About Us
Sanjoy malakar - (Moulvibazar)
প্রকাশ ১৮/০৭/২০২১ ০৫:২৩পি এম

শ্রীমঙ্গলে ছুরিকাঘাতে এক যুবক খুন

শ্রীমঙ্গলে ছুরিকাঘাতে এক যুবক খুন Ad Banner
মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গলে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে শরীফ নামে এক যুবক খুন হয়েছে। মৃত্যুর আগ মুহূর্তে শরীফ নিজের নাম এবং সজিব নামে এক ব্যক্তি তাকে ছুরিকাঘাত করেছেন বলে জানান।
মৃত্যুর আগ মুহূর্তের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে জনমনে দেখা দেয় তীব্র প্রতিক্রিয়া।
শনিবার রাত ৯টার দিকে শহরের কলেজ রোডে প্রেসক্লাবের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঘটনার সময় প্রেসক্লাবের সামনে ছুরিকাঘাতে মারাত্মক আহত অবস্থায় ওই যুবক ছটফট করছিলেন। লোকজন এগিয়ে গেলে তিনি নিজের নাম শরীফ এবং শহরতলীর শাহজিবাজার এলাকার শায়েস্তা মিয়ার ছেলে বলে জানান। শান্তিবাগ এলাকার সজিব নামে এক ব্যক্তি তাকে ছুরিকাঘাত করেছে বলে জানিয়েছেন।

শরীফের মৃত্যুর আগে দেয়া জবানবন্দি রেকর্ড করেন দৈনিক যুগান্তরের শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি আবু জাফর সৈয়দ সালাউদ্দিন। পরে তা ফেসবুকে পোস্ট দিলে শহরজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। একই সাথে তিনি ফায়ার সার্ভিস ও শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ কর্মকর্তাদের কাছে ফোন করে আহত যুকবকে উদ্ধারে সহায়তা চান। এসময় ফায়ার সার্ভিস থেকে বিষয়টি ‘পুলিশ কেস’ বলে এড়িয়ে যায়। তবে শ্রীমঙ্গল থানার ওসি (তদন্ত) ফোর্স নিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে শরীফকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পর সেখানকার চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। শ্রীমঙ্গল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক আবু নাহিদ বলেন, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হতে পারে। এসময় পুলিশ দুটি ছুরি উদ্ধার করেছে। এর একটি শরীফের পেটে গাঁথা ছিল।

শ্রীমঙ্গল থানার ওসি (তদন্ত) হুমায়ুন কবির জানান, শরীফ শহরতলীর শাহজীবাজার এলাকার শায়েস্তা মিয়ার ছেলে। ছুরিকাঘাতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু ঘটতে পারে।
শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুস ছালেক জানান, নিহত ও অভিযুক্ত উভয়ই পরস্পর বন্ধু। তারা প্রথমে শহরের একটি পেট্রল পাম্পের কাছে ঝগড়া করে। এর জের ধরে শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবের কাছে শরীফকে ছুরিকাঘাত করা হয়।

শরীফের পকেটে সজিবের মোবাইল ফোন ও হাতে একটি ছুরি ছিল। তার বুকের মাঝামাঝি জায়গায় ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে।সজীবকে ধরতে অভিযান চলছে,অতি দ্রুত তাকে আইনের আওতায় আনা হবে।

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ