About Us
মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১
  • সোশ্যাল প্ল্যাটফর্ম:
Elman Hossen - (Tangail)
প্রকাশ ১৮/০৭/২০২১ ০৬:৩৮পি এম

ভারত আফগান সরকারের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিল

ভারত আফগান সরকারের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিল Ad Banner
আফগানিস্তান থেকে ন্যাটো ও যুক্তরাষ্ট্র সেনা সরিয়ে নেয়ার শেষ প্রান্তে। আগামী ৩১ আগস্টের মধ্যে আফগান অভিযান শেষ করবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেট জো বাইডেন। এর মধ্যেই মহাবিপর্যয়ের দ্বারপ্রান্তে আফগানিস্তান। মার্কিন সেনা যত সরছে ততই এগিয়ে আসছে তালেবান যোদ্ধারা। রীতিমত অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে দেশটিতে। একের পর এক শহরের দখল নিচ্ছে তালেবান। এই অবস্থায় যুদ্ধ বিধ্বস্ত আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানির সঙ্গে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর বৈঠক করেছেন। বৈঠকে আফগানিস্তানের পাশে থাকার বার্তা দিয়েছেন তিনি।

গত বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) থেকে উজবেকিস্তানের রাজধানী তাসখন্দে আয়োজিত একটি আঞ্চলিক সম্মেলনে আফগান প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠক করেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। সেখানেই তিনি আফগানিস্তান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন। এর আগে ১৩ ও ১৪ জুলাই তাজিকিস্তানের রাজধানী দুশানবেতে আফগানিস্তান সম্পর্কিত সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার (এসসিও) পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের এক গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে যোগ দেন জয়শঙ্কর। সেখান থেকে তিনি তাসখন্দ সফরে যান। আর সেখানে গিয়েই আফগান প্রেসিডেন্টের সঙ্গে দেখা করেন তিনি।

জয়শঙ্কর বলেছেন, তালেবানদের মোকাবিলা করতে হবে উন্নয়ন দিয়ে। আফগানিস্তানের শান্তি, স্থিতিশীলতা আর উন্নয়নের জন্য ভারত সবধরনের সহযোগিতা করবে। আশরাফ ঘানির সঙ্গে বৈঠকের বিষয়টি তুলে ধরে এস জয়শঙ্কর সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি বার্তা দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, আফগানিস্তানের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এই অবস্থায় ভারত আফগান সরকারের পাশে থাকার সবরকম প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

জয়শঙ্কর আরো বলেছেন, ভারত দেড় লাখ টন গম সরবরাহ করে আফগানিস্তানে মানবিক সহায়তা অব্যাহত রাখবে।
সাংহাই কর্রোপেরেশন সংস্থার বৈঠকেও এস জয়শঙ্কর পাকিস্তান আর চীনের দিকে আঙুল তুলেছেন সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে। সেই বৈঠকে তিনি বলেছেন, সন্ত্রাসবাদের জন্য অর্থায়ন অবিলম্বে বন্ধ করা জরুরি। একই সঙ্গে তিনি বলেছিলেন বর্তমান অফগানিস্তানের পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে উন্নয়ন আর জনস্বাস্থ্যের দিকে নজর দেওয়া প্রাথমিক কর্তব্য।

এর আগেই জয়শঙ্কর আফগান পররাষ্ট্রমন্ত্রী হানিফ আতমারের সঙ্গে তাজিকিস্তানে সাক্ষাৎ করেছিলেন। গোটা বিশ্ব আফগানিস্তানে তালিবানদের উত্থানে যখন উদ্বিগ্ন তখন ভারত আফগান নাগরিকদের উন্নয়ন নিয়েই কথা বলেছিল। ইতোমধ্যেই ভারত আফগানিস্তান থেকে কনসুলেট কর্মী ও কর্মকর্তাদের সরিয়ে নিয়েছে। কিন্তু তারপরেও দেশটির শান্তি আর উন্নয়নের জন্য কথা চালিয়ে যাচ্ছে। আফগানিস্তানের উন্নয়নের জন্য আগেই ভারত তিন বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছে।

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ