About Us
Md.Rakibul Hang - (Chattogram)
প্রকাশ ২১/০৭/২০২১ ০২:৪৩পি এম

*চট্টগ্রামে ঈদের জামাতে করোনা থেকে মুক্তির প্রার্থনা*

*চট্টগ্রামে ঈদের জামাতে করোনা থেকে মুক্তির প্রার্থনা* Ad Banner
জমিয়তুল ফালাহ্ জাতীয় মসজিদ প্রাঙ্গণে ঈদুল আজহার জামাতে প্রাণঘাতি মহামারি করোনাভাইরাস থেকে মুক্তি এবং দেশ, জাতি ও বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ কামনা করে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়েছে।

করোনাকালে বিধিনিষেধ ও স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। মসজিদে মসজিদে ঈদের নামাজে অংশ নিয়েছেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। একই সময়ে চট্টগ্রামের প্রতিটি মসজিদে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (২১ জুলাই) সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে প্রথম ও প্রধান জামাতে ইমামতি করেন জমিয়তুল ফালাহ মসজিদের খতিব হযরতুল আল্লামা সৈয়দ আবু তালেব মোহাম্মদ আলাউদ্দীন আল কাদেরী।
মোনাজাতে মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনায় আল্লাহর দরবারে ফরিয়াদ জানায় হাজারও হাত। খতিব ও ইমাম করোনাভাইরাস থেকে দেশ ও জাতিকে বাঁচাতে আল্লাহর রহমত কামনা করেন। এ সময় ‘আমিন আমিন’ ধ্বনিতে মুখরিত হয় জমিয়তুল ফালাহ প্রাঙ্গণ।

এরপর সকাল ৮টা ৩০ মিনিটে দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হয়। দ্বিতীয় জামাতে ইমামতি করেন জমিয়তুল ফালাহ্ মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা নুর মুহাম্মদ সিদ্দিকী। নামাজ শেষে খুতবা পাঠ করা হয়। এরপর দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন লালদীঘি শাহী জামে মসজিদে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয় সকাল সাড়ে ৭টায়। নগরে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধানে সকাল সাড়ে ৭টায় সুগন্ধা আবাসিক এলাকা জামে মসজিদ, হযরত শেখ ফরিদ (র.) চশমা মসজিদ ঈদগাহ, চকবাজার সিটি করপোরেশন জামে মসজিদ ও চসিক মা আয়েশা সিদ্দিকা জামে মসজিদে (সাগরিকা জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়াম সংলগ্ন) ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নামাজ শেষে সামর্থবান মুসল্লীরা আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য কোরবানি পশু জবাই করেন। কোরবানি মানে শুধু পশু জবাই নয়। কবির ভাষায় ঈদুল আজহা মানে ‘সত্যাগ্রহের শক্তির উদ্বোধনের দিন; মনের পশু হত্যা করার দিন’। ত্যাগের দিন হলেও তো ঈদ বলে কথা! তার ওপর কয়েক দিনের ‘গরুখোঁজা’। তবু ক্লান্তি নেই।

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ