মাদ্রাসা ছাত্রী অপহৃত নাকি নিখোঁজ? থানায় অভিযোগ

বিক্রয় প্রতিনিধিরাও বাঁচতে চায়। ৮দফা দাবি নিয়ে প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন

বিক্রয় প্রতিনিধিরাও বাঁচতে চায়। ৮দফা দাবি নিয়ে প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন

হাজতে সাবরিনার রাত কাটে যেভাবে

হাজতে সাবরিনার রাত কাটে যেভাবে

কেন্দুয়া পুকুর থেকে বৃদ্ধের মারাদেহ উদ্ধার

কেন্দুয়া পুকুর থেকে বৃদ্ধের মারাদেহ উদ্ধার

আরিফের চতুর্থ স্ত্রী সাবরিনা, রূপকথার মতো তাদের দাম্পত্য জীবন

আরিফের চতুর্থ স্ত্রী সাবরিনা, রূপকথার মতো তাদের দাম্পত্য জীবন

ডা. সাবরিনাকে রিমান্ডে নেবে পুলিশ

ডা. সাবরিনাকে রিমান্ডে নেবে পুলিশ

চৌগাছার মুকুন্দপুর গ্রামের আলী সরদার আর নেই,  গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বাাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন চৌগাছা শাখা

চৌগাছার মুকুন্দপুর গ্রামের আলী সরদার আর নেই, গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বাাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন চৌগাছা শাখা

প্রতারক সাহেদের সিলেট কানেকশন

প্রতারক সাহেদের সিলেট কানেকশন

মাষ্টার্স শেষ করে মাল্টা চাষে রবিউল সফল

মাষ্টার্স শেষ করে মাল্টা চাষে রবিউল সফল

করোনা টেস্ট নিয়ে প্রতারণা: ডা. সাবরিনা গ্রেফতার

করোনা টেস্ট নিয়ে প্রতারণা: ডা. সাবরিনা গ্রেফতার

যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান আর নেই।

যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান আর নেই।

তিস্তার পানিপ্রবাহ সর্বকালের রেকড ভেঙ্গে বিপদসীমার ৫২ সে.মি. ওপরে

তিস্তার পানিপ্রবাহ সর্বকালের রেকড ভেঙ্গে বিপদসীমার ৫২ সে.মি. ওপরে

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে ফরম জমা দিলেন ফরহাদ

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে ফরম জমা দিলেন ফরহাদ

পূনঃনির্মানের ৪ দিনেই ভেসে গেলো বৃষ্টির পানিতে ভেসে যাওয়া এডিবির ড্রেন

পূনঃনির্মানের ৪ দিনেই ভেসে গেলো বৃষ্টির পানিতে ভেসে যাওয়া এডিবির ড্রেন

তৃতীয় দফায় করোনা পরীক্ষা করালেন মাশরাফী

তৃতীয় দফায় করোনা পরীক্ষা করালেন মাশরাফী

সর্বশেষ

কুষ্টিয়ায় এলজিএসপি-৩ এর আওতায় ইউপি চেয়ারম্যান ও সচিবগণের পরিবেশ ও সামাজিক সুরক্ষা বিষয়ে বিশেষ প্রশিক্ষণ

কুষ্টিয়ায় এলজিএসপি-৩ এর আওতায় ইউপি চেয়ারম্যান ও সচিবগণের পরিবেশ ও সামাজিক সুরক্ষা বিষয়ে বিশেষ প্রশিক্ষণ

আগামীকাল বগুড়া ও যশোরে উপনির্বাচন হতে যাচ্ছে।

আগামীকাল বগুড়া ও যশোরে উপনির্বাচন হতে যাচ্ছে।

নীতি কে না বলুন

নীতি কে না বলুন

সরকারি কাজ পাওয়ার পেছনে রাজনৈতিক প্রভাব কতটা

সরকারি কাজ পাওয়ার পেছনে রাজনৈতিক প্রভাব কতটা

কুুড়িগ্রামে শিশুর প্রতি সহিংসতা এবং নির্যাতনের ঘটনায় উৎকন্ঠা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বরাবর এনসিটিএফ’র স্মারকলিপি প্রদান

কুুড়িগ্রামে শিশুর প্রতি সহিংসতা এবং নির্যাতনের ঘটনায় উৎকন্ঠা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বরাবর এনসিটিএফ’র স্মারকলিপি প্রদান

শিক্ষার প্রসারে বর্তমান সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন

শিক্ষার প্রসারে বর্তমান সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন

বাংলাদেশ অর্থনীতি অঞ্চলের গভর্নিং বোর্ডের সদস্য  হলেন  মৌলভীবাজারের মোঃ কামাল হোসেন

বাংলাদেশ অর্থনীতি অঞ্চলের গভর্নিং বোর্ডের সদস্য হলেন মৌলভীবাজারের মোঃ কামাল হোসেন

চৌগাছার অসহায় বৃদ্ধা ফুলবানু ও তার দুই বছরের নাতি ছেলের সাহায্যে এগিয়ে এসেছে ছাত্র নেতা সবুজ

চৌগাছার অসহায় বৃদ্ধা ফুলবানু ও তার দুই বছরের নাতি ছেলের সাহায্যে এগিয়ে এসেছে ছাত্র নেতা সবুজ

বেনাপোল কাস্টমের ৩ কর্মকর্তা বরখাস্ত দুই সি অ্যান্ড এফ’র লাইসেন্স বাতিল

বেনাপোল কাস্টমের ৩ কর্মকর্তা বরখাস্ত দুই সি অ্যান্ড এফ’র লাইসেন্স বাতিল

একজন সফল উদ্যোক্তা, ৪৬ বছরে ৪১ প্রতিষ্ঠান

একজন সফল উদ্যোক্তা, ৪৬ বছরে ৪১ প্রতিষ্ঠান

নুরুল ইসলামের অবদান মানুষ কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ রাখবে: বিএনপি

নুরুল ইসলামের অবদান মানুষ কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ রাখবে: বিএনপি

যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলামের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতির শোক

যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলামের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতির শোক

সৌদি যুবরাজই খাশোগি হত্যার প্রধান সন্দেহভাজন: জাতিসংঘ

সৌদি যুবরাজই খাশোগি হত্যার প্রধান সন্দেহভাজন: জাতিসংঘ

জেকেজি ও সাহেদের দুর্নীতি সরকারই উদ্ঘাটন করে ব্যবস্থা নিয়েছে: তথ্যমন্ত্রী

জেকেজি ও সাহেদের দুর্নীতি সরকারই উদ্ঘাটন করে ব্যবস্থা নিয়েছে: তথ্যমন্ত্রী

সমতা কল্যাণ সংস্থার বৃক্ষের চারা বিতরণ

সমতা কল্যাণ সংস্থার বৃক্ষের চারা বিতরণ