Johurul Hasan Adil - (Sylhet)
প্রকাশ ০৪/১১/২০২২ ১১:২৯পি এম

ইবিতে এন্টি রেগিং সভা সম্পন্ন হলো।

ইবিতে এন্টি রেগিং সভা সম্পন্ন হলো।
ad image
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আব্দুল করিম খান বলেছেন, র‍্যাগিং নিয়ন্ত্রণ করতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালগুকোতে এন্টি র‍্যাগিং কমিশন গঠন করা প্রয়োজন। বিশ্ববিদ্যালয়ের আচরণবিধিতেও র‍্যাগিং নিয়ন্ত্রণে নতুন কিছু ধারা যুক্ত হতে পারে। এছাড়া এই সমস্যা থেকে উত্তরোণে নিয়মিত কাউন্সেলিং এর বিকল্প নেই। এই কাজটি করতে বিশ্ববিদ্যাগুলোরই পদক্ষেপ নিতে হবে।

আজ সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মীর মশাররফ হোসেন ভবনের ১৩৫ নং কক্ষে ল’ এন্ড ল্যান্ড ম্যানেজমেন্ট বিভাগের আয়োজিত জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল কর্ম-পরিকল্পনা ২০২২-২৩ এন্টি র‍্যাগিং সভায় রিসোর্স পার্সন হিসেবে বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, আল্লাহ মানুষের ২টি অস্ত্র দিয়েছে। একটি হলো মাথা, অন্যটি অন্তর। কোনো কাজ করার আগে সমান্তরালে এনে চিন্তা করে দেখতে হবে। গেলেও কতটুকু গ্রহণ করতে হবে নিজেরই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। ভালো শিক্ষার্থী হতে চাইলে পড়ায়, স্বাস্থ্যে ও চরিত্রে ভালো হতে হবে।

অনুষ্ঠানে বিভাগের সভাপতি সাহিদা আখতারের সভাপতিত্বে বিভাগের সহকারী অধ্যাপক বিলাসী সাহা ও মেহেদী হাসান, ফোকাল পয়েন্ট উপ-রেজিস্ট্রার (প্রশাসন) চন্দন কুমার দাস, বিভাগটির উপ-রেজিস্ট্রার এনামুল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বিভাগটির চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী নওরীন নুসরাত। এতে বিভাগটির শিক্ষার্থী অংশ নেন।

বিভাগের সভাপতি সাহিদা আখতার বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে আসার পরপরই নবীন শিক্ষার্থীরা আতঙ্কে থাকে। নির্যাতন করে, ভয় দেখিয়ে কিংবা আতঙ্ক সৃষ্টি করে কখনো হৃদয় জয় ও সম্মান অর্জন করা যায় না। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে র‍্যাগিং সমস্যা দিনে দিনে বাড়ছেই। এটি নিয়ন্ত্রণে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সুনির্দিষ্ট আইন প্রয়োজন।

জহুরুল হাসান আদিল
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় কুষ্টিয়া

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ