Feedback

জেলার খবর

ফরাক্কায় লাইনচ্যুত হয়ে বাড়িতে ঢুকল রেল ইঞ্জিন

ফরাক্কায় লাইনচ্যুত হয়ে বাড়িতে ঢুকল রেল ইঞ্জিন
November 19
11:17am
2020
Md Jahidul Islam Sumon
Sobujbagh, Dhaka:
Eye News BD App PlayStore

অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন পরিবারের সদস্যরা .মঙ্গলবার গভীর রাতে ফরাক্কার কেন্দুয়ায় লাইনচ্যুত হয়ে একটি মালগাড়ির ইঞ্জিন রেলের গার্ডওয়াল ও সিমেন্ট কারখানার পাঁচিল ভেঙে একটি বাড়িতে ঢুকে যায়। ঘটনায় মুহূর্তের মধ্যে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়ায়। স্থানীয় বাসিন্দারা এসে পরিবারের সবাইকে উদ্ধার করেন। তবে বরাতজোরে সকলেই রক্ষা পেয়েছেন। ঘটনায় রেল কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় সিমেন্ট কারখানার বিরুদ্ধে ব্যাপক ক্ষুব্ধ এলাকার বাসিন্দারা। রেলকর্তারা ঘটনাটি তদন্ত করে দেখছেন বলে জানা গিয়েছে।

বুধবার সকালে ফরাক্কা ব্যারেজের উপর দিয়ে যাওয়ার সময় মালদহগামী একটি মালগাড়ির বেশ কয়েকটি ওয়াগন ইঞ্জিন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ইঞ্জিনটি বেশ কিছুটা এগিয়ে যাওয়ার পর বিষয়টি রেল কর্মীদের নজরে আসে। পরে তা জুড়ে দেওয়া হয়। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রাত ১টা নাগাদ দরজা এঁটে গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন ছিলেন পরিবারের সবাই। আচমকা হুড়মুড়িয়ে রেলের গার্ডওয়াল ও সিমেন্ট কারখানার পাঁচিল ভেঙে ইঞ্জিনটি ঘরে ঢুকে পড়ে। প্রচণ্ড শব্দে সকলের ঘুম ভেঙে যায়। শিশু ও বড়রা ভয়ে কান্নাকাটি শুরু করেন। আতঙ্কে সকলেই বাড়ির বাইরে বেরিয়ে আসেন।

স্থানীয় বাসিন্দারা সকলকে উদ্ধার করেন। জানা গিয়েছে, রেললাইন সংলগ্ন এলাকায় হামিদুল শেখ ও তৈমুর শেখের বাড়ির বারান্দায় ইঞ্জিনটি ঢুকে পড়ে। হামিদুল বলেন, আচমকা বিকট আওয়াজে ঘুম ভেঙে বাড়ির বাইরে এসে দেখি, একটি মালগাড়ির ইঞ্জিন বাড়ির উঠোনে ঢুকে গিয়েছে। তখনও বুঝে উঠতে পারছিলাম না আসলে কী হয়েছে। আমাদের বাড়ির কিছুটা অংশ ফাটল ধরেছে। তবে, সিমেন্ট কারখানার মালগাড়ি যাতায়াতের ফলে আমাদের জীবনের ঝুঁকি ছিল। অল্পের জন্য আমরা রক্ষা পেয়েছি। স্থানীয় বাসিন্দাদের আরও অভিযোগ, সিমেন্ট কারখানার ছাইয়ে ঘরবাড়ি সব নোংরা হয়ে যায়। তারপর এভাবে ঘরের মধ্যে ট্রেন ঢুকে পড়ায় আতঙ্কের মধ্যে রয়েছি। আমরা ক্ষতিপূরণ সহ এই এলাকায় রেল চলাচলে আরও সাবধানতা নেওয়ার দাবি জানাচ্ছি। প্রসঙ্গত, ফরাক্কা ও মালদহ শাখায় ট্রেন চলাচল করলেও সিমেন্ট কারখানায় যাওয়ার জন্য একটি লাইন রয়েছে। ওই লাইনের একটি ইঞ্জিন লাইনচ্যুত হয়ে ঢুকে পড়ে।

এলাকার বাসিন্দারা বলেন, যেভাবে গভীর রাতে ইঞ্জিনটি লাইনচ্যুত হয়েছে তাতে বড়সড় দুর্ঘটনার আশঙ্কা ছিল। কিন্তু বরাতজোরে ওই বাড়ির সবাই রক্ষা পেয়েছেন। আমাদের দাবি, সিমেন্ট কারখানায় মালগাড়ি চলাচল করার সময় যথাযথ সাবধানতা নেওয়া হোক। সিমেন্ট কারখানা কর্তৃপক্ষ কিছুতেই তাদের দায় এড়াতে পারে না। তাছাড়া রেল কর্তৃপক্ষেরও বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করা উচিত। বুধবার সকাল ৮টা নাগাদ ফরাক্কা ব্যারাজের উপর দিয়ে একটি মালগাড়ি যাওয়ার সময় হঠাৎই ইঞ্জিন থেকে বেশ কয়েকটি রেক বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ইঞ্জিনটি বেশ কিছুটা এগিয়ে যাওয়ার পর বিষয়টি রেল কর্মীদের নজরে আসে। বেশ কয়েক ঘণ্টা রেল চলাচল ব্যহত হয়। রেলকর্তারা এসে বিষয়টি খতিয়ে দেখেন।

রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, ফরাক্কা ব্যারেজের ১০নম্বর গেটে মালদহগামী মালগাড়ির কয়েকটি রেক খুলে গেলে এই বিপত্তি ঘটে। তবে ব্যারেজের উপর হওয়ায় বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা মিলেছে বলে স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি।

All News Report

Add Rating:

0

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

একুশ বছরেও ভর্তুকি পায়নি হাবিপ্রবির কোন হল, ভোগান্তিতে শিক্ষার্থীরা!

একুশ বছরেও ভর্তুকি পায়নি হাবিপ্রবির কোন হল, ভোগান্তিতে শিক্ষার্থীরা!

কিশোরগঞ্জে শাক তুলে দেওয়ার কথা বলে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণ

কিশোরগঞ্জে শাক তুলে দেওয়ার কথা বলে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণ

বৌভাত অনুষ্ঠানে বরের জানাজা, কনে হাসপাতালে

বৌভাত অনুষ্ঠানে বরের জানাজা, কনে হাসপাতালে

আক্কেলপুর পৌর মেয়র প্রার্থী নির্ধারনে সরকার দলীয় মতামত নির্বাচন অনুষ্ঠিত

আক্কেলপুর পৌর মেয়র প্রার্থী নির্ধারনে সরকার দলীয় মতামত নির্বাচন অনুষ্ঠিত

কিশোরগঞ্জে ‘আল্লাহর দল’র সদস্য আটক

কিশোরগঞ্জে ‘আল্লাহর দল’র সদস্য আটক

কাবিনের টাকা বাড়ানোর কথা বলে গৃহবধূকে ধর্ষণ, কাজী কারাগারে

কাবিনের টাকা বাড়ানোর কথা বলে গৃহবধূকে ধর্ষণ, কাজী কারাগারে

প্রথম ধাপে পৌর নির্বাচনে ১০৩ মেয়র প্রার্থী বৈধ

প্রথম ধাপে পৌর নির্বাচনে ১০৩ মেয়র প্রার্থী বৈধ

কটিয়াদীতে নৈশপ্রহরীকে কুপিয়ে হত্যা

কটিয়াদীতে নৈশপ্রহরীকে কুপিয়ে হত্যা

মির্জাপুরে সড়কে ঝরলো ৬ প্রাণ

মির্জাপুরে সড়কে ঝরলো ৬ প্রাণ

বগুড়ায় সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীকে অপহরণ করে দেড় মাস ধরে ধর্ষণ: গ্রেপ্তার ২

বগুড়ায় সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীকে অপহরণ করে দেড় মাস ধরে ধর্ষণ: গ্রেপ্তার ২

নান্দাইলে তরুণীকে নিয়ে ফুর্তি করতে গিয়ে জনতার হাতে ধরা পড়ল পুলিশ

নান্দাইলে তরুণীকে নিয়ে ফুর্তি করতে গিয়ে জনতার হাতে ধরা পড়ল পুলিশ

জাবির EEC-JU এর দ্বিতীয় বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

জাবির EEC-JU এর দ্বিতীয় বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

মুজিববর্ষ ফুটবল টুর্নামেন্ট'র ফাইনাল অনুষ্ঠিত

মুজিববর্ষ ফুটবল টুর্নামেন্ট'র ফাইনাল অনুষ্ঠিত

ফ্রান্সে ৭৬টি মসজিদ বন্ধের পরিকল্পনা

ফ্রান্সে ৭৬টি মসজিদ বন্ধের পরিকল্পনা

রুবিনা পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর উপহার

রুবিনা পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর উপহার

সর্বশেষ

কুষ্টিয়া ৫ রাস্তার মোড়ে নির্মানাধীন বঙ্গবন্ধুর ভাষ্কর্য ভাঙচুর

কুষ্টিয়া ৫ রাস্তার মোড়ে নির্মানাধীন বঙ্গবন্ধুর ভাষ্কর্য ভাঙচুর

নির্বাচনের প্রতি দেশের মানুষের অনীহা সৃষ্টি হয়েছে: জি এম কাদের

নির্বাচনের প্রতি দেশের মানুষের অনীহা সৃষ্টি হয়েছে: জি এম কাদের

ইসলামের অপব্যাখা দিয়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরোধিতা করা হচ্ছে : বাবলা

ইসলামের অপব্যাখা দিয়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরোধিতা করা হচ্ছে : বাবলা

রাজধানীর নির্মানাধীন ভবনে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু

রাজধানীর নির্মানাধীন ভবনে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু

রাজধানীতে ২ লাখ জাল টাকাসহ আটক ২

রাজধানীতে ২ লাখ জাল টাকাসহ আটক ২

বাংলাদেশ ক্রিকেটে তারকাদের পতন কি ঘনিয়ে আসছে ?

বাংলাদেশ ক্রিকেটে তারকাদের পতন কি ঘনিয়ে আসছে ?

নীলফামারী সদরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১

নীলফামারী সদরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১

৬টি ঘরোয়া উপায়ে এভাবেই আরশোলার বংশ ধ্বংস করুন

৬টি ঘরোয়া উপায়ে এভাবেই আরশোলার বংশ ধ্বংস করুন

পুরুষরা নির্যাতনের শিকার হচ্ছে, নির্যাতন প্রতিরোধে মানববন্ধন

পুরুষরা নির্যাতনের শিকার হচ্ছে, নির্যাতন প্রতিরোধে মানববন্ধন

ফুলকোর্ট সভা আগামী সোমবার

ফুলকোর্ট সভা আগামী সোমবার

আইনজীবী সদস্যদের জন্য করোনা ভ্যাকসিন চায় সুপ্রিম কোর্ট বার

আইনজীবী সদস্যদের জন্য করোনা ভ্যাকসিন চায় সুপ্রিম কোর্ট বার

স্মৃতিশক্তি বাড়ানোর ১২ উপায় জেনে নিন

স্মৃতিশক্তি বাড়ানোর ১২ উপায় জেনে নিন

শরীরে ইমিউনিটি বাড়াতে সকালের নাস্তায় যা খাবেন

শরীরে ইমিউনিটি বাড়াতে সকালের নাস্তায় যা খাবেন

করোনা শনাক্তে ব্রাহ্মণবাড়িয়া অ্যান্টিজেন পরীক্ষা শুরু

করোনা শনাক্তে ব্রাহ্মণবাড়িয়া অ্যান্টিজেন পরীক্ষা শুরু

ব্যবহার করা চা পাতা ফেলে দিচ্ছেন?  উপকারিতা জানলে আপনিও চমকে উঠবেন

ব্যবহার করা চা পাতা ফেলে দিচ্ছেন? উপকারিতা জানলে আপনিও চমকে উঠবেন