About Us
নুরুজ্জামান 'লিটন' - (Naogaon)
প্রকাশ ০৭/০৬/২০২১ ০৯:৪৪পি এম

নওগাঁয় বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ ও গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগ

নওগাঁয় বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ ও গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগ Ad Banner

নওগাঁ জেলার মান্দায় বিয়ের প্রলোভন দিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ ও গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগ এক যুবকের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত যুবক নাহিদ হাসান উপজেলার মৈনম ইউনিয়নের বিলদুবলা গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে।

এ ঘটনায় আজ  সোমবার (৭ জুন) দুপুরে মান্দা থানায় ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।  মামলা সূত্রে জানা যায়, বখাটে নাহিদ হাসানের সঙ্গে ভুক্তভোগী নারীর এক বছর ধরে প্রেমের সর্ম্পক চলে আসছিল।

এ সময় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নাহিদ হাসান ওই নারীর সঙ্গে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন। গত ১৭ মে বিয়ের কথা বলে ওই মেয়েকে প্রেমিক নাহিদ হাসানের মামার বাড়িতে নিয়ে যান।

ওই রাতে মামা বাড়ির একটি কক্ষে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। পরে বিভিন্ন অজুহাতে বিয়ে না করে তাকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। 

ভুক্তভোগী ওই নারী জানান, একাধিকবার ধর্ষণের কারণে তিনি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। বিষয়টি প্রেমিক নাহিদকে জানিয়ে বিয়ের কথা বললে তার পরিবারের লোকজন টালবাহানা শুরু করে ও বাচ্চা নষ্ট করার জন্য চাপ দেন।

ওই নারী বলেন, একপর্যায়ে বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে প্রেমিক নাহিদের বাড়িতে গেলে আমার বাবা-মাকে তাদের বাড়ি থেকে বের করে দেয়া হয়।   

ভুক্তভোগী জানান, প্রেমিক নাহিদের পরামর্শে গত ২৬ মে সাবাইহাটের একটি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে গিয়ে গর্ভপাত করিয়ে নেন তিনি। এরপর প্রেমিক নাহিদ বিয়ে না করে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যান। তার ব্যবহৃত মোবাইলটিও বন্ধ রয়েছে। ঘটনায় প্রেমিক নাহিদসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মান্দা থানায় মামলা করেন তিনি। 

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মান্দা থানার ওসি শাহিনুর রহমান বলেন, আসামি গ্রেফতারে অভিযান শুরু করা হয়েছে। ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ