Feedback

রাজনীতি, জাতীয়

আজ জননেতা আবদুর রাজ্জাকের জন্মদিন

আজ জননেতা আবদুর রাজ্জাকের জন্মদিন
August 01
12:34am
2020
Nazrul
Uttara, Dhaka, প্রতিনিধি:
Eye News BD App PlayStore

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মানসপুত্র বলে ডাকা হয় তাঁকে। তিনি হলেন জননেতা আবদুর রাজ্জাক। আজ তাঁর ৭৮তম জন্মবার্ষিকী। ছাত্রনেতা, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, আওয়ামী লীগের সাবেক মন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক ৬২-র শিক্ষা আন্দোলন, ৬৬-র ছয় দফা আন্দোলন ও মহান মুক্তিযুদ্ধে মুজিব বাহিনীর সেক্টর কমান্ডার ও মুক্তিযোদ্ধাদের প্রশিক্ষক ছিলেন। ১৯৭০ সালের নির্বাচন ও পরবর্তীতে স্বাধীন বাংলাদেশে ১৯৭৩, ১৯৯১, ১৯৯৬ ও ২০০৯ সালে আওয়ামী  লীগ থেকে  সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

বাংলাদেশের স্বাধিকার আন্দোলন ও মহান মুক্তিযুদ্ধের নেতৃস্থানীয় সংগঠক হিসেবে তিনি দল-মত নির্বিশেষে বাংলাদেশের সকল মানুষের প্রিয় নেতা। তিনি ১৯৬৬-৬৭, ১৯৬৭-৬৮ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, ১৯৭৯ ও ১৯৮১ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯১ সাল থেকে আমৃত্যু তিনি আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ছিলেন।  

১৯৪২ সালের ১ আগস্ট শরীয়তপুরের ডামুড্যা উপজেলার দক্ষিণ ডামুড্যা গ্রামে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম ইমাম উদ্দিন এবং মাতার নাম বেগম আকফাতুন্নেছা। তিনি ১৯৫৮ সালে ডামুড্যা মুসলিম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি এবং ১৯৬০ সালে ঢাকা কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। এরপর তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে রাষ্ট্রবিজ্ঞান থেকে ১৯৬৪ সালে অনার্স এবং পরে মাস্টার্স পাস করেন। এরপর তিনি এলএলবি পাস করেন এবং ১৯৭৩ সালে আইনজীবী হিসেবে বার কাউন্সিলে নিবন্ধিত হন।

আইয়ুব খানের শাসনামলে ১৯৬৪ সালে প্রথম তিনি গ্রেপ্তার হন এবং ১৯৬৫ সাল পর্যন্ত জেল খাটেন। কারাগার থেকেই মাস্টার্স পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। ৬ দফা আন্দোলন করতে গিয়েও ১৯৬৭ সাল থেকে ১৯৬৯ সাল পর্যন্ত তিনি কারারুদ্ধ ছিলেন।

মুক্তিযুদ্ধে আব্দুর রাজ্জাক ভারতের মেঘালয়ে মুজিব বাহিনীর সেক্টর কমান্ডার (মুজিব বাহিনীর ৪ সেক্টর কমান্ডারের একজন) ছিলেন। তিনি দেরাদুনে ভারতের সেনাবাহিনীর জেনারেল উবানের কাছে প্রশিক্ষণ নিয়েছিলেন ও পরে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রশিক্ষণ দেন। মুজিব বাহিনী গঠনেও অন্যতম রূপকার ছিলেন রাজ্জাক।

১৯৭৫ সালে ঘাতকরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করলে আব্দুর রাজ্জাক পুনরায় গ্রেপ্তার হন। ১৯৭৮ সাল পর্যন্ত তিনি কারাবন্দী ছিলেন। স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনের সময় ১৯৮৭ সালেও আব্দুর রাজ্জাককে গ্রেপ্তার করা হয়।

১৯৯৬ সালে নির্বাচনে জিতে তিনি আওয়ামী লীগ সরকারের পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করেন। আর ২০০৯ সালে একই মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত  সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি হন। ২০১১ সালের ২৩ ডিসেম্বর তিনি লন্ডনের একটি হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। তাঁকে বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয়।

All News Report

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

টাকা আত্মসাৎ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান রুমি

টাকা আত্মসাৎ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান রুমি

সিলেটে মোটরসাইকেলে বোমাসদৃশ বস্তু: বহিস্কৃত সেই সার্জেন্টের বাড়ি রাজনগরের মুন্সিবাজারে!

সিলেটে মোটরসাইকেলে বোমাসদৃশ বস্তু: বহিস্কৃত সেই সার্জেন্টের বাড়ি রাজনগরের মুন্সিবাজারে!

যতো দুর্নীতির   অভিযোগ এসপি মাসুদের বিরুদ্ধে

যতো দুর্নীতির অভিযোগ এসপি মাসুদের বিরুদ্ধে

জানা গেলো  ওসি প্রদিপের ফোনালাপের সেই পরামর্শদাতার পরিচয়

জানা গেলো ওসি প্রদিপের ফোনালাপের সেই পরামর্শদাতার পরিচয়

স্মার্টফোন ক্রয়ে শিক্ষার্থীদের তালিকা করতে ইউজিসির নির্দেশনা প্রদান

স্মার্টফোন ক্রয়ে শিক্ষার্থীদের তালিকা করতে ইউজিসির নির্দেশনা প্রদান

চট্রগ্রামে কিশোরীকে জোরপূর্বক দেহব্যবসা করানোর অভিযোগ বিউটি পার্লারের মালিকসহ গ্রেফতার ৫ জন!

চট্রগ্রামে কিশোরীকে জোরপূর্বক দেহব্যবসা করানোর অভিযোগ বিউটি পার্লারের মালিকসহ গ্রেফতার ৫ জন!

অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ালো ঢাবির ভাষাবিজ্ঞান বিভাগ

অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ালো ঢাবির ভাষাবিজ্ঞান বিভাগ

করোনা চিকিৎসায় 'বিস্ময়কর সফল’ আইভারমেকটিন, বাংলাদেশে শতভাগ

করোনা চিকিৎসায় 'বিস্ময়কর সফল’ আইভারমেকটিন, বাংলাদেশে শতভাগ

অভিযুক্তদের বদলি কোন শাস্তি নয়, এখন থেকে শুরু বরখাস্তঃ স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

অভিযুক্তদের বদলি কোন শাস্তি নয়, এখন থেকে শুরু বরখাস্তঃ স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় আদালতে মামলা চলাকালে জোর করে জমি  ও রাস্তা দখলের চেষ্টার অভিযোগ

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় আদালতে মামলা চলাকালে জোর করে জমি ও রাস্তা দখলের চেষ্টার অভিযোগ

ওসির হাতে থাপ্পড় খেলো দারগা,অনলাইন এ ভিডিও ভাইরাল

ওসির হাতে থাপ্পড় খেলো দারগা,অনলাইন এ ভিডিও ভাইরাল

নারীসহ আপত্তিকর অবস্থায় আটক দিনাজপুর জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান

নারীসহ আপত্তিকর অবস্থায় আটক দিনাজপুর জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান

চাঁদাবাজি নিয়ন্ত্রণে প্রদীপের ৩৫ জনের প্রাইভেট টিম

চাঁদাবাজি নিয়ন্ত্রণে প্রদীপের ৩৫ জনের প্রাইভেট টিম

মেজর সিনহার সহযোগী শিপ্রার জামিন

মেজর সিনহার সহযোগী শিপ্রার জামিন

বাঞ্ছারামপুরে তুচ্ছ ঘটনায় প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে ব্যবসায়ী খুন

বাঞ্ছারামপুরে তুচ্ছ ঘটনায় প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে ব্যবসায়ী খুন

সর্বশেষ

স্কুল খুলতে চাওয়া যুক্তরাষ্ট্রে ১৪ দিনেই করোনায় আক্রান্ত ৯৭ হাজার শিশু

স্কুল খুলতে চাওয়া যুক্তরাষ্ট্রে ১৪ দিনেই করোনায় আক্রান্ত ৯৭ হাজার শিশু

৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

সিনহা হত্যা: ১০ দিন করে রিমান্ডের আবেদন করেছে র‌্যাব

সিনহা হত্যা: ১০ দিন করে রিমান্ডের আবেদন করেছে র‌্যাব

তরুনীকে বিয়ের প্রলোভনে দৈহিক মিলন,মামলা নেয়নি পুলিশ

তরুনীকে বিয়ের প্রলোভনে দৈহিক মিলন,মামলা নেয়নি পুলিশ

আসুন পিঁপড়ার কাছ থেকে আমরা বাঁচা-মরা শিখি!

আসুন পিঁপড়ার কাছ থেকে আমরা বাঁচা-মরা শিখি!

অনেক আগেই বলিউডে আসার কথা ছিল সানির

অনেক আগেই বলিউডে আসার কথা ছিল সানির

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে সরকারের অবস্থান জানালেন কাদের

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে সরকারের অবস্থান জানালেন কাদের

সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে বিস্ফোরক তথ্য দিল অ্যাম্বুলেন্স চালক

সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে বিস্ফোরক তথ্য দিল অ্যাম্বুলেন্স চালক

সিনহার সঙ্গে আমার পরিচয় ছিল না: ইলিয়াছ কোবরা

সিনহার সঙ্গে আমার পরিচয় ছিল না: ইলিয়াছ কোবরা

সৈয়দপুরে রানিং ইউপি মেম্বার পাচ্ছেন বয়স্কভাতা

সৈয়দপুরে রানিং ইউপি মেম্বার পাচ্ছেন বয়স্কভাতা

টঙ্গীতে যৌন হয়রানির অভিযোগে  শিক্ষক আটক

টঙ্গীতে যৌন হয়রানির অভিযোগে শিক্ষক আটক

আরও ২ মন্ত্রীর পদত্যাগ, ভাঙনের ঝুঁকিতে লেবাননের সরকার

আরও ২ মন্ত্রীর পদত্যাগ, ভাঙনের ঝুঁকিতে লেবাননের সরকার

ভয়াবহ বোমায় কেঁপে উঠল পাকিস্তা, নিহত ৬

ভয়াবহ বোমায় কেঁপে উঠল পাকিস্তা, নিহত ৬

হোমনায় “কাশিপুর তরুণ প্রজন্মে’র” পুর্নাঙ্গ কমিটি গঠন ও ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

হোমনায় “কাশিপুর তরুণ প্রজন্মে’র” পুর্নাঙ্গ কমিটি গঠন ও ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

টাকা দিয়ে নকল ভক্ত বানাচ্ছেন বলিউড তারকারা

টাকা দিয়ে নকল ভক্ত বানাচ্ছেন বলিউড তারকারা