About Us
Ayshi Alam - (Dhaka)
প্রকাশ ২১/০৭/২০২১ ০৮:০৮পি এম

কোয়ারেন্টাইন

কোয়ারেন্টাইন Ad Banner
বারান্দায় বসে রুকু। এ ব্ল্যাক হ্যাট ব্ল্যাক হ্যাট অন দা টেবিল' - নাহ্ বইটা ঠিক ভাল লাগছে না। বাইরে তাকালো। রোদ পড়ে গেছে ।দূরে হালকা সোনালী রোদ মুড়িয়ে রেখেছে পৃথিবী কে।পৃথিবী কেমন একা। হঠাৎ চোখ গেল কোলাহলের' দিকে।ওর বইয়ের দোকান। রাস্তার ওপারে মাঝারি সাইজের একটা বইয়ের দোকান।

অনেক নতুন পুরাতন বই আছে। আড়াইশো বই দিয়ে দোকান টা শুরু করেছিল রুকু আর সনেট। অনেকটা শখের বশেই। রুকু মাঝে মাঝে বিকেলটা দোকানেই কাটায়। দোকান না বলে বরং লাইব্রেরী বলা যায়।চারদিকে নতুন পুরাতন বই ঠাসা।অনেকেই বসে বই পড়ছে। কিছু ভারতীয় ম্যাগাজিন।বইয়ের গন্ধ। নিলু আবার কি সব অনলাইনে পেজ খুলে রেখেছে অর্ডার আসে ।বই বিক্রি হয়‌।নিলু রুকুর বড় ছেলে।নিলু কিছুটা চিন্তিত চাকরি,ক্যারিয়ার,বিদেশ যাওয়া-না যাওয়া, অনিশ্চয়তা। কোয়ারেন্টাইন শেষ হওয়ার অপেক্ষায় আছে।

মাঝে মাঝে মায়ের সাথে বসে গল্প করে। বইয়েই মুখ গুঁজে থাকে সারাদিন। ইতিহাস-রাজনীতি-সাহিত্য। শৈশব থেকেই সময় কেটেছে কোলাহলে। আর বাড়িতে আছে শাওন।কোয়ারেন্টাইনে ওদের সময় কাটছে না। সারাদিন হারমোনিয়াম নিয়ে বসে গান গাইছে।ইউটিউব দেখে দেখে উল্টোপাল্টা রান্না শিখছে। আবার সেগুলো খেয়ে শেষ করতে না পারলে বন্ধুদের কে ফোন করে ডাকছে। সবাই মিলে খাচ্ছে। ঘরের ভিতরে হৈহুল্লোড় করছে।রুকু ঠিক বুঝে উঠতে পারে না তবুও কেন ওর সময় কাটছে না।

ওরা প্লান করেছে কোয়ারেন্টাইন শেষ হলেই পাহাড়ে যাবে। নিলাচল-নীলগিরি-সাজেক। ওদের সময় যেন কাটছে না‌ থেমে গেছে। সনেট মারা যাওয়ার পর থেকে রুকুরও সময় কাটেনা। বারান্দা আর‌ কোলাহল‌। কেমন যেন নিঃসঙ্গ হয়ে গেছে ‌।মনে হয় আরো অগণিত সময় কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে রুকু কে। বৈধব্যের পর পৃথিবীর মত‌ একা হয়ে গেছে রুকু।

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ

Verified আই নিউজ বিডি ডেস্ক
প্রকাশ ২৯/০৭/২০২১ ০২:৩৫পি এম