About Us
sachchida nanda dey
প্রকাশ ১১/০৬/২০২১ ১২:১৩এ এম

আশাশুনিতে ভ্রাম্যমান আদালতে ৮০ হাজার টাকা জরিমানা

আশাশুনিতে ভ্রাম্যমান আদালতে  ৮০ হাজার টাকা জরিমানা Ad Banner

আশাশুনিতে চিংড়ী মাছে অপদ্রব্য পুশ রোধে পরিচালিত মোবাইল কোর্টে অর্থ দন্ড ও জব্দকৃত মাছ বিনষ্ট করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার (১০ জুন) সকালে উপজেলার কাদাকাটি হাজীরহাটে এ মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। আশাশুনি উপজেলার সকল এলাকায় বাগদা চিংড়ীতে অপদ্রব্য পুশের কারবার চলে আসছে দীর্ঘদিন।

এক শ্রেণির চিংড়ী ব্যবসায়ী বাগদা চিংড়ী কিনে বাড়িতে বা নির্দিষ্ট স্থানে নিয়ে শ্রমিক কাজে লাগিয়ে মাছে অপদ্রব্য পুশ করে ও পানিতে ভিজিয়ে রেখে মাছের ওজন বৃদ্ধি করে থাকে। ফলে চিংড়ীর গুণগত মান নষ্ট ও ব্যাকটেরিয়ার কারণে বিদেশ থেকে চালান ফেরৎ আসা ও বাংলাদেশ থেকে কোন কোন দেশে মাছ ক্রয়ে হাত গুটিয়ে নেওয়ার মত ঘটনা ঘটে এসেছে।

আশাশুনি উপজেলার চিংড়ীতে অপদ্রব্য পুশের লাগাম টানতে প্রশাসন প্রশংসনীয় উদ্যোগ গ্রহন করেছে। এরই অংশ হিসাবে বৃহস্পতিবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজমুল হুসেইন খাঁন কাদাকাটি হাজীরহাটে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। এসময় ব্যবসায়ী পঞ্চানন এর ঘরে বাগদা চিংড়িতে অপদ্রব্য পুশের কারণে ১৫০ কেজি পুশকৃত বাগদা চিংড়ী জব্দ করা হয়। একই সাথে ৮০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

পরে জব্দকৃত মাছ নদীতে ফেলে বিনষ্ট করা হয়। এসময় সিনিয়র উপজেলা মৎস্য অফিসার সৈকত মল্লিক, সহকারী মৎস্য অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান, পুলিশ বাহিনীর সদস্য এবং উপজেলা মৎস্য দপ্তরের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ