Feedback

বিনোদন

শিল্পীদের স্বার্থ সংরক্ষণ করবেন জায়েদ খান

শিল্পীদের স্বার্থ সংরক্ষণ করবেন জায়েদ খান
July 15
09:59pm
2020
Shahadat
Tejgoan, Dhaka, প্রতিনিধি:
Eye News BD App PlayStore

 চিত্রনায়ক জায়েদ খানকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে তাঁকে বয়কট করেছে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট ১৮টি সংগঠন। বুধবার এফডিসির জহির রায়হান কালার ল্যাব হলরুমে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেয়া হয়।

এ বিষয় জায়েদ খান আই নিউজ বিডিকে বলেন, 'আমি এই মুহূর্তে রাজশাহীতে রয়েছি। আমিও শুনলাম এই (বয়কট) কথা। বিষয়টি আমার কাছে একদম উদ্দেশ্য প্রোণোদিত মনে হলো। ধরেন আপনাকে যদি কারণ দর্শানোর নোটিশ  দেওয়া হয় এবং জবাব দেওয়ার জন্য  ৭ দিন সময় দেওয়া হয় তাহলে সেই ৭ দিন অতিক্রান্ত না হওয়া পর্যন্ত আপনার বিরুদ্ধে কীভাবে সিদ্ধান্ত নিতে পারে? তাহলে কি এটা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত নয়? আমাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। আজ নিয়ে সেটা ৩ দিন হলো, আমি যদি ৭ দিনেও উত্তর না দিতাম তাহলে তারা আমার বিরুদ্ধে সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানাতে পারতো।'


চলচ্চিত্র নির্মাণ ব্যয় নীতিমালায় বলা হয়েছে, প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময়ে শুটিং শুরু করতে হবে। দিনের শুটিং শুরু হবে ঠিক সকাল ১০টায়, অন্য সময় যখন শুটিং থাকবে নির্ধারিত সময়েই তা শুরু করতে হবে। শিল্পী ও কলাকুশলীদের সম্মানীর বাইরে যে যাতায়াত ভাড়া দেওয়া হয় তার পরিমাণ কমিয়ে আনা হবে। যাদের সম্মানী ১ লাখ টাকার ওপরে তারা কোনও প্রকার যাতায়াত ভাড়া পাবেন না। জায়েদ খান বলছেন, 'শিল্পীরা এই সিদ্ধান্ত মানতে চাননি। তারা এ বিষয়ে শিল্পী সমিতিতে বারবার মৌখিকভাবে বলছিল। যার ফলে আমরা গত বছরের নভেম্বরে কার্যকরী সমিতির মিটিং ডাকি সেখানে এই সিদ্ধান্তকে নাকচ করে দেওয়া হয়েছে। সিদ্ধান্তকে আমরা রেজুলেশন আকারে লিপিবদ্ধ করি। এটা সম্পূর্ণই শিল্পী সমিতির সিদ্ধান্ত। এই সিদ্ধান্তকে আমি মেসেজ আকারে সব শিল্পীকে জানিয়ে দিয়েছি।' 

অভিযোগ সম্পর্কে জায়েদ বলেন, 'ব্যক্তি জায়েদ খানকে তারা বয়কট কোন যুক্তিতে করে? সিদ্ধান্ত কি ব্যক্তি জায়েদের? শিল্পীদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত তারা নিয়ে নেবে? সেই সিদ্ধান্ত শিল্পীরা মানবে কি না সেটাও শিল্পীদের সংগঠনের বিষয়। কার্যকরী কমিটির ২৩ সদস্যের মধ্যে ১৯ জনের উপস্থিতিতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে শিল্পীরা তাদের (প্রযোজক পরিবেশ সমিতির নেওয়া সিদ্ধান্ত) সিদ্ধান্তে কাজ করবে না। এখানে আমাকে এককভাবে টেনে আনার অর্থ কী? বয়কট করতে চাইলে শিল্পী সমিতিকে বয়কট করতে হবে।' জায়েদ খান বলেন, 'তারা আমাকে অনুরোধ করেছিল বিবেচনা করতে, এই নিয়ে আবার বসার কথাও ছিল। এরমধ্যেই করোনাকাল শুরু হয়ে গেল। আমি শিল্পীদের বাঁচাতে ব্যস্ত হয়ে পড়লাম। পরিযায়ী শিল্পীদের খাবার যোগাতে বিভিন্নজনের দ্বারস্থ হচ্ছিলাম। যেভাবে পারছি আমি দুঃস্থ শিল্পীদের হাতে খাদ্য তুলে দেওয়ার চেষ্টা করছি। এই করোনার সময় জায়েদ খানের কর্মকাণ্ড দেখে সবাই যখন প্রশংসা করছে তখন হুট করে আমার বিরুদ্ধে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ইচ্ছে হলো। অথচ আমাদের বসার কথা ছিল এসব নিয়ে। আমি ঠিক জানি না কার ইঙ্গিতে এসব হচ্ছে।


চলচ্চিত্র প্রযোজক ও পরিচালক সমিতির নেতৃত্বাধীন কয়েকটি সংগঠন। তবে যে অপরাধ তুলে জায়েদ খানকে অভিযুক্ত করা হয়েছে, তা অযৌক্তিক বলে দাবি করেছেন চলচ্চিত্রের শীর্ষ তারকারা। তাদের বক্তব্য স্পষ্ট শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক শিল্পীদের স্বার্থ সংরক্ষণ করবেন, এটাই স্বাভাবিক। এতে অন্য সংগঠনের নেতৃবৃন্দের ক্ষোভের বশবর্তী হওয়ার কিছুই নেই। চলচ্চিত্র নির্মাণ ব্যয় কমানোর প্রযোজক সমিতির উদ্যোগের বিষয়ে শিল্পী সমিতির পক্ষ থেকে সমর্থন না দেয়ায় এই সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানকে বয়কটের মুখে পড়তে হচ্ছে।  


চলচ্চিত্রের নির্মাণ ব্যয় কমিয়ে আনতে চলচ্চিত্র প্রযোজক সমিতি চলচ্চিত্রের অন্যান্য সংগঠনের সাথে বৈঠক করে বেশ-কিছু সিদ্ধান্ত নেয়। এসব সিদ্ধান্তের মধ্যে শিল্পীদের বর্তমান পারিশ্রমিক কমিয়ে আনার বিষয়টি ছিলো উল্লেখযোগ্য। তবে এ বৈঠকে শিল্পী সমিতির কোন প্রতিনিধিকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি বলে শিল্পী সমিতি সূত্রে জানা গেছে। প্রযোজক সমিতি পরবর্তীতে তাদের নেয়া সিদ্ধান্তসমুহ চিঠি দিয়ে শিল্পী সমিতিকে অবহিত করে। শিল্পী সমিতি এ বিষয়ে প্রযোজক সমিতির কাছ থেকে চিঠি পেয়ে নির্বাহী পরিষদের সভা আহবান করে। এই সভায় প্রযোজক সমিতির নেতৃত্বাধীন সংগঠনগুলোর সিদ্ধান্তের সাথে দ্বিমত পোষন করে নেতৃবৃন্দ। তাদের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে অপারগতা জানিয়ে বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করার আহবান জানায়। এ বিষয়টি নিয়েই মুলত শিল্পী সমিতির সঙ্গে প্রযোজক সমিতিসহ অপর কয়েকটি সংগঠনের বিরোধ শুরু হয়। চলচ্চিত্র প্রযোজক সমিতির নেতৃবৃন্দ বিষয়টি নিয়ে জায়েদ খানের প্রযোজক সমিতির সদস্যপদ খারিজ করে দেয়ারও হুমকি দিয়েছে বলে জানা গেছে।


অর্থ আত্মসাৎ প্রসঙ্গে জায়েদ খান বলেন, 'খুবই বিস্ময়কর যে ওরা যে ৬ লাখ টাকার হিসেবের কথা বলছে তা পূর্বের কমিটির। গত চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনেরও আগের। তাহলে ওই কমিটি থাকার সময় তারা কেন হিসেব চাইলো না? তাহলে বুঝতে এটাও উদ্দেশ্য প্রণোদিত। আর হ্যাঁ তাদের হিসেব আমি দিতে যাবো এমন কোনো নিয়ম নেই, বা তারা হিসেব চাইতেও আসেনি। আমি এফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালকের নিকট ওই ৬ লাখ টাকা ব্যয়ের হিসেব দিয়েছি। চাইলে তারা সেখান থেকে নিতে পারে হিসেব।'

শিল্পীদের মারধর, হুমকি প্রদান করেছেন এমন অভিযোগ এসেছে শিল্পী সমিতির এই নেতার বিরুদ্ধে। এ প্রসঙ্গে  জায়েদ খান বলেন, 'প্রায়ই এই ঠুনকো অভিযোগ নিয়ে আসেন। আমি বারবার বলেছি কাউকে যদি আমি হুমকি দিয়ে থাকি মারধর করে থাকি, অন্তত তাকে সামনে আনুন। সামনে না আনতে পারলে অন্তত প্রমাণ আনুন। এসব অভিযোগের অর্থ কী হতে পারে? একজন জায়েদ খান যখন সুনামের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে তখন হিংসার বশবর্তী হয়ে তাকে চেপে ধরার চেষ্টা করা হচ্ছে। কি আজব সিদ্ধান্ত শিল্পী সংগঠনের অথচ চেপে ধরার চেষ্টা করা হচ্ছে ব্যক্তি জায়েদকে।'


জানা গেছে,  বিষয়টি নিয়ে শিল্পী সমিতির একাধিক সিনিয়র সদস্য এই প্রতিবেদককে বলেছেন, জায়েদ খান শিল্পীদের স্বার্থ সংরক্ষণ করবেন এটাই স্বাভাবিক। তা নাহলে তিনি নির্বাচিত নেতা হিসেবে শপথের অঙ্গীকার ভঙ্গে অভিযুক্ত হবেন। আর প্রযোজক সমিতি সব সময়ই শিল্পী সমিতি বা শিল্পীদের ওপর ছরি ঘুরাতে চায়। “প্রযোজক সমিতির চিঠি পেয়ে আমি সভাপতির অনুমতি নিয়ে কার্যনির্বাহী পরিষদ বৈঠক আহ্বান করি। আমাদের বৈঠকের সিদ্ধান্ত আমরা প্রযোজক সমিতিকে চিঠি দিয়ে জানিয়ে দিয়েছি।” জায়েদ খান আরো বলেন, “আমি শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক। শিল্পীরা আমাকে ভোট দিয়েছেন। তাদের স্বার্থ সংরক্ষণ করা আমার গঠনতান্ত্রিক দায়িত্ব। এতে কোথায় আমার অন্যায় বা অপরাধ হয়েছে, তা আমার বোধগম্য নয়।”


All News Report

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

কুড়িগ্রামে দুই বছর পর উন্মোচিত হলো আসামী

কুড়িগ্রামে দুই বছর পর উন্মোচিত হলো আসামী

ওসি প্রদীপ কুমার দাশের গোড়া কোথায় ?

ওসি প্রদীপ কুমার দাশের গোড়া কোথায় ?

আমতলীতে ৬’শ টাকার গ্যাস ৮’শ ৫০ টাকা।  লাইব্রেরী, চায়ের দোকান ও কাপরের দোকানসহ যত্রতত্র স্থানে অবৈধভাবে বিক্রি হচ্ছে গ্যাস   সিলিন্ডার

আমতলীতে ৬’শ টাকার গ্যাস ৮’শ ৫০ টাকা। লাইব্রেরী, চায়ের দোকান ও কাপরের দোকানসহ যত্রতত্র স্থানে অবৈধভাবে বিক্রি হচ্ছে গ্যাস সিলিন্ডার

ধর্মপ্রাণ ধর্মপ্রতিমন্ত্রী প্রয়োজন

ধর্মপ্রাণ ধর্মপ্রতিমন্ত্রী প্রয়োজন

১২ অগস্ট আসছে বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিন

১২ অগস্ট আসছে বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিন

ধুনটে ইউনিয়ন ক্রিকেট চ্যাম্পিয়নশিপে বিজয়ী অলোয়া রাইর্ডাস

ধুনটে ইউনিয়ন ক্রিকেট চ্যাম্পিয়নশিপে বিজয়ী অলোয়া রাইর্ডাস

আজ থেকে ১২ কেজি গ্যাসের নির্ধারিত খুচরা মূল্য ৬০০ টাকা।দাম বেশি দেখলে ৯৯৯এ কল করুন

আজ থেকে ১২ কেজি গ্যাসের নির্ধারিত খুচরা মূল্য ৬০০ টাকা।দাম বেশি দেখলে ৯৯৯এ কল করুন

বরগুনায় সিফাতের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধনে পুলিশের লাঠিপেটা; আহত ৩ জন!

বরগুনায় সিফাতের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধনে পুলিশের লাঠিপেটা; আহত ৩ জন!

মৌলভীবাজারে মানুষের মুখমন্ডলের আকৃতিতে অদ্ভুত এক বাছুরের জন্ম

মৌলভীবাজারে মানুষের মুখমন্ডলের আকৃতিতে অদ্ভুত এক বাছুরের জন্ম

প্রতি ৯ জন মহিলার মধ্যে ১ জন স্তন ক্যান্সারের শিকার, লক্ষণ এবং প্রতিকারগুলি

প্রতি ৯ জন মহিলার মধ্যে ১ জন স্তন ক্যান্সারের শিকার, লক্ষণ এবং প্রতিকারগুলি

বিশ্বের প্রথম ভ্যাকসিন আসতে আর ৪ দিন

বিশ্বের প্রথম ভ্যাকসিন আসতে আর ৪ দিন

যশোরে রাস্তা থেকে তুলে ঘাস ক্ষেতে নিয়ে গৃহবধুকে গণধর্ষণ ধর্ষক; আটক ৪!

যশোরে রাস্তা থেকে তুলে ঘাস ক্ষেতে নিয়ে গৃহবধুকে গণধর্ষণ ধর্ষক; আটক ৪!

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ডাক্তার, ব্যাংকারসহ আরো ৭ ব্যক্তির করোনা পজিটিভ

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ডাক্তার, ব্যাংকারসহ আরো ৭ ব্যক্তির করোনা পজিটিভ

কারাগার থেকে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত সাতক্ষীরার আবু বকরের পলায়ন, বরখাস্ত ৬

কারাগার থেকে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত সাতক্ষীরার আবু বকরের পলায়ন, বরখাস্ত ৬

স্কুল-কলেজ খোলা ও পরিক্ষার ব্যাপারে বিবৃতি দিয়েছে শিক্ষামন্ত্রণালয়

স্কুল-কলেজ খোলা ও পরিক্ষার ব্যাপারে বিবৃতি দিয়েছে শিক্ষামন্ত্রণালয়

সর্বশেষ

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত কয়েদি আবু বকর সিদ্দিককে পাওয়া যায়নি

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত কয়েদি আবু বকর সিদ্দিককে পাওয়া যায়নি

পরিবেশ দূষণ ও তার প্রতিকার

পরিবেশ দূষণ ও তার প্রতিকার

যতো দুর্নীতির   অভিযোগ এসপি মাসুদের বিরুদ্ধে

যতো দুর্নীতির অভিযোগ এসপি মাসুদের বিরুদ্ধে

টাকা আত্মসাৎ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান রুমি

টাকা আত্মসাৎ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান রুমি

শিবচরে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছার জন্মবার্ষিকী উদযাপন ও দুস্থ নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ

শিবচরে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছার জন্মবার্ষিকী উদযাপন ও দুস্থ নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ

কণ্ঠশিল্পী  “নোবেল ম্যান” নামের ইউটিউব চ্যানেলটি ব্যান

কণ্ঠশিল্পী “নোবেল ম্যান” নামের ইউটিউব চ্যানেলটি ব্যান

শহীদের মর্যাদা

শহীদের মর্যাদা

করোনায় ৩০ বছরের নিচে মৃত্যুর হার কম

করোনায় ৩০ বছরের নিচে মৃত্যুর হার কম

গল্পঃ ইদের আনন্দ ভাগাভাগি

গল্পঃ ইদের আনন্দ ভাগাভাগি

কারাগার থেকে কয়েদি ‘উধাও

কারাগার থেকে কয়েদি ‘উধাও

বঙ্গবন্ধুসহ শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় চাঁপাইনবাবগঞ্জে দোয়া মাহফিল

বঙ্গবন্ধুসহ শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় চাঁপাইনবাবগঞ্জে দোয়া মাহফিল

কুড়িগ্রামের রাজারহাটে এই বাড়িতে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়

কুড়িগ্রামের রাজারহাটে এই বাড়িতে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়

ওষুধেও পাওয়া যাচ্ছে মাদকঃ নিরাপত্তা কোথায়?

ওষুধেও পাওয়া যাচ্ছে মাদকঃ নিরাপত্তা কোথায়?

স্কুল-কলেজ খোলা ও পরিক্ষার ব্যাপারে বিবৃতি দিয়েছে শিক্ষামন্ত্রণালয়

স্কুল-কলেজ খোলা ও পরিক্ষার ব্যাপারে বিবৃতি দিয়েছে শিক্ষামন্ত্রণালয়

তালাকের পর কিভাবে তালাক প্রত্যাহার করবেন

তালাকের পর কিভাবে তালাক প্রত্যাহার করবেন