আরও...

আঙুল ফুলে কলা গাছ ; বনে যাওয়া দুর্জয়ের ব্যাপারে দুদক ‘নীরব’

আঙুল ফুলে কলা গাছ ; বনে যাওয়া দুর্জয়ের ব্যাপারে দুদক ‘নীরব’
June 28
12:39pm 2020
Shahadat Hossain
Tejgoan, Dhaka, প্রতিনিধি:

আই নিউজ বিডি ডেস্কমানিকগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য নাঈমুর রহমান দুর্জয় ও তার স্ত্রী ফারহানা রহমান হ্যাপির নামে গড়ে ওঠা অবৈধ সম্পদের  ব্যাপারে ‘নীর‌ব’ দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তার বিরুদ্ধে ‘অভিযোগ’ না থাকার অজুহাতে এমন নিরবতা পালন করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক নাঈমুর রহমান দুর্জয়। ২০১৪ সালে সংসদ সদস্য হওয়ার পরেই হাতে যেন তিনি ‘আলাদিনের চেরাগ’ পেয়ে যান। উচ্চ মাধ্যমিক পাস করা দুর্জয় প্রথমবার এমপি হওয়ার পরপরই বাড়তে থাকে আয় ও সম্পদ। রাতারাতি বনে যান একটি পাওয়ার প্লান্টের পরিচালক। আর আয়ও বেড়ে যায় আট গুণ।

দুর্জয় ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে হলফনামায় নিজেকে চেজ ট্রেডিং লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং চেজ পাওয়ার লিমিটেডের পরিচালক হিসেবে উল্লেখ করেছেন। 

যদিও ২০১৪ সালের দশম সংসদ নির্বাচনের আগে তিনি যে হলফনামা দাখিল করেন, সেখানে তার পেশার বিবরণীতে পাওয়ার প্লান্টের পরিচালক পদটি ছিল না। সে সময় তিনি দু’টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত বলে উল্লেখ করেছিলেন।

যার একটিতে তিনি নিজেকে চেজ ট্রেডিং লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং অন্যটিতে ফুওয়াং ফুড অ্যান্ড বেভারেজের পরিচালক হিসেবে দাবি করেছিলেন। অর্থাৎ প্রথমবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পাঁচ বছরের মধ্যেই তিনি বনে যান পাওয়ার প্লান্টের পরিচালক।

একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সময় তিনি বছরে আয় দেখিয়েছেন ৪৩ লাখ ৭৫ হাজার ২শ টাকা। এক্ষেত্রে কৃষিখাত থেকে বছরে ৫২ হাজার ৮শ টাকা, পারিতোষিক ও ভাতাদি থেকে আয় ২৩ লাখ ৪২ হাজার ৪শ টাকা এবং মৎস্য চাষ থেকে আয় দেখিয়েছেন ১৯ লাখ ৮০ হাজার টাকা।

এই হলফনামা দেওয়ার পাঁচ বছর আগে দশম সংসদ নির্বাচনের সময় বছরে আয় দেখিয়েছিলেন ৫ লাখ ৭০ হাজার টাকা। যেখানে কৃষিখাতে ১ লাখ টাকা এবং ব্যবসা থেকে ৪ লাখ ৭০ হাজার টাকা আয় ছিল তার।

অর্থাৎ প্রথমবার এমপি হওয়ার পর পাঁচ বছরের মধ্যে তার বাৎসরিক আয় বাড়ে ৭ দশমিক ৬৮ গুণ।

এমপি হওয়ার মাত্র পাঁচ বছরের মাথায় দুর্জয়ের ‘আঙুল ফুলে কলাগাছ’ হওয়ার বিষয়টি এখন মানিকগঞ্জ শহরের ‘টক অব দ্য টাউন’। কিন্তু দুর্জয়ের প্রতিপত্তি ও তার ক্যাডার বাহিনীর ভয়ে কেউই মুখ দিয়ে কথা বের করতে পারছে না।

বাংলানিউজের অনুসন্ধানে জানা যায়, দুর্জয় বাহিনীর জমি দখলের বিষয়টি এখন মানিকগঞ্জ জুড়ে ‘ওপেন সিক্রেট’। দখল ভীতির কারণে জেলার বাইরে থেকে কোনো ব্যক্তি বা বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ওই এলাকায় জমি কিনতে আসে না।

সে কারণে জমি কেনাবেচাও খুবই কম। আর বাংলাদেশ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) এবং সড়ক ও জনপথের মতো সংস্থার সরকারি জমি এবং নদীভাঙা সম্পদ, বাজার বা অন্যান্য খাস জমি দখলে নেওয়া তো এমপির লোকজনের ‘রোজকারের’ ঘটনা।

ভূমি অফিস ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, দুর্জয় এমপি নির্বাচিত হওয়ার পর শুধু দৌলতপুর এলাকাতেই শতাধিক একর খাস জমি দখল করে নিয়েছেন। উপজেলা সদরের খাল-নালা ভরাট করে তা পজেশন আকারে বিক্রি করার ঘটনাও ঘটিয়েছে এমপি দুর্জয়।

দৌলতপুর বাজারে জেলা প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করেই সরকারি নালা দখল করে ভরাট হয়েছে, সেখানেই এখন গড়ে উঠেছে বড় আকারের মার্কেট।

জাফরগঞ্জ নৌবন্দর সংলগ্ন যেসব জায়গা জমি কয়েক বছর আগে যমুনাগর্ভে বিলীন হয়েছিল অদৃশ্য কাগজপত্রের সাহায্যে সেসব জায়গার মালিক সেজেছেন এমপি দুর্জয়ের চাচা টিপু। স্ট্যাম্পে লিখিত দেওয়ার মাধ্যমেই নদীর সেই জায়গা বেচাকেনাও করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

জমি দখলের মহড়ায় যুক্ত আছেন এমপিপত্নী ফারহানা রহমান হ্যাপি। তরা-মুলজান শিল্পাঞ্চলের অনেক জায়গা জমি হাতিয়ে নেওয়া হয়েছে হ্যাপীর নামে। তার নামে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক সংলগ্ন সড়ক ও জনপথের বহু দামী জায়গা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

মূলজান এলাকায় এই জমিতেই হ্যাপির নামে দুর্জয় পরিবারের শপিং মল তৈরি করার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানা যায়। এমপির স্ত্রী হওয়ায় জমি পুনরুদ্ধারে অনেকটাই হতাশ সড়ক ও জনপথ বিভাগ।

এছাড়া কৃষি জমি থেকে মাটি কেটে বিক্রি করারও অভিযোগ আছে হ্যাপির বিরুদ্ধে। ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের মেগা ফিড কারখানার পেছনে অন্তত তিনটি স্পটে ফসলি জমি দখল করে মাটি বিক্রি করা হচ্ছে। সেই মাটি আনা-নেওয়ার কাজে ট্রাক চালিয়ে ক্ষতি করা হচ্ছে আশেপাশের ফসলি জমির।

স্ত্রীর নামে এত সম্পত্তি থাকলেও নির্বাচন কমিশনে জমা দেওয়া হলফনামায় স্ত্রী ফারহানা রহমান হ্যাপির নামে যথাযথ কোনো আয়ের উৎস দেখাতে পারেননি দুর্জয়।

অভিযোগ আছে, অবৈধভাবে অর্জিত এই সম্পদ বিদেশে পাচার করে এ দম্পতি মালয়েশিয়ায় গড়েছেন ‘সেকেন্ড হোম’।

এত সম্পদের বিষয়ে জানতে চাইলে তা জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের ওপর ছেড়ে দেন এমপি দুর্জয়। অন্যদিকে তার নাম ব্যবহার করে কেউ যদি অন্যায় কাজ করে তাহলে তাদের নাম পরিচয় জানতে চান তিনি। অভিযোগ পেলে নিজেই ‘ব্যবস্থা’ নেওয়ার দাবি করেন।

দুর্জয় বলেন, আয়ের উৎস তো এনবিআর (জাতীয় রাজস্ব বোর্ড) দেখবে। এনবিআর দেখুক আয়ের উৎস, আয়ের টাকা কই গেল?

আর মালয়েশিয়ায় সেকেন্ড হোমের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি অভিযোগের সূত্র সম্পর্কে জানতে চান।

এত সম্পদ আর দুর্নীতির অভিযোগ যার বিরুদ্ধে, সেই নাঈমুর রহমান দুর্জয়ের বিরুদ্ধে কোনো মামলাই নেই দুর্নীতি দমন কমিশনে। কমিশনের বর্তমান চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ দায়িত্ব নেওয়ার পর দুদক রাঘল-বোয়ালের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। ক্যাসিনো কাণ্ডে দুদকের ভূমিকা সব মহলে প্রশংসিতও হয়েছে। কিন্তু দুর্জয়ের বিষয়ে অজানা কারণে নিশ্চুপ হয়ে আছে দেশের দুর্নীতি দমনের সর্বোচ্চ সংস্থাটি।

এ বিষয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সচিব মুহাম্মদ দিলোয়ার বখত বলেন, নাঈমুর রহমান দুর্জয়ের বিরুদ্ধে দুদকে কোনো মামলা নেই। বিভিন্ন গণমাধ্যমে তার বিষয়ে যেসব সংবাদ প্রকাশ হয়েছে, সেগুলো কমিশন গোপনে যাচাই বাছাই করবে। অনুসন্ধানযোগ্য হলে দুদক অবশ্যই অনুসন্ধান করবে।

Report this news

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

সফল ভাবে এগিয়ে চলছে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়

সফল ভাবে এগিয়ে চলছে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়

মদনে স্ত্রীর পরকীয়ায় স্বামীর আত্মহত্যা, আটক- ৩

মদনে স্ত্রীর পরকীয়ায় স্বামীর আত্মহত্যা, আটক- ৩

গাড়ি চাপায় হত্যার পর এবার পুলিশের গাড়িকে ধাক্কা এমপি পুত্রের

গাড়ি চাপায় হত্যার পর এবার পুলিশের গাড়িকে ধাক্কা এমপি পুত্রের

নৌকায় সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে পালাচ্ছিল সাহেদ

নৌকায় সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে পালাচ্ছিল সাহেদ

২৯ লাখ টাকা জরিমানা করা হল লাজ ফার্মাকে

২৯ লাখ টাকা জরিমানা করা হল লাজ ফার্মাকে

পটুয়াখালী জেলা প্রশাসকের প্রস্তাব : বিচ্ছিন্ন রাঙ্গাবালী নৌ-রুটে ফেরীর সার্ভিস প্রদান

পটুয়াখালী জেলা প্রশাসকের প্রস্তাব : বিচ্ছিন্ন রাঙ্গাবালী নৌ-রুটে ফেরীর সার্ভিস প্রদান

গ্রেফতারের পর পাবলিকের গণধোলাই থেকে বেচে যান সাহেদ!

গ্রেফতারের পর পাবলিকের গণধোলাই থেকে বেচে যান সাহেদ!

কোটচাদপুরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে নারীসহ ৩জন আটক

কোটচাদপুরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে নারীসহ ৩জন আটক

কালীগঞ্জে ইউনিলিভার ডিপোতে আবারো চুরি!

কালীগঞ্জে ইউনিলিভার ডিপোতে আবারো চুরি!

দ্বিতীয় দিনের রিমান্ড শেষে যা বললেন সাবরিনা

দ্বিতীয় দিনের রিমান্ড শেষে যা বললেন সাবরিনা

যা পাওয়া গেলো শাহেদের উত্তরার বাসায়!

যা পাওয়া গেলো শাহেদের উত্তরার বাসায়!

বগুড়া-১ উপনির্বাচনে সাহাদারা মান্নান বেসরকারিভাবে নির্বাচিত

বগুড়া-১ উপনির্বাচনে সাহাদারা মান্নান বেসরকারিভাবে নির্বাচিত

আবাসিক হোটেলে ইয়াবা সেবনের সময়  আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গ্রেফতার

আবাসিক হোটেলে ইয়াবা সেবনের সময় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গ্রেফতার

দ্বিতীয় বিয়ের পর বেপরোয়া হয়ে ওঠেন সাবরিনা

দ্বিতীয় বিয়ের পর বেপরোয়া হয়ে ওঠেন সাবরিনা

যশোরে নৌকার বিপুল ভোটে জয়

যশোরে নৌকার বিপুল ভোটে জয়

সর্বশেষ

'গরু দিতে না পারায় আমার সদস্যপদ বাতিল করেছে জায়েদ খান'

'গরু দিতে না পারায় আমার সদস্যপদ বাতিল করেছে জায়েদ খান'

চট্টগ্রাম বন্দরের ৩ নম্বর শেডে আগুন তদন্তে কমিটি

চট্টগ্রাম বন্দরের ৩ নম্বর শেডে আগুন তদন্তে কমিটি

গুইমারায় মোটর সাইকেল দূর্ঘটনায় এক যুবকের মৃত্যু ,আহত আরো দুজন

গুইমারায় মোটর সাইকেল দূর্ঘটনায় এক যুবকের মৃত্যু ,আহত আরো দুজন

চট্টগ্রামের বাঁশখালী বাহারছড়ায় বৃক্ষরোপন কর্মসুচী পালন

চট্টগ্রামের বাঁশখালী বাহারছড়ায় বৃক্ষরোপন কর্মসুচী পালন

সাহেদরা হয়তো গ্যাংস্টার নয় কিন্তু রক্তচোষা

সাহেদরা হয়তো গ্যাংস্টার নয় কিন্তু রক্তচোষা

জীবন উন্নয়নের অভ্যাসগুলো

জীবন উন্নয়নের অভ্যাসগুলো

কমলগঞ্জে বাংলদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোটের বৃক্ষ রোপন কর্মসূচী পালন

কমলগঞ্জে বাংলদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোটের বৃক্ষ রোপন কর্মসূচী পালন

কাহারোল উপজেলার মসজিদ ও মন্দিরের বিভিন্ন কমিটির মধ্যে অর্থের চেক বিতরণ

কাহারোল উপজেলার মসজিদ ও মন্দিরের বিভিন্ন কমিটির মধ্যে অর্থের চেক বিতরণ

প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০১৮ লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণরা প্যানেলে নিয়োগ

প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০১৮ লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণরা প্যানেলে নিয়োগ

শিল্পীদের স্বার্থ সংরক্ষণ করবেন জায়েদ খান

শিল্পীদের স্বার্থ সংরক্ষণ করবেন জায়েদ খান

ঢামেকে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে ডিবি কার্যালয়ে সাহেদ

ঢামেকে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে ডিবি কার্যালয়ে সাহেদ

নিজের পছন্দের জায়গায় চিরনিদ্রায় শায়িত এন্ড্রু কিশোর

নিজের পছন্দের জায়গায় চিরনিদ্রায় শায়িত এন্ড্রু কিশোর

বয়কট মিশা-জায়েদ, তাদের কাজে নিলে সদস্যপদ বাতিল

বয়কট মিশা-জায়েদ, তাদের কাজে নিলে সদস্যপদ বাতিল

একসঙ্গে তিন নবজাতকের জন্ম

একসঙ্গে তিন নবজাতকের জন্ম

যুবলীগের নেতাকর্মীদের বন্যা দুর্গতদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান

যুবলীগের নেতাকর্মীদের বন্যা দুর্গতদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান