Feedback

বিনোদন

রাজশাহীর মাটির মায়া কাটাতে পারেননি এন্ড্রু কিশোর

রাজশাহীর মাটির মায়া কাটাতে পারেননি এন্ড্রু কিশোর
July 07
12:52am
2020

আই নিউজ বিডি ডেস্ক
Eye News BD App PlayStore

 

  রাজশাহী ব্যুরো: তিনি রাজশাহীকে সবসময় বুকে ধারণ করতেন। তার শেষ ইচ্ছে ছিল রাজশাহীর মাটিতেই শায়িত থাকবেন। কিংবদন্তি শিল্পী এন্ড্রু কিশোর জনপ্রিয়তার শীর্ষে উঠেও একদিনের জন্য রাজশাহীকে ভুলেননি। জন্ম, শৈশব, কৈশোর ও যৌবনের শত স্মৃতি বুকে ধারণ করেই সোমবার সন্ধ্যা ৬টা ৫৫ মিনিটে ৬৫ বছর বয়সে লক্ষ কোটি ভক্তকে শোকের সাগরে ভাসিয়ে পরলোকে চলে গেলেন এন্ড্রু কিশোর।

গত বছর মার্চে সিঙ্গাপুর থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরেই রাজশাহীতে যান শিল্পী। ওই সময় স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের বন্ধুদের সঙ্গে আগের মতোই সময় কাটিয়েছেন। আড্ডা হৈ হুল্লোড় খাওয়া দাওয়া কোনো কিছুই বাদ যায়নি।

শিল্পীর স্কুল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সহপাঠী অধ্যাপক দীপকেন্দ্র নাথ দাস বলছিলেন, এন্ড্রু কিশোর রাজশাহীর কথা, রাজশাহীর বন্ধুদের কথা, রাজশাহীর সব শ্রেণী পেশার মানুষের সঙ্গে মিশতেন। সময় কাটাতেন। তুমুল ব্যস্ততার সময়েও ছুটে আসতেন রাজশাহীতে। সবাইকে ডেকে নিয়ে আড্ডায় মেতে উঠতেন। রাজশাহীতেও ব্যক্তি এন্ড্রু কিশোর ছিলেন সবার ভালোবাসার মানুষ।

গত মার্চে শেষবার রাজশাহীতে ফিরে নিজেই বলেছিলেন আমি রাজশাহীর মাটি ও মানুষের মাঝে থাকতে চাই। আমার শেষদিনও যেন রাজশাহীর সুর্যালোকে আলোকিত থাকে সেটি আমার শেষ ইচ্ছে।

অধ্যাপক দীপক দাস আরও বলেন, অত্যন্ত সরলপ্রাণ মানুষ এন্ড্রু কিশোরকে রাজশাহীর মানুষ আজীবন মনে রাখবে।
রাজশাহীতে জন্মেও নিজের পৈতৃক কোনো বাড়িঘর ছিল না শিল্পীর। মহিষবাথানের মাতৃসম বোন ডা. শিখা বিশ্বাসের সেই বাসাটাই ছিল শিল্পীর সুখ-দুঃখের শেষ গন্তব্য। ঢাকা থেকে ফিরেও এই বাসাতেই থাকতেন। রাজশাহীর পদ্মা আবাসিক এলাকায় একটি অ্যাপার্টমেন্ট নিলেও সেই বাসাতে থাকার সুযোগ হয়নি এন্ড্রু কিশোরের। গত বছর গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে চিকিৎসার খরচ জোগাতে অ্যাপার্টমেন্টটি জরুরিভাবে বিক্রি করে দেন।

সিঙ্গাপুর থেকে ফিরে ঢাকার বাসায় কয়েকদিন থাকলেও রাজশাহীতে চলে যান এন্ড্রু কিশোর। বোনের বাসাতেই তার ঠাঁই হয় যেখানে কেটেছে তার শৈশব কৈশোর। ছেলে মেয়ে নিয়ে এসেও তিনি এই বাসাতেই উঠতেন। সোমবার সন্ধ্যায় হাজারো স্মৃতির আধার এই বাসাতেই শেষ গন্তব্যে চলে যান তিনি।

শিল্পীর বোন ডা. শিখা বিশ্বাস জানান, এন্ড্রুকে তিনি মায়ের স্নেহ মায়া মমতা ভালোবাসায় বড় করেছেন। এত বছর বয়সেও এন্ড্রু ছিল তার কাছে সেই অবলা সন্তানের মতোই। খাবার বায়না ধরতেন, শিশুসূলভ আচরণ করতেন। গান করতেন। শিল্পীর গভীর স্মৃতি মমতা এখন শুধুই তাকে কাঁদাচ্ছে।

All News Report

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

কুড়িগ্রামে দুই বছর পর উন্মোচিত হলো আসামী

কুড়িগ্রামে দুই বছর পর উন্মোচিত হলো আসামী

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় মালয়েশিয়া প্রবাসীর জীবনের নিরাপত্তার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় মালয়েশিয়া প্রবাসীর জীবনের নিরাপত্তার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন

পৃথিবীর যে নদীতে রাধা-কৃষ্ণ বিহার করে

পৃথিবীর যে নদীতে রাধা-কৃষ্ণ বিহার করে

নাগেশ্বরীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধে সন্ত্রাসী হামলায় ৪ বাড়িতে ভাংচুর ও লুটপাট।

নাগেশ্বরীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধে সন্ত্রাসী হামলায় ৪ বাড়িতে ভাংচুর ও লুটপাট।

চার নাইজেরিয়ান নাগরীকসহ ৫ জন রিমান্ডে

চার নাইজেরিয়ান নাগরীকসহ ৫ জন রিমান্ডে

আট  অতিরিক্ত সচিবের রদবদল, দুই জনের অবসর

আট অতিরিক্ত সচিবের রদবদল, দুই জনের অবসর

দেশে পোশাক খাতের রফতানি কমেছে ৬০০ কোটি ডলার এই খাতের ভবিষ্যত কী হবে?

দেশে পোশাক খাতের রফতানি কমেছে ৬০০ কোটি ডলার এই খাতের ভবিষ্যত কী হবে?

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় বজ্রপাতে দুই জনের মৃত্যু, আহত ০১

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় বজ্রপাতে দুই জনের মৃত্যু, আহত ০১

আইসিইউতে সানাই

আইসিইউতে সানাই

ষড়যন্ত্রকারীরা আগষ্ট মাসকে বেছে নিয়েছে : মুন্সী আলাউদ্দিন

ষড়যন্ত্রকারীরা আগষ্ট মাসকে বেছে নিয়েছে : মুন্সী আলাউদ্দিন

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে যাবজ্জীবন সাজা প্রাপ্ত কয়েদি নিখোঁজ।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে যাবজ্জীবন সাজা প্রাপ্ত কয়েদি নিখোঁজ।

ক্রসফায়ার’ না দেয়ার শর্তে টাকা আদায় করতেন ওসি প্রদীপ

ক্রসফায়ার’ না দেয়ার শর্তে টাকা আদায় করতেন ওসি প্রদীপ

"কল্যাণের জন্য জাগ্রত তারুণ্যের” ঈদ পুনর্মিলন অনুষ্ঠিত

"কল্যাণের জন্য জাগ্রত তারুণ্যের” ঈদ পুনর্মিলন অনুষ্ঠিত

ফেসবুক লাইভের পর গলায় ফাঁস দিয়ে অভিনেত্রীর আত্মহত্যা

ফেসবুক লাইভের পর গলায় ফাঁস দিয়ে অভিনেত্রীর আত্মহত্যা

সারাবিশ্বে বাংলাদেশ করোনা আক্রান্তে ১৫, আর মৃত্যুতে ২৯তম স্থানে!

সারাবিশ্বে বাংলাদেশ করোনা আক্রান্তে ১৫, আর মৃত্যুতে ২৯তম স্থানে!

সর্বশেষ

কোনোভাবেই নিয়ন্ত্রণে আসছে না কক্সবাজারের টেকনাফ, অপরাধের শেষ নেই টেকনাফে

কোনোভাবেই নিয়ন্ত্রণে আসছে না কক্সবাজারের টেকনাফ, অপরাধের শেষ নেই টেকনাফে

করতোয়া নদীতে জাবি শিক্ষার্থীর মৃত্য

করতোয়া নদীতে জাবি শিক্ষার্থীর মৃত্য

রামগতির ঐতিহ্যবাহী চর মেহার আজিজিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে সাবেক সহকারী প্রধান শিক্ষকের ইন্তেকাল

রামগতির ঐতিহ্যবাহী চর মেহার আজিজিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে সাবেক সহকারী প্রধান শিক্ষকের ইন্তেকাল

সানরাইজ সোশ্যাল অর্গানাইজেশন-এর কুমিল্লা ও চাঁদপুর ইউনিটের (২০২০-২১) বর্ষের নবগঠিত কমিটির দায়িত্ব হস্তান্তর ও শপথ গ্রহন অনুষ্ঠিত.....

সানরাইজ সোশ্যাল অর্গানাইজেশন-এর কুমিল্লা ও চাঁদপুর ইউনিটের (২০২০-২১) বর্ষের নবগঠিত কমিটির দায়িত্ব হস্তান্তর ও শপথ গ্রহন অনুষ্ঠিত.....

ঝুঁকি নিয়ে ট্রাকে করে কর্মস্থলে ফিরছে মানুষ

ঝুঁকি নিয়ে ট্রাকে করে কর্মস্থলে ফিরছে মানুষ

নোয়াখালীর হাতিয়ায় বড় ভাইয়ের বিরুদ্ধে ছোট বোনকে গলা টিপে হত্যার অভিযোগ

নোয়াখালীর হাতিয়ায় বড় ভাইয়ের বিরুদ্ধে ছোট বোনকে গলা টিপে হত্যার অভিযোগ

আবার বাড়ছে এলপিজি গ্যাসের দাম: বাজার নিয়ন্ত্রণে নীরব সরকার!

আবার বাড়ছে এলপিজি গ্যাসের দাম: বাজার নিয়ন্ত্রণে নীরব সরকার!

অলসতা দূর করতে নিজেকে অনুপ্রাণিত করার উপায়গুলি শিখুন

অলসতা দূর করতে নিজেকে অনুপ্রাণিত করার উপায়গুলি শিখুন

বাবাকে লিখা শহীদ সিরাজের শেষ চিঠি

বাবাকে লিখা শহীদ সিরাজের শেষ চিঠি

শাকসবজির রস পান করা হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে করতে পারে...

শাকসবজির রস পান করা হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে করতে পারে...

জীবনের জন্য বই: তাহসীন তাওহীদ

জীবনের জন্য বই: তাহসীন তাওহীদ

প্রতি ৯ জন মহিলার মধ্যে ১ জন স্তন ক্যান্সারের শিকার, লক্ষণ এবং প্রতিকারগুলি

প্রতি ৯ জন মহিলার মধ্যে ১ জন স্তন ক্যান্সারের শিকার, লক্ষণ এবং প্রতিকারগুলি

মালয়েশিয়ায় জাতিবাদী পার্টি গড়বেন মাহাথির

মালয়েশিয়ায় জাতিবাদী পার্টি গড়বেন মাহাথির

সকল প্রতিষ্ঠানের পরে খুলতে চায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান - শিক্ষা মন্ত্রণালয়

সকল প্রতিষ্ঠানের পরে খুলতে চায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান - শিক্ষা মন্ত্রণালয়

মহামারির মধ্যেই বিদ্যালয় খুলে দিল যুক্তরাষ্ট্র

মহামারির মধ্যেই বিদ্যালয় খুলে দিল যুক্তরাষ্ট্র