Feedback

জেলার খবর, কুড়িগ্রাম

কুড়িগ্রামে দ্বিতীয় দফা বন্যায় ঝড়ছে বানভাসীদের চোখের জল

কুড়িগ্রামে দ্বিতীয় দফা বন্যায় ঝড়ছে বানভাসীদের চোখের জল
July 13
12:57pm
2020
Mozaffor Ali
Kurigram Sadar, Kurigram, প্রতিনিধি:
Eye News BD App PlayStore

কুড়িগ্রামে চিলমারীতে বন্যার পানি নেমে যেতে না যেতে আবারো পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় সদ্য ঘরে ফেরা মানুষজন আবারো বাড়িঘর ছেড়ে আশ্রয় নিতে শুরু করেছে বাঁধসহ বিভিন্ন স্থানে, ঝরছে বানভাসীদের চোখের জল। টানা বৃষ্টি ও উজারের ঢলে ব্রহ্মপুত্রের পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রভাবিত হচ্ছে। সদ্য ঘরে ফেরা মানুষজন বাড়িতে ফিরতে না ফিরতে আবারো ব্রহ্মপুত্রের পানি বৃদ্ধি পাওয়া শুরু করে। আর সাথে সাথে দ্রুত তলিয়ে যেতে শুরু করেছে নদীর তীরবর্তী এলাকাসহ বেশ কিছু এলাকা। 

ইতোমধ্যে বেশ কিছু গ্রাম পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় কয়েক হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে মানবেতর জীবন যাপন শুরু করেছে। নিন্মাঞ্চল ও নদীর তীরবর্তী মানুষজন প্রায় ১২ দিন ঘরবাড়ি ছেড়ে বাঁধসহ বিভিন্ন উঁচু স্থানে ঠাঁই নেয়ার পর সদ্য ঘরে ফিরতে না ফিরতে আবারো পানি বৃদ্ধি ফলে ঠাঁই নিতে শুরু করেছে অবদা বাঁধ ও উঁচু স্থান গুলোতে। ঠাঁই নিলেও সমস্যা পড়েছে টানা বৃষ্টিতে। বাড়িতে পানি ঘরে পানি উপর থেকে পড়ছে পানি ফলে বিপাকে পড়েছে বানভাসী। কষ্টের উপর কষ্টে ঝড়ছে চোখেও পানি। কষ্ট আর দুর্ভোগ নিয়ে দিন পার করছে বাঁধে আশ্রয় নেয়া মানুষজন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় বৃষ্টিতে ভিজে রমনা খামার এলাকায় বাঁধে অস্থায়ী তাবু তৈরি করতে ব্যস্থ রওশনারা, আঃ খালেকসহ অনেকে কথা হতেই আবেগে জড়িয়ে পড়েন তারা। কান্না বিজড়িত কন্ঠে বলেন ভাই গো হামার কি আর কেউ আছে প্রায় ১২দিন ঘরবাড়ি ছাড়ি বাঁধের রাস্তা থাকার পর বাড়ি ফিরেও থাকা হলো না আবারো পানি বাড়িয়ে ঘরবাড়ি তলিয়ে গেল, কি আর করার ফের আসা লাগলো রাস্তায়।

এসময় সাজু, আছিয়া, রওশনারাসহ আরো অনেকেই বলেন, দু’দুবার পানিতে ঘরবাড়ি ডুবলো থাকতে হচ্ছে বাঁধের রাস্তায়। তাদের হাতে এখন কোন কাজ নেই করোনা সাথে এখন বন্যা তাদের বড় বিপাকে ফেলিয়েছে।

শুধু রমনা খামার এলাকা নয় রাজারভিটা, পুটিমারী, ভরটপাড়াসহ বিভিন্ন এলাকায় বাঁধসহ উঁচু স্থানে আশ্রয় নেয়া মানুষজন মানবেতর জীবন যাপন করছে বানভাসী মানুষজন।

পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে মানুষের দুর্ভোগ বাড়ছে স্বীকার করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ ডব্লিউ এম রায়হান শাহ্ বলেন, ধারবাহিকতা ভাবে বানভাসীদের ত্রাণ দেয়া হবে। তিনি আরো জানান, ত্রাণে অনিয়ম হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

All News Report

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

কুড়িগ্রামে দুই বছর পর উন্মোচিত হলো আসামী

কুড়িগ্রামে দুই বছর পর উন্মোচিত হলো আসামী

ওসি প্রদীপ কুমার দাশের গোড়া কোথায় ?

ওসি প্রদীপ কুমার দাশের গোড়া কোথায় ?

আমতলীতে ৬’শ টাকার গ্যাস ৮’শ ৫০ টাকা।  লাইব্রেরী, চায়ের দোকান ও কাপরের দোকানসহ যত্রতত্র স্থানে অবৈধভাবে বিক্রি হচ্ছে গ্যাস   সিলিন্ডার

আমতলীতে ৬’শ টাকার গ্যাস ৮’শ ৫০ টাকা। লাইব্রেরী, চায়ের দোকান ও কাপরের দোকানসহ যত্রতত্র স্থানে অবৈধভাবে বিক্রি হচ্ছে গ্যাস সিলিন্ডার

ধর্মপ্রাণ ধর্মপ্রতিমন্ত্রী প্রয়োজন

ধর্মপ্রাণ ধর্মপ্রতিমন্ত্রী প্রয়োজন

১২ অগস্ট আসছে বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিন

১২ অগস্ট আসছে বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিন

ধুনটে ইউনিয়ন ক্রিকেট চ্যাম্পিয়নশিপে বিজয়ী অলোয়া রাইর্ডাস

ধুনটে ইউনিয়ন ক্রিকেট চ্যাম্পিয়নশিপে বিজয়ী অলোয়া রাইর্ডাস

আজ থেকে ১২ কেজি গ্যাসের নির্ধারিত খুচরা মূল্য ৬০০ টাকা।দাম বেশি দেখলে ৯৯৯এ কল করুন

আজ থেকে ১২ কেজি গ্যাসের নির্ধারিত খুচরা মূল্য ৬০০ টাকা।দাম বেশি দেখলে ৯৯৯এ কল করুন

বরগুনায় সিফাতের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধনে পুলিশের লাঠিপেটা; আহত ৩ জন!

বরগুনায় সিফাতের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধনে পুলিশের লাঠিপেটা; আহত ৩ জন!

মৌলভীবাজারে মানুষের মুখমন্ডলের আকৃতিতে অদ্ভুত এক বাছুরের জন্ম

মৌলভীবাজারে মানুষের মুখমন্ডলের আকৃতিতে অদ্ভুত এক বাছুরের জন্ম

প্রতি ৯ জন মহিলার মধ্যে ১ জন স্তন ক্যান্সারের শিকার, লক্ষণ এবং প্রতিকারগুলি

প্রতি ৯ জন মহিলার মধ্যে ১ জন স্তন ক্যান্সারের শিকার, লক্ষণ এবং প্রতিকারগুলি

বিশ্বের প্রথম ভ্যাকসিন আসতে আর ৪ দিন

বিশ্বের প্রথম ভ্যাকসিন আসতে আর ৪ দিন

যশোরে রাস্তা থেকে তুলে ঘাস ক্ষেতে নিয়ে গৃহবধুকে গণধর্ষণ ধর্ষক; আটক ৪!

যশোরে রাস্তা থেকে তুলে ঘাস ক্ষেতে নিয়ে গৃহবধুকে গণধর্ষণ ধর্ষক; আটক ৪!

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ডাক্তার, ব্যাংকারসহ আরো ৭ ব্যক্তির করোনা পজিটিভ

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ডাক্তার, ব্যাংকারসহ আরো ৭ ব্যক্তির করোনা পজিটিভ

কারাগার থেকে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত সাতক্ষীরার আবু বকরের পলায়ন, বরখাস্ত ৬

কারাগার থেকে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত সাতক্ষীরার আবু বকরের পলায়ন, বরখাস্ত ৬

স্কুল-কলেজ খোলা ও পরিক্ষার ব্যাপারে বিবৃতি দিয়েছে শিক্ষামন্ত্রণালয়

স্কুল-কলেজ খোলা ও পরিক্ষার ব্যাপারে বিবৃতি দিয়েছে শিক্ষামন্ত্রণালয়

সর্বশেষ

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত কয়েদি আবু বকর সিদ্দিককে পাওয়া যায়নি

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত কয়েদি আবু বকর সিদ্দিককে পাওয়া যায়নি

পরিবেশ দূষণ ও তার প্রতিকার

পরিবেশ দূষণ ও তার প্রতিকার

যতো দুর্নীতির   অভিযোগ এসপি মাসুদের বিরুদ্ধে

যতো দুর্নীতির অভিযোগ এসপি মাসুদের বিরুদ্ধে

টাকা আত্মসাৎ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান রুমি

টাকা আত্মসাৎ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান রুমি

শিবচরে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছার জন্মবার্ষিকী উদযাপন ও দুস্থ নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ

শিবচরে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছার জন্মবার্ষিকী উদযাপন ও দুস্থ নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ

কণ্ঠশিল্পী  “নোবেল ম্যান” নামের ইউটিউব চ্যানেলটি ব্যান

কণ্ঠশিল্পী “নোবেল ম্যান” নামের ইউটিউব চ্যানেলটি ব্যান

শহীদের মর্যাদা

শহীদের মর্যাদা

করোনায় ৩০ বছরের নিচে মৃত্যুর হার কম

করোনায় ৩০ বছরের নিচে মৃত্যুর হার কম

গল্পঃ ইদের আনন্দ ভাগাভাগি

গল্পঃ ইদের আনন্দ ভাগাভাগি

কারাগার থেকে কয়েদি ‘উধাও

কারাগার থেকে কয়েদি ‘উধাও

বঙ্গবন্ধুসহ শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় চাঁপাইনবাবগঞ্জে দোয়া মাহফিল

বঙ্গবন্ধুসহ শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় চাঁপাইনবাবগঞ্জে দোয়া মাহফিল

কুড়িগ্রামের রাজারহাটে এই বাড়িতে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়

কুড়িগ্রামের রাজারহাটে এই বাড়িতে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়

ওষুধেও পাওয়া যাচ্ছে মাদকঃ নিরাপত্তা কোথায়?

ওষুধেও পাওয়া যাচ্ছে মাদকঃ নিরাপত্তা কোথায়?

স্কুল-কলেজ খোলা ও পরিক্ষার ব্যাপারে বিবৃতি দিয়েছে শিক্ষামন্ত্রণালয়

স্কুল-কলেজ খোলা ও পরিক্ষার ব্যাপারে বিবৃতি দিয়েছে শিক্ষামন্ত্রণালয়

তালাকের পর কিভাবে তালাক প্রত্যাহার করবেন

তালাকের পর কিভাবে তালাক প্রত্যাহার করবেন