About Us
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১
Md. Omar Faruk - (Bogura)
প্রকাশ ৩০/০৭/২০২১ ১২:৫২এ এম

খাদ্যশস্য মজুতে রেকর্ড করতে যাচ্ছে সরকার

খাদ্যশস্য মজুতে রেকর্ড করতে যাচ্ছে সরকার Ad Banner
নারীদের সফলতা উদযাপানে শুরু হচ্ছে 'ওয়াও ভার্চুয়াল বাংলাদেশ ২০২১' শীর্ষক দুই দিনব্যাপী অনলাইন উৎসব।বাংলাদেশে প্রথমবারের মত অনলাইনে এই উৎসব আয়োজিত হচ্ছে। 'ওয়াও' মূলত ‘নারী ও কিশোরীরে একটি উৎসব, যেখানে তারা তাদের এগিয়ে যাওয়ার সাহসী গল্প এবং বিনোদনমূলক বিভিন্ন পরিবেশনা উপস্থাপন করে থাকেন।

ব্রিটিশ কাউন্সিল, সিসিডি বাংলাদেশ এবং মঙ্গল দ্বীপ ফাউন্ডেশন-এর যৌথ উদ্যোগে বৃহস্পতিবার রাত ৯ টায়, প্রথমবারের মত অনলাইনে শুরু হবে নারী ও কিশোরীদের উৎসব ‘ওয়াও ভার্চুয়াল বাংলাদেশ’। ২৯ এবং ৩০ জুলাই আয়োজিত এই উৎসব চলবে প্রতিদিন রাত ৯ টা থেকে ৯ টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত। অনলাইনের মাধ্যমে সারা দেশে পালিত দু’দিন ব্যাপী এই উৎসবটির মূল উদ্দেশ্য নারী এবং কিশোরীদের গুরুত্বপূর্ণ কথাগুলো সবার মাঝে তুলে ধরা। সমাজের সংখ্যালঘু বা মূলধারার অন্তর্গত নয় এমন নারীদের সাফল্যের পাল্টা গল্প বা উপাখ্যান এখানে প্রদর্শিত হবে।

বৃটিশ নাগরিক, জুড কেলি, সিবিই কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত, 'ওয়াও –উইমেন অব দ্যা ওয়ার্ল্ড' একটি আন্তর্জাতিক উৎসব, যা নারী, মেয়ে শিশু এবং রুপান্তরিত মানুষদের কৃতিত্বকে স্বীকৃতি দেয় এবং বিশ্বজুড়ে তারা যে সব প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হন তা নিরসণে কাজ করে। সংগঠনটির উদ্যোগে বাংলাদেশের প্রায় গুলো বিভাগেই 'ওয়াও চ্যাপ্টার' নামে নিয়মিত কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে। বিভাগীয় এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের নারী এবং কিশোরী জন্য তৈরি হচ্ছে নতুন প্ল্যাটফর্ম। যেখানে তারা একই সাথে খুঁজে বের করছে নারীর সম্ভাবনা অর্জনের পথের বাঁধাগুলোকে।

'ওয়াও' উৎসব এর আগে ২০১৭ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী, রংপুর এবং সিলেটে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ বছর করোনা মহামারির কারণে ওয়াও উৎসব 'ওয়াও ভার্চুয়াল বাংলাদেশে' শীর্ষক অনলাইনে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সেখানে বিভিন্ন বিভাগীয় শহর যেমন ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী, রংপুর এবং সিলেটের নারী উদ্যোক্তাদের সফলতার গল্পগুলো উপস্থাপন করা হচ্ছে।

'ওয়াও' ভার্চুয়াল বাংলাদেশ সবার জন্য উন্মুক্ত একটি অনলাইন উৎসব। অনলাইনে অনুষ্ঠিত এই উৎসবটি ২৯ ও ৩০ জুলাই রাত ৯ টায় ব্রিটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশ, সিসিডি বাংলাদেশ এবং মঙ্গল দ্বীপ ফাউন্ডেশনের ফেসবুক পেজের মাধ্যমে সরাসরি প্রচারের পাশাপাশি রেডিও স্বাধীন ৯২.৪ এফএম এবং রেডিও পদ্মা নিউজ ৯৯.২ এফএম এর মাধ্যমে একই সময়ে সম্প্রচারিত হচ্ছে।

এবারের অনলাইন উৎসবে রয়েছে তিনটি অংশ – প্রথমটি 'ওয়াও বাইটস', যেখানে রয়েছে সাহসী নারীদের জীবনে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন প্রতিকূলতা ও সফলতার কথা। দ্বিতীয়টি-র নাম 'ওয়াও মার্কেটপ্লেস'। যেখানে তুলে ধরা হয়েছে সেই সব নারী উদ্যোক্তাদের কথা, যারা করোনা মহামারির মধ্যেও পিছিয়ে না থেকে অনলাইন ব্যবসার মাধ্যমে সফলতা অর্জন করেছেন। উৎসবের তৃতীয় অংশের নাম - ওয়াও পপ-আপ পারফরম্যান্স। যেখানে একইভাবে রয়েছে বিভিন্ন বিভাগের প্রতিভাবান শিল্পী ও কুশলীদের নাচ, গান, আবৃত্তি ও একক পরিবেশনা। যার মাধ্যমে দর্শক-শ্রোতারা পাচ্ছেন উৎসাহমূলক গল্পের পাশাপাশি বিনোদনের খোরাক।

এই উৎসবের আয়োজক, মঙ্গল দ্বীপ ফাউন্ডেশনের চেয়ারপারসন ও অভিনেত্রী সারা যাকের বলেন, ওয়াও উৎসবে'র বিশেষত্ব হচ্ছে, প্রত্যেকটা কাজেই একটা সৃজনশীলতা থাকে। এই উৎসবের মাধ্যমে শুধু নারীর সফলতা নয়, পুরুষ ও নারীর একসাথে এগিয়ে চলাকেও আমরা উদযাপন করছি। আমরা নারী ও পুরুষের একটা সমান বিশ্ব তৈরি করতে চাই।

এই অনলাইন উৎসবে যোগ দিয়েছেন, ওয়াও বাইটসে - প্রফেসর ড. শরীফা সালওয়া দিনা (বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম মহিলা উপ-উপাচার্য), তাসনুভা আনান শিশির (বাংলাদেশের প্রথম ট্রান্সজেন্ডার নারী সংবাদ উপস্থাপিকা), মুক্তি রানী বালা (দেশের প্রথম মহিলা হিন্দু বিবাহ নিবন্ধক), তানজিলা (রেল ক্রসিংয়ে দেশের প্রথম মহিলা গেট কিপার), স্বর্ণলতা রায় (প্রেসিডেন্ট, সিলেট মহিলা চেম্বার অব কমার্স), পিনাকী ভট্টাচার্জী (ক্র্যাক প্লাটুনের অধীনে আত্মরক্ষার সহকারী প্রশিক্ষক) এবং তানজিলা সুলতানা (ময়মনসিংহ জেলা মহিলা এবং ই-কমার্স ফোরাম এর প্রতিনিধি )। মার্কেটপ্লেস-এ, সুমাইয়া ইসলাম চৈতি (চৌবাচ্চা), রাবেয়া মারুফ (সুলতানা’স ড্রিম), শারমিন আক্তার লুনা (ফুড আর্ট অব বরিশাল), রোজিনা আক্তার (ঝিয়ারি), সাবিহা আক্তার বিথি (রঙ্গিন বাগিচা) ফারহানা ইয়াসমিন (নকশি কারুকাজ) এবং আইনুন নাহার মুনমুন (দারুচিনি কাব্য)। এছাড়াও দর্শক এবং শ্রোতাদের জন্য থাকছে শিল্পী নিশিতা বড়ুয়া, সাবিত্রি হেব্রাম, শুভ্র বিশ্বাস, শেখ দিনা ও তন্বী, মনিরা রহমান মিঠু, শুভ্রা বিশ্বাস এবং জাকিয়া সুলতানা কর্নিয়ার দুর্দান্ত সব উপস্থাপনা।

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ