About Us
মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১
  • সোশ্যাল প্ল্যাটফর্ম:
Md. Rakibul Islam - (Dhaka)
প্রকাশ ১৬/০৬/২০২১ ১২:৩৭পি এম

কবি ও কবিতা, কে কার সৃষ্টি!

কবি ও কবিতা, কে কার সৃষ্টি! Ad Banner

কবি ও কবিতা নিয়ে একটি রসাত্মক বিশ্লেষণ!

কবিতাপ্রেমী পাঠকের মনে এক স্বর্গীয় সুর তুলতে সক্ষম কবিতা। পাঠক মনের খোড়াক জোগায় কবিতা। কবিতা ও পাঠকের মাঝে অনাদিকাল থেকে এক নিবিড় সম্পর্ক বিদ্যমান। সে সম্পর্কের সেতুবন্ধন তৈরি করেন কবিগন।

কখনও কল্পনার আকাশে ভেসে ভেসে মনের মাধুরি মিশিয়ে একেকটি পংক্তি জোড়া দিয়ে কবিতা গড়েন কবি। কবির সেই কল্পনা ক্ষেত্রবিশেষে পাঠকের জীবন গল্পের সাথে মিলে যায়। পাঠ করতে গিয়ে পাঠকের নয়নে আবেগের অশ্রু এসে লুকোচুরি খেলে। পাঠক আর কবিতা মিলে মিশে একাকার হয়ে যায় সে ক্ষণে। 

আবার কখনও বাস্তবতার নিরিখে কাব্য সাজান কবি। বাস্তবতাকে আরও নতুন করে উপভোগ করেন পাঠক সমাজ। কবির লেখা কবিতা দিয়ে পাঠক প্রিয়তম/প্রিয়তমাকে প্রেম নিবেদন করেন। প্রেয়সীর মান ভাঙাতে প্রতিনিয়ত ব্যবহৃত হয় কবির কবিতা। 

অন্যায়, নির্যাতনের শেকলের বিরুদ্ধে বারুদ হয়ে ওঠে কোনো কোনো কবিতা। সে কবিতা হৃদয়ে ধারণ করে শেকলে আবদ্ধ মানুষ শেকল ভাঙার প্রেরণায় উদ্বুদ্ধ হয়। এতে করে কবিগন যে স্বস্তিতে থাকেন তাও নয়। কবিতার লাইনে লাইনে বারুদ ফুটিয়ে কবিরা কারা প্রোকোষ্ঠের নির্মম আদরও গ্রহণ করেছেন বহুবার। তবুও থামানো যায়নি কবির কলম।

এভাবেই অসংখ্য কবিতা হয়েছে কালজয়ী, কবি হয়েছেন বিখ্যাত। কবি কবিতা লিখেছেন বলেই সে কবিতা পাঠক হাতে পেয়েছে এবং তা কাল জয়ী হয়েছে। মানুষের মুখে মুখে ছড়িয়েছে সে কবিতার কথা। আবার সেই কবিতা পাঠক প্রিয়তা পেয়েছে বলেই বিখ্যাত হয়েছেন কবি। শুধু শুধু লিখে গেলেই কবি বিখ্যাত হন না। সে লিখায় বিখ্যাত হবার রসদও থাকতে হয়।

কবির দাবি, কবিতা আমি তোমায় সৃষ্টি করেছি বলেই তুমি কবিতা নাম পেয়েছ, কালজয়ী হয়েছ। আরও শত শত কবি কবিতা লিখেছেন, তাদের কবিতা তো কালজয়ী হয়নি।

কবিতার দাবি, আমি জন্মেছি বলেই তুমি কবি। আমি কালজয়ী হয়েছি বলেই তুমি আজ বিখ্যাত। তোমার আরও শত শত কবিতা তো বইয়ের ভাগাড়ে পড়ে আছে, সেসব তো কালজয়ী হয়নি।

কবিতা ও কবির মাঝে দ্বন্দ্ব, কে কাকে সৃষ্টি করেছে!



শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ