Feedback

আরও..., খোলা কলাম, এক্সক্লুসিভ

নীতি কে না বলুন

নীতি কে না বলুন
July 13
11:23pm
2020
Abinash Mondal
Dumuria, Khulna, প্রতিনিধি:
Eye News BD App PlayStore
একটি প্রশ্ন হরহামেশাই মনে জাগে আমার। যা পড়ছি আমরা সত্যি মনে করে, যে নীতি মুখস্ত করছি প্রতিদিন, বইয়ের বাইরের বাস্তব অস্তিত্ব আসলেই আছে কি তার ? সেই নীতি মান্য করা আসলেই কি নিরাপদ ?

আপাতভাবে যতটা সহজ এবং নাক সিঁটকানো প্রশ্ন মনে হচ্ছে, এটা কি আসলেই অতটাই সরল? কিঞ্চিত ভাবার অবকাশ এখানে আছে বৈকি! শিশুকে যখন স্কুলে দেওয়া হয়, সে পড়ে বটে- সদা সত্যবিচারের নাম বিবেক, অন্যায় যে করে অন্যায় যে সহে...... ইত্যাদি ইত্যাদি। কিন্তু বাস্তবের দিকে তাকিয়ে ব্যাপারটা একটু ঝালিয়ে নেয়া যাক। অফিসে যিনি ঘুষ খান না, তিনি কি একঘরে নন ? যিনি অন্য কর্মকর্তাদের দূর্নীতির ব্যাপারে প্রতিবন্ধকতা তৈরী করেন তাকে কি দূর্গম এলাকায় বদলি হতে হয় না ? অর্থের বিনিময়ে বড় বা ছোট চাকরির সুযোগ পেলে কে আছেন নেন না ? কিংবা, নির্বাচনের সময় কে আছেন রাজনীতিবিদ,  মিথ্যা প্রতিশ্রæতি দেন না? আর এমন কেই বা আছেন যে এই প্রত্যেকটা বিষয়কে জানেন না ? বা কখনো দেখেন নি? অভিজ্ঞতা হয়নি? আসুন আমি দেখিয়ে দিচ্ছি।

হাতে নাতে প্রমান। হ্যা এবার আপনি বলবেন, প্রমান আছে তো অভিযোগ করছেন না কেন? বলি কার কাছে করব অভিযোগ? প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে থানায় আসা এক আত্মীয়ের সাথে গিয়েছিলাম তার ১২ বছরের মেয়েকে তুলে নিয়ে বিয়ে করার জন্য কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলা করার উদ্দেশ্যে, পুলিশের সাহায্য নিতে। সাব ইন্সপেক্টর বললেন, বড় বাবু নাকি কত লাখ টাকা দিয়ে বদলি হয়েছেন, হাজার বিশেক লাগবে মামলা করতে। যাই হোক, অতো টাকা নেই তাই সাধারন ডায়রি করেই বের হতে যাচ্ছি থানা থেকে, ডিউটিরত পুলিশ বললেন, চা নাশতার জন্য কিছু...?  আমি বলি, বেতন পান না আপনি? এমন কটমট করে আমার দিকে তাকালেন অফিসার, যেন আমি জেলের বাইরে এটা তিনি কোনোমতেই বরদাস্ত করতে পারছেন না।

বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি শুনে কি না জানিনা, আর বেশি কিছু বললেন না তিনি। তবে বুঝে গেলাম, থানায় এলে কি অবস্থা হয় সাধারন মানুষের। থানায় তাহলে দূর্নীতি বা অন্যায়ের অভিযোগ করে লাভ নেই। ভূমি অফিসে বাবা গেলেন জমির পড়চা আর ম্যাপ আনতে। অফিসের সামনে নোটিশে লেখা আছে ম্যাপের দাম ৩০০ টাকা। লাইনে অনেক লোক। কর্মকর্তা সকলের কাছ থেকে ১০০ টাকা করে নিচ্ছেন "নাশতা খরচ" বাবদ। বাবা যখন সামনে গেলেন, জিজ্ঞাসা করলেন ১০০ টাকা কেন নিচ্ছেন ? অফিসার বললেন দিতে হবে, সবাই দেয়। বাবা কিছু বলার আগেই পেছন থাকা ভদ্রলোক বলে উঠলেন, আরে মশাই নেবেন তো নিয়ে যান, না হয় আমাকে নিতে দিন। এতো প্যাঁচাল কেন পাড়েন ? এই লোকই হয়তো সন্ধায় বাড়িতে গিয়ে পড়তে বসিয়ে তার বাচ্চাকে শেখাবেন, অন্যায় যে করে অন্যায় যে সহে, তব ঘৃনা তারে যেন... ইত্যাদি ইত্যাদি। 

সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শেষে ভর্তিও সম্পন্ন হয়েছে। আমার এক পরিচিত ব্যক্তি ফোন দিয়ে বল্লেন তার কাছে প্রস্তাব দিয়েছে দুই-আড়াই লাখ টাকা দিয়ে তার কোথাও চান্স না পাওয়া ছেলেকে একটি শীর্ষ স্থানীয় সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভালো সাবজেক্টে ভর্তি করিয়ে দেবে। আমার কাছে জানতে চাইছেন, ব্যাপারটা " সেইফ" হবে কিনা। কি বলব তাকে? তিনিই হয়তো ছেলেকে ছোটোবেলায় পড়িয়েছেন, চুরি করা মহাপাপ কিংবা অসৎ সঙ্গ ত্যাগ করো ইত্যাদি। বেশ একটা আমোদের কথা বলি, পুলিশ, সেনাবাহিনী,  নৌবাহিনী ইত্যাদিতে যখন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি আসে, বিজ্ঞপ্তির তলায় ছোটো করে লেখা থাকে অর্থ লেনদেন করে প্রতারিত হবেন না বা ঘুষ দেওয়া ও নেওয়া সমান অপরাধ বা এই জাতীয় সতর্কবানী।

অথচ, আপনি আপনার পাশের শিক্ষিত-অশিক্ষিত কাউকে জিজ্ঞাসা করুন তো, তার পরিচিত ছেলে বা মেয়েটার পুলিশের চাকরি পেতে কত লেগেছিল ? বাজারে এখন প্রচলিত আছে, এস আই পদে লাখ ১৫ বা ২০ আর কন্সটেবল পদে ৫-৬ লাখেই চলবে। সবাই সব জানে।  আগে আড়ালে বলত এখন প্রকাশ্যে বলে। মাঝে মাঝে খবর পাওয়া যায় পত্রিকায়, অমুক নদীতে ত্রানের গম পাচারের সময় আটক, মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতার টাকা লোপাট (সুত্রঃ প্রথম আলো), অমুক ব্যবসায়ী শত কোটি টাকা লোন নিয়ে হাওয়া হয়ে গেছেন, অথচ এক প্যাকেট বিস্কুট চুরি করার অপরাধে গাছে বেধে ছোটো বাচ্চাদের পেটানো হচ্ছে, বিচার করতে আসছেন আবার ওই ধরনের কোনো নেতা। কেন ভাই? চুরি তো আমাদের দেশে অপরাধ, শুধু বইতে আর আইনের ধারাতেই।

বড় বড় চুরি যখন হর হামেশাই হয়, তখন বেচারা বাচ্চাদের শাস্তি দিয়ে আমরা কাদের শিক্ষা দিতে চাই? বই পত্রে তো পড়েই থাকি, অন্যায়ের প্রতিবাদ করো, অন্যায়কারীদের প্রশ্রয় দিও না ইত্যাদি। কিন্তু একবার নিজেকে প্রশ্ন করে দেখুন কখোনো কি প্রতিবাদ করার কথা মাথায় এসেছে আপনার ? পাসপোর্টের পুলিশ ভেরিফিকেশনের ইনভেস্টিগেশন অফিসারের বাধা রেট ৫০০ টাকা, একটু বেশি বোকাদের কাছ থেকে বেশি টাকাও নেয়া হয়। সাধারন মানুষ হয়তো জানেন না যে এই টাকা দেওয়া বৈধ নয়, কিন্তু যারা জানে তারা কি কখনো প্রতিবাদ করেছে ? নাকি ‘ঝামেলা’ এড়ানোর জন্য " মাত্র ৫০০ টাকা" দিয়েই দিয়েছেন ? আমার কাছে যখন টাকা চাইলেন অফিসার, তার ভঙ্গি দেখে আমার মনে হলো, এটা একেবারেই তাদের পাওনা টাকা। না দিতে চাইলে বললেন, ঠিক আছে,  আপনার রিপোর্ট তাহলে সেভাবেই দিলাম। আহা! কি কার্যকরী হুমকি। প্রাগৈতিহাসিক সময়ে মানুষ দুর্নীতি করত আড়ালে, সবার অলক্ষ্যে, ভয়ে ভয়ে। আর এখন? হু, প্রকাশ্যে, বুক ফুলিয়ে! এখন কিছু সৎ লোকেদের দেখি পালিয়ে পালিয়ে বেড়ান, সমাজে স্ট্যাটাস নেই, পকেটে টাকা নেই তাই তার সমাদর ও নেই।

এই ফিরিস্তি সীমাহীন। এগুলো নতুন আবিষ্কারও নয়। আমাদের মধ্যে এমন একজনও নেই যিনি বুকে হাত রেখে বলতে পারবেন যে আমি এগুলো জানি না, কখনো শুনিনি। দুদক শুধু প্রেস কনফারেন্সেই হম্বি তম্বি করতে পারে, বাস্তবে কিছুই করতে পারে না অথবা করে না কিংবা করতে দেয়া হয়না। না হলে যে কথা আমি আপনি জানি সে কথা অত বড় অফিসারদের অজানা তা নিশ্চয়ই আমাকে বিশ্বাস করতে বলছেন না।

তাহলে নিচের ক্লাসের ঐ বইগুলোতে এতো শিক্ষার কথা লিখে দিয়ে লাভ কি? বাচ্চারা তো একটু বুঝতে শিখেই মারাত্মক দ্ব›েদ্ব পড়ে যায়। যা দেখছে, যা শিখছে সেটা ঠিক? নাকি যা পড়ছে সেটা ঠিক। বাবা হাতে সিগারেট নিয়ে পড়াচ্ছেন, ধুমপানে ক্যান্সার হয়, মিথ্যা বলা মহাপাপ। একটু পরেই পাওনাদার কড়া নাড়লে বাবার ইশারায় ভেতর থেকে উত্তর দিচ্ছেন, তিনি বাসায় নেই ! ২য় শ্রেনীর একজন পুলিশ অফিসার ঘুষের টাকায় তার সদ্য সমাপ্ত পাঁচ তলা বাড়িতে রঙ করা তদারকি করার সময় ছেলেকে শেখাচ্ছেন, দূর্নীতি উন্নয়নের অন্তরায়। এই দ্বিচারিতা বন্ধ করে ছেলেমেয়েকে বাস্তব শিক্ষা দিন- অন্যায় সুযোগ পেলেও ছেড়ে দেওয়া উচিত নয়, নীতির চেয়ে অর্থনীতি বড়, সত্য বলে বোকামি করিও না কিংবা অন্যায়ের প্রতিবাদ করে বিপদ আর ঝামেলা না বাড়ানোই বুদ্ধিমানের কাজ!!

All News Report

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

কুড়িগ্রামে দুই বছর পর উন্মোচিত হলো আসামী

কুড়িগ্রামে দুই বছর পর উন্মোচিত হলো আসামী

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় মালয়েশিয়া প্রবাসীর জীবনের নিরাপত্তার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় মালয়েশিয়া প্রবাসীর জীবনের নিরাপত্তার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন

পৃথিবীর যে নদীতে রাধা-কৃষ্ণ বিহার করে

পৃথিবীর যে নদীতে রাধা-কৃষ্ণ বিহার করে

নাগেশ্বরীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধে সন্ত্রাসী হামলায় ৪ বাড়িতে ভাংচুর ও লুটপাট।

নাগেশ্বরীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধে সন্ত্রাসী হামলায় ৪ বাড়িতে ভাংচুর ও লুটপাট।

চার নাইজেরিয়ান নাগরীকসহ ৫ জন রিমান্ডে

চার নাইজেরিয়ান নাগরীকসহ ৫ জন রিমান্ডে

আট  অতিরিক্ত সচিবের রদবদল, দুই জনের অবসর

আট অতিরিক্ত সচিবের রদবদল, দুই জনের অবসর

দেশে পোশাক খাতের রফতানি কমেছে ৬০০ কোটি ডলার এই খাতের ভবিষ্যত কী হবে?

দেশে পোশাক খাতের রফতানি কমেছে ৬০০ কোটি ডলার এই খাতের ভবিষ্যত কী হবে?

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় বজ্রপাতে দুই জনের মৃত্যু, আহত ০১

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় বজ্রপাতে দুই জনের মৃত্যু, আহত ০১

আইসিইউতে সানাই

আইসিইউতে সানাই

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে যাবজ্জীবন সাজা প্রাপ্ত কয়েদি নিখোঁজ।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে যাবজ্জীবন সাজা প্রাপ্ত কয়েদি নিখোঁজ।

ষড়যন্ত্রকারীরা আগষ্ট মাসকে বেছে নিয়েছে : মুন্সী আলাউদ্দিন

ষড়যন্ত্রকারীরা আগষ্ট মাসকে বেছে নিয়েছে : মুন্সী আলাউদ্দিন

ক্রসফায়ার’ না দেয়ার শর্তে টাকা আদায় করতেন ওসি প্রদীপ

ক্রসফায়ার’ না দেয়ার শর্তে টাকা আদায় করতেন ওসি প্রদীপ

"কল্যাণের জন্য জাগ্রত তারুণ্যের” ঈদ পুনর্মিলন অনুষ্ঠিত

"কল্যাণের জন্য জাগ্রত তারুণ্যের” ঈদ পুনর্মিলন অনুষ্ঠিত

ফেসবুক লাইভের পর গলায় ফাঁস দিয়ে অভিনেত্রীর আত্মহত্যা

ফেসবুক লাইভের পর গলায় ফাঁস দিয়ে অভিনেত্রীর আত্মহত্যা

সারাবিশ্বে বাংলাদেশ করোনা আক্রান্তে ১৫, আর মৃত্যুতে ২৯তম স্থানে!

সারাবিশ্বে বাংলাদেশ করোনা আক্রান্তে ১৫, আর মৃত্যুতে ২৯তম স্থানে!

সর্বশেষ

কোনোভাবেই নিয়ন্ত্রণে আসছে না কক্সবাজারের টেকনাফ, অপরাধের শেষ নেই টেকনাফে

কোনোভাবেই নিয়ন্ত্রণে আসছে না কক্সবাজারের টেকনাফ, অপরাধের শেষ নেই টেকনাফে

করতোয়া নদীতে জাবি শিক্ষার্থীর মৃত্য

করতোয়া নদীতে জাবি শিক্ষার্থীর মৃত্য

রামগতির ঐতিহ্যবাহী চর মেহার আজিজিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে সাবেক সহকারী প্রধান শিক্ষকের ইন্তেকাল

রামগতির ঐতিহ্যবাহী চর মেহার আজিজিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে সাবেক সহকারী প্রধান শিক্ষকের ইন্তেকাল

সানরাইজ সোশ্যাল অর্গানাইজেশন-এর কুমিল্লা ও চাঁদপুর ইউনিটের (২০২০-২১) বর্ষের নবগঠিত কমিটির দায়িত্ব হস্তান্তর ও শপথ গ্রহন অনুষ্ঠিত.....

সানরাইজ সোশ্যাল অর্গানাইজেশন-এর কুমিল্লা ও চাঁদপুর ইউনিটের (২০২০-২১) বর্ষের নবগঠিত কমিটির দায়িত্ব হস্তান্তর ও শপথ গ্রহন অনুষ্ঠিত.....

ঝুঁকি নিয়ে ট্রাকে করে কর্মস্থলে ফিরছে মানুষ

ঝুঁকি নিয়ে ট্রাকে করে কর্মস্থলে ফিরছে মানুষ

নোয়াখালীর হাতিয়ায় বড় ভাইয়ের বিরুদ্ধে ছোট বোনকে গলা টিপে হত্যার অভিযোগ

নোয়াখালীর হাতিয়ায় বড় ভাইয়ের বিরুদ্ধে ছোট বোনকে গলা টিপে হত্যার অভিযোগ

আবার বাড়ছে এলপিজি গ্যাসের দাম: বাজার নিয়ন্ত্রণে নীরব সরকার!

আবার বাড়ছে এলপিজি গ্যাসের দাম: বাজার নিয়ন্ত্রণে নীরব সরকার!

অলসতা দূর করতে নিজেকে অনুপ্রাণিত করার উপায়গুলি শিখুন

অলসতা দূর করতে নিজেকে অনুপ্রাণিত করার উপায়গুলি শিখুন

বাবাকে লিখা শহীদ সিরাজের শেষ চিঠি

বাবাকে লিখা শহীদ সিরাজের শেষ চিঠি

শাকসবজির রস পান করা হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে করতে পারে...

শাকসবজির রস পান করা হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে করতে পারে...

জীবনের জন্য বই: তাহসীন তাওহীদ

জীবনের জন্য বই: তাহসীন তাওহীদ

প্রতি ৯ জন মহিলার মধ্যে ১ জন স্তন ক্যান্সারের শিকার, লক্ষণ এবং প্রতিকারগুলি

প্রতি ৯ জন মহিলার মধ্যে ১ জন স্তন ক্যান্সারের শিকার, লক্ষণ এবং প্রতিকারগুলি

মালয়েশিয়ায় জাতিবাদী পার্টি গড়বেন মাহাথির

মালয়েশিয়ায় জাতিবাদী পার্টি গড়বেন মাহাথির

সকল প্রতিষ্ঠানের পরে খুলতে চায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান - শিক্ষা মন্ত্রণালয়

সকল প্রতিষ্ঠানের পরে খুলতে চায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান - শিক্ষা মন্ত্রণালয়

মহামারির মধ্যেই বিদ্যালয় খুলে দিল যুক্তরাষ্ট্র

মহামারির মধ্যেই বিদ্যালয় খুলে দিল যুক্তরাষ্ট্র