Feedback

সাহিত্য

গল্প-উপন্যাসের চিরায়ত ‘মা’

গল্প-উপন্যাসের চিরায়ত ‘মা’
October 16
04:10pm
2020
Rofiqul Islam
Mohongonj, Netrokona:
Eye News BD App PlayStore

একজন মানুষের জীবনে তার মায়ের প্রভাব অপরিসীম। একটি প্রবাদ বলছে—বাবা সন্তানকে মর্ত্যে আনে আর মা সন্তানকে মর্ত্য থেকে স্বর্গে পাঠায়। সত্যি কথা বলতে কী, মা শুধু দশ মাস দশ দিন সন্তানকে গর্ভে ধারণ করে না, এ পৃথিবীর উপযুক্ত করে তোলে। সন্তানকে মানুষ করে। হাওয়ার্ড জনসন বলছেন : ‘আমি তেমনই মানুষ, যেমন আমাকে আমার মা তৈরি করেছে।’ বলা যায়, সন্তান জন্ম দিলেই মা হওয়া যায় না। সন্তানকে মানুষের মতো মানুষ করা, তার সুখ-দুুঃখে পাশে থাকা, ভালো কাজে তাকে উৎসাহ দেওয়া, মন্দ-কাজে নিষেধ করাসহ নানা দায়িত্বই পালন করতে হয় একজন মা-কে।

মা-কে ঘিরে বহু গল্প-উপন্যাস করেছেন পৃথিবীর নানা দেশের কথাসাহিত্যিকরা। এই রচনায় তেমনই কয়েকটি বিখ্যাত উপন্যাসের কথা তুলে ধরা হয়েছে। লিখেছেন রফিকুল ইসলাম।

ম্যাক্সিম গোর্কির মা

সম্ভবত বিশ্বে সর্বাধিক পঠিত এই রুশ উপন্যাসটি এমন এক মায়ের প্রতিচ্ছবি পাঠকহৃদয়ে গেঁথে দিয়েছে যা চাইলেও তুলে ফেলা যায় না। পেলাগেয়া নিলভনা নামের একজন অতি সাধারণ মেয়ে মানুষ কী করে সময়ের প্রয়োজনে আস্তে আস্তে রূপান্তরিত হন একজন রাজনীতি সচেতন ব্যক্তিতে সেটিই গোর্কির ‘মা’ উপন্যাসে ফুটে উঠেছে। শ্রমিক পাভেলের মা তিনি। বিপ্লবপূর্ব রাশিয়ার লাঞ্ছিত, নির্যাতিত মানুষদের প্রতিনিধি তারা। সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবের জন্য তৈরি হতে থাকা পাভেল ও তার বন্ধুদের সহযোগিতা করতে করতে পেলাগেয়া নিলভনা নিজেই হয়ে ওঠেন একজন দক্ষ বিপ্লবী। মা ও ছেলের মুখ্য ভূমিকা এই উপন্যাসজুড়ে।

গোর্কি নিজেও ছিলেন সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবের সপক্ষে শক্তি। লেনিনের সঙ্গে গভীর সখ্যতা ছিল তার। বিপ্লবের পক্ষে সোচ্চার গোর্কির প্রতিবাদ ফুটে উঠেছে তার প্রায় সব লেখায়। অত্যাচারী শাসক জারের কোপানলে পড়ে কারাবরণ করেছেন অনেকবার। তার বাস্তবজীবনের চিত্রগুলো সরাসরি চলে এসেছে লেখায়। তার সৃষ্টি সমগ্রে মাইলফলক হয়ে আছে মা। পেলাগেয়া নিলভনা নামের এক সাধারণ নারী বিপ্লবের সংস্পর্শে আসার পর বুঝতে শেখেন সারাজীবন কী করুণভাবে কাটিয়েছেন। শ্রেণিগত নির্যাতন ও লিঙ্গগত অবস্থানের অসহায় শিকার রাশিয়ার শ্রমিক নারীসমাজ, তা চমৎকার বর্ণনা করেছেন গোর্কি ‘মা’ উপন্যাসে।

ব্রেশট-এর মা

বিশ্বসাহিত্যে আরও এক মা উপহার দেন বের্টোলেট ব্রেশট। তিনি অ্যানা ফিয়েলিং। যার ব্যাপক পরিচিতি মাদার কারেঞ্জ। যুদ্ধের গতি অনুসরণ করে চলে মায়ের খাবারের গাড়িটি। এ খাবারের গাড়িটি তার জীবিকার একমাত্র সম্বল। এটির আয় দিয়ে সংসার চলে তার। ঘরে তার একটি রোগা মেয়ে আর দুই ছেলে। তিনটে সন্তানের বাবা আলাদা যদিও তাদের কেউই মাদার কারেঞ্জের পাশে নেই। মাদার কারেঞ্জ সাহসী নন অন্তত বাহ্যিক চোখে তাই মনে হয়। তবুও বেঁচে থাকার লড়াইয়ে বৈপরীত্যের বাধা মেনে নেমে পড়েন তিনি। যুদ্ধ দিনগুলোর পথে ছুটে চলে মাদার কারেঞ্জের খাবার গাড়ি। তিন সন্তানের মা ক্রমান্বয়ে হয়ে উঠতে থাকেন সর্বজনীন মা।

পথের পাঁচালীর সর্বজয়া

সর্বজয়ার ব্যাপ্তি অপু ট্রিলজির ‘অপরাজিত’ পর্যন্ত। অপু কাহিনির এক মধ্যমণি চরিত্র সর্বজয়া। দারিদ্র্য, দুর্গার মৃত্যু, বাস্তুত্যাগ, স্বামীহীন হওয়ার পরে পরিবর্তী জীবনসংগ্রাম, অপুর সঙ্গে মানসিক বিচ্ছেদ, সর্বশেষ অসুস্থতা ও নৈঃসঙ্গের মধ্যদিয়ে মৃত্যুতে মুক্তি। অপু কাহিনি বিংশ শতকের প্রথম পর্বে বাংলার একটি প্রত্যন্ত গ্রামে জন্ম নেওয়া এক বালকের সামান্য গÐির সীমা ছাড়িয়ে বিশ্বলোকের যাত্রী হয়ে ওঠার গল্প হলেও ‘পথের পাঁচালী’ আর ‘অপরাজিত’ মূলত সর্বজয়ার জীবনসংগ্রামের কাহিনি। এ লড়াইয়ের আঁচ অপুর গায়ে তেমন লাগে নি। সর্বজয়া নামটিই ইঙ্গিতপূর্ণ। শুরুতে ইন্দিরা ঠাকরুণের প্রতি নির্দয় ব্যবহারে তার প্রতি অপ্রসন্ন থাকলেও ক্রমেই সর্বজয়ার একাকী যুদ্ধের সঙ্গী হয়ে উঠি আমরা। 

বিন্দুর ছেলে

গর্ভধারিণী না হয়েও মা হয়ে ওঠার তুখোড় গাঁথুনি আমরা পাই কথাশিল্পী শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের উপন্যাস ‘বিন্দুর ছেলে’-তে। মায়ের স্নেহ যে কতটা বিশাল হতে পারে, মাতৃস্নেহ যে কতটা বিস্তৃত হতে পারে, তা এই উপন্যাসে লেখক প্রকাশ করেছেন। মায়ের স্নেহ বলতে আমরা যে ধারণা আমাদের হৃদয়ে ধারণ করি তার আক্ষরিক রূপ এই উপন্যাসে পাওয়া যায়। শরৎচন্দ্রের ‘রামের সুমতি’ উপন্যাসেও মাতৃস্নেহের এই রূপ আমরা পাই।

গোরা

গোরা রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের অনন্য একটি উপন্যাস। এই উপন্যাসে মা ‘আনন্দময়ী’ চরিত্রটি সমস্ত সীমার ঊর্ধ্বে। অর্থাৎ মা যে-কোনো জাতভেদকে মাড়িয়ে জননীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হতে পারেন। এই উপন্যাসে তাই দেখানো হয়েছে।

শওকত ওসমানের মা

শওকত ওসমানের বিখ্যাত উপন্যাস ‘জননী’। দুই স্বামীর ঘর করে আসা দরিয়াবিবি সন্তানকে নিয়ে অসহায় অবস্থায় পতিত হয় যখন তার দ্বিতীয় স্বামী নিরুদ্দেশ হয়ে যায়। সে ফিরে এলেও মারা যায় ম্যালেরিয়ায়। ফুপাত দেবরের নজরে পড়ে দরিয়াবিবি। এই দেবর তাকে বিয়ে করতে চাইলেও তার অন্য বউদের কারণে পারে না। তবু দরিয়াবিবির পেছনে আঠার মতো লেগে থাকে দেবর ইয়াকুব। অভাবের কাছে পরাস্ত দরিয়াবিবি ইয়াকুবের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্কে জড়িয়ে যায় এবং সন্তানসম্ভবা হয়ে পড়ে। গর্ভকালীন সময়ে তলপেটের স্ফিতি যাতে কেউ বুঝতে না পারে সে জন্য অতিরিক্ত কাপড় গায়ে জড়ায় সে, যাতে সবাই মনে করতে থাকে দরিয়াবিবি কেবল মোটাই হচ্ছে, গর্ভবতী নয়।

বিষয়টি গোপন রাখা একপর্যায়ে অসম্ভব হয়ে পড়ে, কেননা প্রসবকালীন সময় কাছে চলে আসে। রাতে তিন সন্তানকে ঘুম পাড়িয়ে রান্নাঘরে প্রবেশ করে দরিয়াবিবি। একার চেষ্টায় জন্ম দেয় একটি পুত্র সন্তান। কাহিনির মোচড় এখান থেকে অন্য বাঁক নেয়। সন্তান অবৈধ হলেও নিজের সম্মানের কথা চিন্তা করে সেই সন্তানকে সে হত্যা বা ত্যাগ করে না। তাকে পরিষ্কার করে বুকে তুলে নেয়। আদর করে মুখে বুকের দুধ তুলে দেয়। এরপর আত্মহত্যা করে সে।

আনিসুল হকের মা

বাঙালির জীবনের শ্রেষ্ঠ ঘটনা মুক্তিযুদ্ধের এক মা তিনি। আজাদের মা। স্বামী দ্বিতীয় বিয়ে করায় অভিমান করে ঘর ছাড়েন সেই মা। সন্তান আজাদকে বড় করেন একা। আজাদের কাছে তার মা-ই সব। মা অনেক কষ্ট করে আজাদকে এম এ পাস করান। আসে ১৯৭১, আজাদের বন্ধুরা। মুক্তিযুদ্ধে যোগ দেয়। যুদ্ধে যাওয়ার আকুলতা জানিয়ে মায়ের কাছে অনুমতি চায় আজাদ। অন্যায়কে প্রশ্রয় না দেওয়া মা আজাদকে অনুমতি দেন। ৩০ আগস্ট ১৯৭১ পাকিস্তানি হানাদারদের হাতে ধরা পড়ে আজাদ। টর্চার সেলে নির্মম অত্যাচার চালিয়েও তার মুখ থেকে কোনো খবর বের করা যায় না। পরে তার মাকে খবর পাঠানো হয়। ছেলেকে মুক্ত করা হবে যদি সে মুখ খোলে এমন প্রস্তাব দিলেও মা নাকচ করে দেন। আজাদ মায়ের কাছে ভাত খেতে চায়। দুদিন উপোসি সন্তানের জন্য পরদিন ভাত রেঁধে আনেন তার মা। কিন্তু সন্তানকে পান না। এই ঘটনার পর চৌদ্দ বছর বেঁচে ছিলেন আজাদের মা। আমৃত্যুকাল পর্যন্ত ভাত খান নি তিনি। খাটেও ঘুমান নি। এক মর্মস্পর্শী অন্তিমের দিকে আনিসুল হকের ‘মা’ যাত্রা শুরু করে।


All News Report

Add Rating:

0

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

ময়মনসিংহ-৩ আসনের সংসদ সদস্য নাজিম উদ্দিনের ধর্ষণের ভিডিও ক্লিপ ভাইরাল

ময়মনসিংহ-৩ আসনের সংসদ সদস্য নাজিম উদ্দিনের ধর্ষণের ভিডিও ক্লিপ ভাইরাল

নভেম্বরেই প্রাতিষ্ঠানিক ই-মেইল পাচ্ছেন হাবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা

নভেম্বরেই প্রাতিষ্ঠানিক ই-মেইল পাচ্ছেন হাবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা

দক্ষিণ আফ্রিকায় ২২ দেশের নাগরিক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

দক্ষিণ আফ্রিকায় ২২ দেশের নাগরিক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

কলারোয়ায় একই পরিবারের ৪ সদস্য খুনের রহস্য উন্মোচন, হত্যায় ব্যবহৃত চাপাতি উদ্ধার

কলারোয়ায় একই পরিবারের ৪ সদস্য খুনের রহস্য উন্মোচন, হত্যায় ব্যবহৃত চাপাতি উদ্ধার

ওরা তো খুব ছোট স্যার, তাই আমি চেষ্টা করি বেশি ব্যথা যেন না পায়, মাদ্রাসার শিক্ষক!

ওরা তো খুব ছোট স্যার, তাই আমি চেষ্টা করি বেশি ব্যথা যেন না পায়, মাদ্রাসার শিক্ষক!

আসসালামু আলাইকুম ও আল্লাহ হাফেজ বলাটা জামাত ও জঙ্গীবাদের শিক্ষা

আসসালামু আলাইকুম ও আল্লাহ হাফেজ বলাটা জামাত ও জঙ্গীবাদের শিক্ষা

সৌদি 'ফ্রি ভিসা'র ভয়াবহ ফাঁদ

সৌদি 'ফ্রি ভিসা'র ভয়াবহ ফাঁদ

এসআই আকবরকে পালাতে সহায়তাকারী এসআই হাসান বরখাস্ত

এসআই আকবরকে পালাতে সহায়তাকারী এসআই হাসান বরখাস্ত

জিয়ার সালাম নিয়ে কুটুক্তি সালাম দিয়েই জবাব সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল

জিয়ার সালাম নিয়ে কুটুক্তি সালাম দিয়েই জবাব সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল

রাজকে কতটা ভালোবাসেন ছবি পোস্ট করে জানালেন শুভশ্রী

রাজকে কতটা ভালোবাসেন ছবি পোস্ট করে জানালেন শুভশ্রী

পোল্যান্ডে নতুন রাষ্ট্রদূত সুলতানা লায়লা

পোল্যান্ডে নতুন রাষ্ট্রদূত সুলতানা লায়লা

চাটখিলে চাচিকে ধর্ষণ ও নগ্ন ভিডিও ধারণের অভিযোগে যুবলীগ নেতা গ্রেফতার

চাটখিলে চাচিকে ধর্ষণ ও নগ্ন ভিডিও ধারণের অভিযোগে যুবলীগ নেতা গ্রেফতার

কাতার থেকে ভিসা জটিলতায় দেশে ফিরতে হলো ৪৭ ইতালি প্রবাসীকে

কাতার থেকে ভিসা জটিলতায় দেশে ফিরতে হলো ৪৭ ইতালি প্রবাসীকে

সরিষাবাড়ীতে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচীর ৩শ ৫০ বস্তা চাল আটক

সরিষাবাড়ীতে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচীর ৩শ ৫০ বস্তা চাল আটক

একাত্তর টিভির পথেই হাটছে ডিবিসি নিউজ: ইসলাম ও আলেম ওলামারাই যেন টার্গেট

একাত্তর টিভির পথেই হাটছে ডিবিসি নিউজ: ইসলাম ও আলেম ওলামারাই যেন টার্গেট

সর্বশেষ

সঞ্জয় দত্ত ক্যানসারকে হার মানিয়ে কেমন আছেন এখন

সঞ্জয় দত্ত ক্যানসারকে হার মানিয়ে কেমন আছেন এখন

মিঠাপুকুরে ইয়াবা ট্যাবলেট বিক্রির সময় মা-ছেলে আটক

মিঠাপুকুরে ইয়াবা ট্যাবলেট বিক্রির সময় মা-ছেলে আটক

অধ্যাপক ড. গোলাম রহমান-এর লেখা সম্পাদনা গ্রন্থ 'কৃষি সাংবাদিকতা'

অধ্যাপক ড. গোলাম রহমান-এর লেখা সম্পাদনা গ্রন্থ 'কৃষি সাংবাদিকতা'

তাসকিনের বোলিং তোপে ফাইনালে শান্ত একাদশ: বিসিবি প্রেসিডেন্ট’স কাপ

তাসকিনের বোলিং তোপে ফাইনালে শান্ত একাদশ: বিসিবি প্রেসিডেন্ট’স কাপ

তাড়াইলে জাতীয় পার্টির নেতা ইয়াবাসহ আটক

তাড়াইলে জাতীয় পার্টির নেতা ইয়াবাসহ আটক

সিলেটে ২৫ বছর পর ভূমির মালিকানা ফিরে পেলেন তারা

সিলেটে ২৫ বছর পর ভূমির মালিকানা ফিরে পেলেন তারা

পুলিশ সদস্যকে মারধরের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার

পুলিশ সদস্যকে মারধরের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার

এক সাংবাদিকের সহায়তায় সিসিটিভি ফুটেজ পাল্টে দেন এসআই হাসান!

এক সাংবাদিকের সহায়তায় সিসিটিভি ফুটেজ পাল্টে দেন এসআই হাসান!

ইচ্ছে ছিল

ইচ্ছে ছিল

জাতীয় সঙ্গীতের সুরে হামদ গাওয়ায়,  বন্ধ করা মাদ্রাসাটি আগামীকাল খুলছে

জাতীয় সঙ্গীতের সুরে হামদ গাওয়ায়, বন্ধ করা মাদ্রাসাটি আগামীকাল খুলছে

দূর্গাপূজা শুরু হওয়ার আগেই প্রতিমা ভাঙচুর

দূর্গাপূজা শুরু হওয়ার আগেই প্রতিমা ভাঙচুর

ঢাকা থেকে রোম সরাসরি একটি ফ্লাইট পরিচালনা করবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স

ঢাকা থেকে রোম সরাসরি একটি ফ্লাইট পরিচালনা করবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স

পোল্যান্ডে নতুন রাষ্ট্রদূত সুলতানা লায়লা

পোল্যান্ডে নতুন রাষ্ট্রদূত সুলতানা লায়লা

মিঠাপুকুরে আসন্ন ইউপি নির্বাচনে আলোচনায় শীর্ষে মোদাচ্ছির হোসেন

মিঠাপুকুরে আসন্ন ইউপি নির্বাচনে আলোচনায় শীর্ষে মোদাচ্ছির হোসেন

সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের সুধী সমাবেশ ও সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ

সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের সুধী সমাবেশ ও সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ