Feedback

কুড়িগ্রাম, জেলার খবর

ঈদের মাংসতো দুরের কথা, তিনদিন ধরে ঘরে খাবার নেই

ঈদের মাংসতো দুরের কথা, তিনদিন ধরে ঘরে খাবার নেই
August 01
08:35pm
2020
খালিদ আহমেদ রাজা
কুড়িগ্রাম, কুড়িগ্রাম, প্রতিনিধি:
Eye News BD App PlayStore

সম্প্রতি নদ-নদীর পানি কমতে শুরু করায় কুড়িগ্রামের বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। তবে ঘর-বাড়ি থেকে পানি নেমে না যাওয়ায় দুর্ভোগ বেড়েছে বন্যা দুর্গত প্রায় ৪ লক্ষাধিক মানুষের। করোনা পরিস্থিতির পাশাপাশি বন্যায় কর্মহীন হয়ে পড়া এসব মানুষেরা খেয়ে না খেয়ে দিন পার করছে। যারা ঘর-বাড়ি ছেড়ে উঁচু জায়গায় আশ্রয় নিয়ে কষ্টে দিন যাপন করছে তারাও ঘরে ফিরতে পারছে না। নদী ভাঙ্গন ও বন্যায় ভেসে গেছে দুই হাজারেরও বেশি পরিবারের ঘর-বাড়ি।

বন্যা দুর্গত এলাকাগুলোতে খাদ্য সংকটের পাশাপাশি বিশুদ্ধ পানি ও গোবাদি পশুর খাদ্য চরম আকার ধারণ করেছে।

এ অবস্থায় কোরবানীর ঈদের আনন্দ মলিন হয়ে গেছে জেলার প্রায় ৪ শতাধিক চরাঞ্চলের বন্যা দুর্গত মানুষের। বিশেষ করে হতদরিদ্র পরিবারগুলো ছেলে-মেয়েদের নতুন জামা-কাপড়তো দুরের কথা এক টুকরো মাংস মুখে তুলে দেয়ার কথাও ভাবতে পারছে না তারা।

সদর উপজেলার ব্রহ্মপুত্র অববাহিকার গারুহারা চরের সাইফুর হোসেন জানান, আমরা দিনমজুরের কাজ করে দিন এনে দিন খাই। ভাইরাসের কারনে কাজ ছিল না। তার উপর বন্যা একেবারেই বসে থাকা ছাড়া উপায় নাই। ৭ জনের পরিবার নিয়ে খুব কষ্টে রয়েছি। এই এক মাসের বন্যায় মাত্র ১০ কেজি চাল পেয়েছি। তাও শেষ হয়ে গেছে। এ অবস্থায় কিভাবে ঈদের কথা ভাবতে পারি। আমাদের কোন ঈদ নেই। কুড়িগ্রামের সদর ঘোগাদহ ইউনিয়নের খামার রসুলপুর গ্রামের হাজেরা বেগম জানান, ৩/৪ মাস ধরে আমার স্বামীর হাতে কোন কাজ নেই। ঈদের মাংস তো দূরের কতা, ঘরে তিন দিন খারার নেই।

কুড়িগ্রাম সদরের যাত্রাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: আইয়ুব আলী সরকার ও ঘোগাদহ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ শাহ্ আলম জানান, পুরো ইউনিয়নের মানুষজন দীর্ঘদিন ধরে বন্যা কবলিত হয়ে খুব কষ্টে দিন যাপন করছে। এদের জন্য আরো সরকারী বেসরকারী সহযোগীতার দরকার। ঈদ উপলক্ষে প্রতিটি পরিবারকে ১০ কেজি করে চাল দেয়া হয়েছে। যা দিয়ে তারা ঈদের দিন খেতে পারবে।

All News Report

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

কুড়িগ্রামে দুই বছর পর উন্মোচিত হলো আসামী

কুড়িগ্রামে দুই বছর পর উন্মোচিত হলো আসামী

টাকা আত্মসাৎ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান রুমি

টাকা আত্মসাৎ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান রুমি

ওসি প্রদীপ কুমার দাশের গোড়া কোথায় ?

ওসি প্রদীপ কুমার দাশের গোড়া কোথায় ?

আমতলীতে ৬’শ টাকার গ্যাস ৮’শ ৫০ টাকা।  লাইব্রেরী, চায়ের দোকান ও কাপরের দোকানসহ যত্রতত্র স্থানে অবৈধভাবে বিক্রি হচ্ছে গ্যাস   সিলিন্ডার

আমতলীতে ৬’শ টাকার গ্যাস ৮’শ ৫০ টাকা। লাইব্রেরী, চায়ের দোকান ও কাপরের দোকানসহ যত্রতত্র স্থানে অবৈধভাবে বিক্রি হচ্ছে গ্যাস সিলিন্ডার

স্কুল-কলেজ খোলা ও পরিক্ষার ব্যাপারে বিবৃতি দিয়েছে শিক্ষামন্ত্রণালয়

স্কুল-কলেজ খোলা ও পরিক্ষার ব্যাপারে বিবৃতি দিয়েছে শিক্ষামন্ত্রণালয়

কুড়িগ্রামের রাজারহাটে এই বাড়িতে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়

কুড়িগ্রামের রাজারহাটে এই বাড়িতে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়

যতো দুর্নীতির   অভিযোগ এসপি মাসুদের বিরুদ্ধে

যতো দুর্নীতির অভিযোগ এসপি মাসুদের বিরুদ্ধে

ধর্মপ্রাণ ধর্মপ্রতিমন্ত্রী প্রয়োজন

ধর্মপ্রাণ ধর্মপ্রতিমন্ত্রী প্রয়োজন

আজ থেকে ১২ কেজি গ্যাসের নির্ধারিত খুচরা মূল্য ৬০০ টাকা।দাম বেশি দেখলে ৯৯৯এ কল করুন

আজ থেকে ১২ কেজি গ্যাসের নির্ধারিত খুচরা মূল্য ৬০০ টাকা।দাম বেশি দেখলে ৯৯৯এ কল করুন

১২ অগস্ট আসছে বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিন

১২ অগস্ট আসছে বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিন

ধুনটে ইউনিয়ন ক্রিকেট চ্যাম্পিয়নশিপে বিজয়ী অলোয়া রাইর্ডাস

ধুনটে ইউনিয়ন ক্রিকেট চ্যাম্পিয়নশিপে বিজয়ী অলোয়া রাইর্ডাস

মৌলভীবাজারে মানুষের মুখমন্ডলের আকৃতিতে অদ্ভুত এক বাছুরের জন্ম

মৌলভীবাজারে মানুষের মুখমন্ডলের আকৃতিতে অদ্ভুত এক বাছুরের জন্ম

বরগুনায় সিফাতের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধনে পুলিশের লাঠিপেটা; আহত ৩ জন!

বরগুনায় সিফাতের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধনে পুলিশের লাঠিপেটা; আহত ৩ জন!

যশোরে রাস্তা থেকে তুলে ঘাস ক্ষেতে নিয়ে গৃহবধুকে গণধর্ষণ ধর্ষক; আটক ৪!

যশোরে রাস্তা থেকে তুলে ঘাস ক্ষেতে নিয়ে গৃহবধুকে গণধর্ষণ ধর্ষক; আটক ৪!

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ডাক্তার, ব্যাংকারসহ আরো ৭ ব্যক্তির করোনা পজিটিভ

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ডাক্তার, ব্যাংকারসহ আরো ৭ ব্যক্তির করোনা পজিটিভ

সর্বশেষ

খুলনায় জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

খুলনায় জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

মাহাবুব কবির মিলনকে ওএসডি করা আর সৎ কর্মকর্তাদের ''অশনি সংকেত" দেওয়া এককথা- আশীষ মল্লিক

মাহাবুব কবির মিলনকে ওএসডি করা আর সৎ কর্মকর্তাদের ''অশনি সংকেত" দেওয়া এককথা- আশীষ মল্লিক

মেজর সিনহার সহযোগী শিপ্রার জামিন

মেজর সিনহার সহযোগী শিপ্রার জামিন

"সিনহা হত্যায় জড়িত সবার কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করা হবে"

"সিনহা হত্যায় জড়িত সবার কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করা হবে"

দেশের মধ্যে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের সমস্যায় পড়তে হচ্ছে

দেশের মধ্যে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের সমস্যায় পড়তে হচ্ছে

গোপালগঞ্জে ১ হাজার পরিবার উঁচু সড়কে আশ্রয়

গোপালগঞ্জে ১ হাজার পরিবার উঁচু সড়কে আশ্রয়

বাড়িতেই রান্না করুন নার্গিসি মাটন পোলাও

বাড়িতেই রান্না করুন নার্গিসি মাটন পোলাও

গবেষণা:  মস্তিষ্কের বিশেষ অঞ্চলে উদ্বেগ ও হতাশার গভীর প্রভাব পড়ে

গবেষণা: মস্তিষ্কের বিশেষ অঞ্চলে উদ্বেগ ও হতাশার গভীর প্রভাব পড়ে

রূপসায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব'র জন্ম বার্ষিকীতে আলোচনা সভা ও সেলাই মেশিন বিতরণ

রূপসায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব'র জন্ম বার্ষিকীতে আলোচনা সভা ও সেলাই মেশিন বিতরণ

মার্কিন নির্বাচনে তিন দেশ হস্তক্ষেপ করতে চাইছেঃ এনসিএসসি পরিচালকের হুঁশিয়ারি

মার্কিন নির্বাচনে তিন দেশ হস্তক্ষেপ করতে চাইছেঃ এনসিএসসি পরিচালকের হুঁশিয়ারি

আরও ‘শক্তিশালী’ ও ‘দৃঢ়’ হয়ে ফেরার আশা রোনালদোর !

আরও ‘শক্তিশালী’ ও ‘দৃঢ়’ হয়ে ফেরার আশা রোনালদোর !

ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশে করোনা সেন্টারে আগুন

ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশে করোনা সেন্টারে আগুন

কক্সবজার এখনো থমথমে

কক্সবজার এখনো থমথমে

৬০ ভাগ বর্ধিত ভাড়া প্রত্যাহারের দাবী, সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগের

৬০ ভাগ বর্ধিত ভাড়া প্রত্যাহারের দাবী, সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগের

কবিতাঃ অপরাধী আমি

কবিতাঃ অপরাধী আমি