About Us
Md.Abu Nasim Molla - (Rajshahi)
প্রকাশ ২৪/০৬/২০২১ ০১:০৫এ এম

রাজশাহীর দূর্গাপুরে ০৬ নং মাড়িয়া ইউনিয়নে জন্ম সনদ সংশোধন এবং ভোগান্তি

রাজশাহীর দূর্গাপুরে ০৬ নং মাড়িয়া ইউনিয়নে জন্ম সনদ সংশোধন এবং ভোগান্তি Ad Banner

রাজশাহীর দূর্গাপুরে ০৬ নং মাড়িয়া ইউনিয়নের প্রায় ১৫ হাজার মানুষের মধ্যে অধিকাংশ মানুষের নিজের নাম, পিতার নাম বিশেষ করে জন্ম তারিখ ভুল। সেটি নিয়ে বিপাকে পড়েছেন হাজারো শিক্ষার্থী এবং অভিভাবক। হাজারো দৌড়াদৌড়ি এবং অতিরিক্ত ফি তবুও মিলছে না কাঙ্ক্ষিত ফল।

এবিষয়ে আব্দুল মোতালেব নামে এক ভুক্তভোগী জানান, তার ছেলের জন্ম সনদের একাধিক ভুল সংশোধনের জন্য একটি কাগজ বের করতেই ১০০ টাকা নিলো মিজান, সেটি পূরন করে জমা দিতে আবার নিলো ৫০ টাকা।শেষে কাজের কাজ কিছুই হলোনা।একটি টাকা নেওয়ার রশিদও দিলো না। যার থেকে যেভাবে পারছে টাকা নিচ্ছে,মগের মুল্লুক পাইছে।

ভার্সিটি পড়ুয়া মনিরুজ্জামান জানান, ভুল সংশোধনের ফি দিয়ে প্রায় তিন মাসের বেশি সময় ধরে ঘুরতেছি।কোনো সমাধান পাইনি এখনো।জানি না কবে এর সঠিক সমাধান পাবো আল্লাই ভালো জানে।
প্রকৃত অর্থে মাড়িয়া ইউপির জন্মসনদের তারিখ সংশোধন ফি ১০০ টাকা ও নাম ঠিকানা সংশোধন ফি ৫০ টাকা নির্ধারিত রয়েছে। কিন্তু মানুষ ভেদে বিভিন্ন অংকের অর্থ আদায় করা হচ্ছে।
খোঁজ নিয়ে দেখা যায়, সেবা নিতে আসা মানুষের লম্বা লাইন। একেকজন একেক রকম সমস্যা নিয়ে আসছে।টাকা ঠিকই দেওয়া হচ্ছে কিন্তু মিলছে না সমাধান।

এ মাড়িয়া ইউপির সচিব হাসানুজ্জামানের সঙ্গে কথা বললে তিনি জানান, ১৫-১৬ হাজার নয় কিছু ভুল হয়েছে। এটা সারা বাংলাদেশে একই অবস্থা। আর নির্ধারিত ফী ৫০ টাকার বেশি নেওয়া হচ্ছে না এমন অভিযোগ ভিত্তিহীন।

উক্ত ইউপি চেয়ারম্যান হাসান ইমাম ফারুক (সুমন) জানান, এগুলো পূর্বের হালনাগাদের ভুল। নির্ধারিত ফী এর বেশি নেওয়া হচ্ছে এমন অভিযোগ পাইনি, পেলে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও মহসিন মৃধা জানান, আমার কাছে সকল আবেদন নিষ্পত্তি হয়েছে নতুন করে কোনো অবেদন জমা নেই। ফি ৫০ টাকার বেশি নেওয়া সুযোগ নেই এমন অভিযোগ পেলে ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ