Thursday -
  • 0
  • 0
আব্দুল করিম যাদু
Posted at 03/01/2021 11:55:pm

২২ বছর পরে স্থানীয় সরকার ও প্রশাসনের সহায়তায় পেল জমি

২২ বছর পরে স্থানীয় সরকার ও প্রশাসনের সহায়তায় পেল জমি

নীলফামারী জেলার ডিমলা উপজেলার চরখড়িবাড়ী গ্রামের আব্দুল লতিফ গং এর সাথে একই গ্রামের আলহাজ্জ সোহবার হোসেন, শাহাজাহান আলী এবং গোলাম সারোয়ার হোসেন এই চারটি পরিবারের মধ্যে মোট-৮ একর ৬৪ শতাংশ জমি নিয়ে দীর্ঘ ২২ বছর থেকে হানাহানি, রক্তপাত ও এমন কি জীবননাশের ঘটনাও  ঘটেছিল। একাধিক বার মামলা করেছিল এক পরিবার আরেক পরিবারের উপর, এভাবে চলছিল রক্তক্ষয়ী পারিবারিক সংঘাত। সেই সময় থেকে চারটি পরিবারের মাঝে দীর্ঘ ২২ বছর যাবত মামলা চলছে। কখনো বা যেতে হয়েছে জর্জকোর্টে, কখনো বা যেতে হয়েছিল হাই কোর্টে কখনো আবার সুপ্রিম কোর্টের বারান্দায়।

দীর্ঘ দিন মামলা পরিচালনায় বিষয়টি নজরে নেন ডিমলা থানা ওসি সিরাজুল ইসলাম ও তদন্ত (ওসি) সোহেল রানা ও মামলাটি আপস-মিমাংসা উদ্দ্যেগ নেন টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জনাব ময়নুল হক। এই মামলাগুলোকে আপস-মিমাংসা করতে চারটি পরিবারকে নিয়ে দীর্ঘ দিনে যাবত বিভিন্ন স্থানে বসেন। তারেই প্রেক্ষিতে গত ৩০ ডিসেম্বর ২০২০ এ চারটি পরিবারকে নিয়ে টেপাখড়িবাড়ী পরিষদে গ্রাম আদালত ও পুলিশ বিট কার্যালয়ে আপস-মিমাংসায় বসেন এতে সভাপতিত্ব করেন জনাব ময়নুল হক, চেয়ারম্যান-৯ নং টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়ন, সহযোগীতায় ছিলেন ডিমলা থানা তদন্ত(ওসি) সোহেল রানা, বিট অফিসার জনাব আবুল কালাম আযাদ, রফিকুল ইসলাম রফিক,সভাপতি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ টেপাখড়িবাড়ী ইউপি শাখা, জিকরুল ইসলাম ইউ.পি সদস্য ৯ নং ওয়ার্ড, ইব্রাহিম আলী ইউ.পি সদস্য ৮ নং ওয়ার্ড, হামিদুল ইসলাম ইউ.পি সদস্য ৩ নং ওয়ার্ড।

উক্ত গ্রাম আদালতের রায়ে আঃ লতিফ গং জমি পায়-৫ একর ৮৭ শতাংশ, সোহরাব-১ একর ৭ শতাংশ, শাহাজাহান-৮৫ শতাংশ গোলাম সারোয়ার -৮৫ শতাংশ করে মোট ৮ একর ৬৪ শতাংশ জমি পায়। উক্ত আপস-মিমাংসাটি ইউপি চেয়ারম্যানের দোয়ার মাধ্যমে শেষ হয়।

এ বিষয় ডিমলা থানা তদন্ত(ওসি) সোহেল রানা জানান, আমাদের থানা কর্মকর্তার ও আমার আশা ছিল যে, দীর্ঘ দিনের এই পারিবারিক সংঘাতটি মিমাংসা করবো এবং এটি আজকে মিমাংসা হয়ে গেল। আমি আমার থানার পক্ষ থেকে ইউনিয়ন বাসীকে অসংখ্যা ধন্যবাদ ও মোবারক বাদ জানাই।

টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সবুজ জানান, আল্লাহর কাছে হাজারো শুকরিয়া যে, দীর্ঘ দিনের এই দ্বিধা-দ্বন্দ্বটি আমার হাত দিয়ে সমাধান হলো। সকলের কাছে আমার অনুরোধ যে আর যেন এরকম দ্বন্দ্বে জড়িয়ে না পরে। আল্লাহ সকলকে করোনা থেকে দুরে রাখে।



শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ