About Us
Real Tonmoy - (Dhaka)
প্রকাশ ১৮/০৭/২০২১ ০১:২৬এ এম

জমে উঠেছে খিলক্ষেত কাওলার শিয়ালডাঙ্গা কোরবানির হাট

জমে উঠেছে খিলক্ষেত কাওলার শিয়ালডাঙ্গা কোরবানির হাট Ad Banner
আর মাত্র কয়েকদিন পরেই পবিত্র ঈদুল আযহা । ঈদুল আযহাকে সামনে রেখে জমে উঠেছে রাজধানীর সব পশুর হাটগুলো। বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে হাটে তুলা হচ্ছে গরু,মহিষ,ছাগল,ভেড়া । ক্রেতা বিক্রেতার আনা গোনায় যেন মুখরিত সব হাটগুলো।

আজ শনিবার (১৭ জুলাই) বিকেলে সরেজমিনে খিলক্ষেতের কাওলায় অবস্থিত বনরুপা সংলগ্ন আশিয়ান সিটির শিয়ালডাঙ্গা কোরবানির হাটে দেখা যায় ক্রেতাদের ভিড়। বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্তের গরু নিয়ে আসা হয়েছে এই হাটে। তাই দূর দুরান্ত থেকে নিজেদের পছন্দের কোরবানির পশুটি নিতে আসছেন ক্রেতারা। তবে এই ক্রান্তিকালে গরুর যেমন দাম পাচ্ছেন না বিক্রেতা, তেমনি সন্তুষ্ট নন ক্রেতাগনও। অনেকেই আবার নিয়ে যাচ্ছেন পছন্দের গরু।তবে সবকিছু মিলিয়ে হাট বেশ জমে উঠেছে এমনটাই দাবী করছেন হাটে আসা ক্রেতা বিক্রেতারা।

লক্ষণীয় বিষয় হলো এখনো ট্রাক ভরে গরু আসছে এই হাটে। সন্ধ্যার একটু আগেও গরু বোঝাই ট্রাক হাটে প্রবেশ করছে। দেশের প্রত্যন্ত এলাকা থেকে ট্রাকে ট্রাকে হাটে আসছে গরু-মহিষ ও ভেড়া-ছাগল।

তবে একটি বিষয় লক্ষণীয় যে, আশিয়ান সিটির শিয়ালডাঙ্গা কোরবানির হাটে স্বাস্থবিধি মানার উপরে বেশ জোর আরোপ করা হয়েছে। হাটে ঢুকতে প্রধান গেইটে স্বেচ্ছাসেবক দল মাস্ক ছাড়া কাওকেই হাটে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না। গেইটের পাশেই করা হয়েছে সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা। রয়েছে গেইটে তাপমাত্রা মাপার যন্ত্র। তাছাড়াও স্বেচ্ছাসেবকদের হাটে ঘুরে ঘুরে সবাইকে মাস্ক পরে থাকতে উৎসাহিত করতে দেখা গেছে। চলছে জনসচেতনতামূলক মাইকিং।তাছাড়াও হাটে রয়েছে করোনা সুরক্ষা কর্ণার, রয়েছে জাল নোট সনাক্ত করনের বুথ।

ইসলাম ধর্মালম্বী মানুষের ২য় বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল আযহা। ত্যাগের মহিমায় উদ্ভাসিত এ উৎসবে মুসলমানরা আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে তাদের প্রিয় বস্তু অর্থাৎ পশু কোরবানি করেন। আগামি ২১ জুলাই বুধবার দেশে পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপিত হবে।নিজেদের সাধ্যমত কোরবানির পশু কিনতে তাই হাটে ছুটছেন ধর্মপ্রাণ মানুষ।

১৪ দিন কঠোর লকডাউনের পর কোরবানির ঈদ সামনে রেখে লকডাউন শিথিল করে পশুর হাটগুলো খুলে দেওয়া হয়েছে। তবে শর্ত হিসেবে প্রশাসনিক ১২ টি নির্দেশনা মেনে চলার বাধ্যবাধকতা রাখা হয়েছে। যার প্রধান বিষয় হলো পশুর হাটগুলো স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবে। অর্থাৎ করোনা রুখতে মাস্ক পরতে হবে, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে, ক্রেতা-বিক্রেতাসহ সবাইকে স্বাস্থ্যসচেতন থেকে সরকারি বিধি মানতে হবে।

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ