জাতীয়, প্রবাসে বাংলা

দেশে ফিরে কোনো সাহায্য পাননি ৯১ শতাংশ প্রবাসী: ব্র্যাক

দেশে ফিরে কোনো সাহায্য পাননি ৯১ শতাংশ প্রবাসী: ব্র্যাক
May 23
06:23am 2020

আই নিউজ বিডি ডেস্ক

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনাভাইরাস মহামারি পরিস্থিতিতে দেশে ফেরা প্রবাসীরা অসহায় হয়ে পড়েছেন। আয়ের কোনো উৎস নেই দেশে ফেরা ৮৭ শতাংশ প্রবাসীর। দেশে ফিরে সরকারি বা বেসরকারি কোনো সাহায্য পাননি ৯১ শতাংশ প্রবাসী। জরুরি ভিত্তিতে আর্থিক সহায়তা প্রয়োজন ৫২ শতাংশ প্রবাসীর।

‘বিদেশফেরত অভিবাসী কর্মীদের জীবন ও জীবিকার ওপর কভিড-১৯ মহামারির প্রভাব’ শীর্ষক জরিপে এসব তথ্য উঠে এসেছে। জরিপটি পরিচালনা করেছে বেসরকারি সংস্থা ব্র্যাকের অভিবাসন কর্মসূচি। শুক্রবার (২২ মে) আনুষ্ঠানিকভাবে এ জরিপের প্রতিবেদন তুলে ধরেছে ব্র্যাক।

ব্র্যাক বলছে, করোনা পরিস্থিতিতে দেশে ফেরা ৫৫৮ জন প্রবাসী কর্মীর সঙ্গে কথা বলে জরিপটি পরিচালনা করা হয়। এর মধ্যে ৮৬ শতাংশই ফিরেছেন মার্চে। জরিপে অংশগ্রহণকারীদের ৪৫ শতাংশ ‍এসেছেন মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, কাতার, বাহরাইন ওমান এবং কুয়েত থেকে। বাকিরা মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ইতালি, মালদ্বীপসহ বিভিন্ন দেশ থেকে ফিরেছেন। ব্র্যাকের ২০ জন কর্মী ঢাকা, টাঙ্গাইল, মুন্সিগঞ্জ, শরীয়তপুর, নরসিংদী, সিলেট, সুনামগঞ্জ, কুমিল্লা, নোয়াখালী, সিরাজগঞ্জ, রংপুর, খুলনা এবং যশোরে থাকা প্রবাসীদের সঙ্গে কথা বলে জরিপটি পরিচালনা করেন।

জরিপে অংশগ্রহণকারীদের ৪০ শতাংশ প্রবাসী বলেছেন, করোনার কারণে তাঁরা দেশে ফিরে আসতে বাধ্য হয়েছেন। ৩৫ শতাংশ বলেছেন, তাঁরা ছুটিতে এসেছিলেন। ১৮ শতাংশ বলেছেন, তাঁরা পারিবারিক কারণে চলে এসেছেন। ৭ শতাংশ বলেছেন, তাঁদের ফেরার সঙ্গে করোনার কোনো সম্পর্ক নেই।

কোয়ারেন্টিনের বিষয়ে জানতে চাইলে জরিপে অংশগ্রহণকারীদের ৮৪ শতাংশ প্রবাসী বলেছেন, তাঁরা ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে ছিলেন। ১৪ শতাংশ বলেছেন, তাঁরা কোয়ারেন্টিন ঠিকমতো মানতে পারেননি। ২ শতাংশ বলেছেন, তাঁরা এক সপ্তাহ কোয়ারেন্টিনে ছিলেন।

ফেরত আসার পর বর্তমান অবস্থা জানতে চাইলে জরিপে অংশগ্রহণকারীদের ৭৪ শতাংশ জানিয়েছেন, তাঁরা এখন প্রচণ্ড দুশ্চিন্তা, মানসিক চাপ, উদ্বেগ ও ভীতির মধ্যে রয়েছেন। ব্র্যাকের অভিবাসন কর্মসূচির ১২ জন কাউন্সিলর অবশ্য তাঁদের সবাইকে মনঃসামাজিক সেবা দিয়েছেন।

২৯ শতাংশ অভিবাসী বলেছেন, তাঁদের প্রতিবেশী এবং আত্মীয়স্বজনেরা তাঁদের ফিরে আসাকে স্বাভাবিকভাবে নেননি এবং তাঁদের প্রতি সহযোগিতামূলক মনোভাব প্রদর্শন করেননি। তবে ৯৭ শতাংশ বলেছেন, এ ক্ষেত্রে পরিবার সহায়ক ভূমিকা পালন করেছে।

জরিপে অংশ নেওয়া অভিবাসী কর্মীদের মধ্যে ৩৪ শতাংশ জানান, তাঁদের নিজেদের সঞ্চয় বলতে এখন আর কিছু নেই। ১৯ শতাংশ জানান, তাঁদের যে সঞ্চয় আছে, তা দিয়ে আরও এক-দুই মাস চলতে পারবেন। নিজেদের সঞ্চয় দিয়ে তিন মাস বা তার বেশি সময় চলতে পারবেন, এমন সংখ্যা ৩৩ শতাংশ। ১০ শতাংশ জানান, নিত্যপ্রয়োজনীয় খরচ মেটাতে ইতিমধ্যেই আনুষ্ঠানিক এবং অনানুষ্ঠানিক উৎস থেকে তাঁরা ঋণ গ্রহণ করেছেন। ১৪ শতাংশ প্রবাসী তাঁদের সঞ্চয়ের ব্যাপারে কোনো প্রকার তথ্য দিতে রাজি হননি।

মোবাইল ফোনে সাক্ষাৎকার গ্রহণের মাধ্যমে পরিচালিত এই জরিপে দেখা যায়, ফেরত আসা অভিবাসীদের শতকরা ৮৪ ভাগ এখনো জীবিকা নিয়ে কোনো পরিকল্পনা করতে পারেননি। ৬ শতাংশ জানিয়েছেন, তাঁরা পুনরায় বিদেশ যাওয়ার কথা ভাবছেন। বাকিরা কৃষিভিত্তিক ছোট ব্যবসা, মুদি দোকান বা অন্য কিছু করার পরিকল্পনা করছেন।

বিদেশফেরত এই অভিবাসীরা কোনো ধরনের সহায়তা পেয়ছেন কি না, জানতে চাইলে ৯১ শতাংশ বলেছেন, তাঁরা এখনো সরকারি বা বেসরকারি কোনো জায়গা থেকে কোনো সহযোগিতা পাননি। বাকি ৯ শতাংশ সরকারি বা বেসরকারি কোনো না কোনো জায়গা থেকে সামান্য হলেও সহযোগিতা পেয়েছেন।

ব্র্যাকের অভিবাসন কর্মসূচি প্রধান শরিফুল হাসান বলেন, বিদেশফেরত প্রবাসীদের বর্তমান অবস্থা, তাঁদের সংকট এবং করোনা তাঁদের জীবন ও জীবিকার ওপর কী কী প্রভাব ফেলেছে, সেটা জানতেই এই জরিপ। এই প্রবাসীদের পাশে দাঁড়ানোর কাজটি শুধু সরকারের একার নয়। সরকারি-বেসরকারি সংস্থা সবাই মিলে কাজটি করতে হবে।

সমস্যা সমাধানে পাঁচটি পরামর্শ দিয়েছে ব্র্যাকের অভিবাসন কর্মসূচি। এগুলো হলো, ফিরে আসা প্রবাসী ও তাঁদের পরিবারের প্রতি বৈষম্যমূলক আচরণ না করে সামাজিক সুরক্ষার আওতায় আনা, স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি ঝুঁকি নিরূপণ করে মনঃসামাজিক সহায়তাসহ টেকসই পুনরেকত্রীকরণ কর্মসূচি গ্রহণ করা, দক্ষতা বৃদ্ধি ও আয়বর্ধনমূলক কর্মকাণ্ডে যুক্ত করতে সহজ শর্তে বিভিন্ন ধরনের ঋণসুবিধা, গন্তব্য দেশের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে জোর করে দেশে ফেরত পাঠানো বন্ধ করা এবং পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে তাঁরা যেন কাজে ফিরতে পারেন, সেই উদ্যোগ নেওয়া।

Report this news

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

মদনে স্ত্রীর পরকীয়ায় স্বামীর আত্মহত্যা, আটক- ৩

মদনে স্ত্রীর পরকীয়ায় স্বামীর আত্মহত্যা, আটক- ৩

নৌকায় সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে পালাচ্ছিল সাহেদ

নৌকায় সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে পালাচ্ছিল সাহেদ

পটুয়াখালী জেলা প্রশাসকের প্রস্তাব : বিচ্ছিন্ন রাঙ্গাবালী নৌ-রুটে ফেরীর সার্ভিস প্রদান

পটুয়াখালী জেলা প্রশাসকের প্রস্তাব : বিচ্ছিন্ন রাঙ্গাবালী নৌ-রুটে ফেরীর সার্ভিস প্রদান

গ্রেফতারের পর পাবলিকের গণধোলাই থেকে বেচে যান সাহেদ!

গ্রেফতারের পর পাবলিকের গণধোলাই থেকে বেচে যান সাহেদ!

দ্বিতীয় দিনের রিমান্ড শেষে যা বললেন সাবরিনা

দ্বিতীয় দিনের রিমান্ড শেষে যা বললেন সাবরিনা

কালীগঞ্জে ইউনিলিভার ডিপোতে আবারো চুরি!

কালীগঞ্জে ইউনিলিভার ডিপোতে আবারো চুরি!

যা পাওয়া গেলো শাহেদের উত্তরার বাসায়!

যা পাওয়া গেলো শাহেদের উত্তরার বাসায়!

বগুড়া-১ উপনির্বাচনে সাহাদারা মান্নান বেসরকারিভাবে নির্বাচিত

বগুড়া-১ উপনির্বাচনে সাহাদারা মান্নান বেসরকারিভাবে নির্বাচিত

যশোরে নৌকার বিপুল ভোটে জয়

যশোরে নৌকার বিপুল ভোটে জয়

মৌলভীবাজারে বিয়ের ৫ দিনের মাথায় এক পুলিশ সদস্যের মৃত্যু!

মৌলভীবাজারে বিয়ের ৫ দিনের মাথায় এক পুলিশ সদস্যের মৃত্যু!

অবশেষে বহুলালোচিত রিজেন্ট শাহেদকে সাতক্ষীরার সীমান্ত থেকে অস্ত্রসহ আটক করেছে র‍্যাব

অবশেষে বহুলালোচিত রিজেন্ট শাহেদকে সাতক্ষীরার সীমান্ত থেকে অস্ত্রসহ আটক করেছে র‍্যাব

বাংলাদেশ র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যটালিয়ন (র‌্যাব) এর জালে শেষ মূহুর্তে আটকা পড়লেন  শাহেদ

বাংলাদেশ র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যটালিয়ন (র‌্যাব) এর জালে শেষ মূহুর্তে আটকা পড়লেন শাহেদ

চট্টগ্রামে এক হাফেজ স্বর্ণের পাতিল পাইয়ে দিবে বলে এক নারীর কাছ থেকে ৬৫ লাখ টাকা আত্মসাত

চট্টগ্রামে এক হাফেজ স্বর্ণের পাতিল পাইয়ে দিবে বলে এক নারীর কাছ থেকে ৬৫ লাখ টাকা আত্মসাত

তিনটি বাদে সব আন্তর্জাতিক রুটে ৩১ জুলাই পর্যন্ত বিমানের ফ্লাইট বন্ধ

তিনটি বাদে সব আন্তর্জাতিক রুটে ৩১ জুলাই পর্যন্ত বিমানের ফ্লাইট বন্ধ

নেত্রকোণা বঙ্গবন্ধু ছাত্র-একতা পরিষদ কমিটি অনুমোদন

নেত্রকোণা বঙ্গবন্ধু ছাত্র-একতা পরিষদ কমিটি অনুমোদন

সর্বশেষ

যেসব অভিযোগে জায়েদ খানকে বয়কট করা হলো

যেসব অভিযোগে জায়েদ খানকে বয়কট করা হলো

জাতির উন্নয়নের জন্য প্রয়োজন আদর্শবান রাজনীতিবিদ

জাতির উন্নয়নের জন্য প্রয়োজন আদর্শবান রাজনীতিবিদ

সিসিমপুরের গল্প নিয়ে রঙবেরঙের গল্প

সিসিমপুরের গল্প নিয়ে রঙবেরঙের গল্প

করোনায় চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদকের মৃত্যু

করোনায় চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদকের মৃত্যু

সিএমপির ৩ থানার ওসি রদবদল

সিএমপির ৩ থানার ওসি রদবদল

করোনায় আক্রান্ত চলচ্চিত্র নির্মাতা মাসুদ হাসান উজ্জ্বল

করোনায় আক্রান্ত চলচ্চিত্র নির্মাতা মাসুদ হাসান উজ্জ্বল

রামগঞ্জ পৌরসভার এরশাদ হোসেন সড়ক রাস্তার বেহাল দশা, দুর্ভোগ স্থানীয়দের

রামগঞ্জ পৌরসভার এরশাদ হোসেন সড়ক রাস্তার বেহাল দশা, দুর্ভোগ স্থানীয়দের

'গরু দিতে না পারায় আমার সদস্যপদ বাতিল করেছে জায়েদ খান'

'গরু দিতে না পারায় আমার সদস্যপদ বাতিল করেছে জায়েদ খান'

চট্টগ্রাম বন্দরের ৩ নম্বর শেডে আগুন তদন্তে কমিটি

চট্টগ্রাম বন্দরের ৩ নম্বর শেডে আগুন তদন্তে কমিটি

গুইমারায় মোটর সাইকেল দূর্ঘটনায় এক যুবকের মৃত্যু ,আহত আরো দুজন

গুইমারায় মোটর সাইকেল দূর্ঘটনায় এক যুবকের মৃত্যু ,আহত আরো দুজন

চট্টগ্রামের বাঁশখালী বাহারছড়ায় বৃক্ষরোপন কর্মসুচী পালন

চট্টগ্রামের বাঁশখালী বাহারছড়ায় বৃক্ষরোপন কর্মসুচী পালন

সাহেদরা হয়তো গ্যাংস্টার নয় কিন্তু রক্তচোষা

সাহেদরা হয়তো গ্যাংস্টার নয় কিন্তু রক্তচোষা

জীবন উন্নয়নের অভ্যাসগুলো

জীবন উন্নয়নের অভ্যাসগুলো

কমলগঞ্জে বাংলদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোটের বৃক্ষ রোপন কর্মসূচী পালন

কমলগঞ্জে বাংলদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোটের বৃক্ষ রোপন কর্মসূচী পালন

কাহারোলে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে মন্দির-মসজিদসহ এতিমখানা, কবস্থান, শ্মশান এ প্রতিনিধিদের মাঝে অর্থের চেক বিতরণ করলেন -এমপি গোপাল

কাহারোলে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে মন্দির-মসজিদসহ এতিমখানা, কবস্থান, শ্মশান এ প্রতিনিধিদের মাঝে অর্থের চেক বিতরণ করলেন -এমপি গোপাল