About Us
Md. Razib Hossain - (Kushtia)
প্রকাশ ২২/০৬/২০২১ ০৪:২০পি এম

চুয়াডাঙ্গায় করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত ৮২ জন

চুয়াডাঙ্গায় করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত ৮২ জন Ad Banner

চুয়াডাঙ্গায় গত ২৪ ঘণ্টায় ১২৫টি নমুনা পরীক্ষায় ৮২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ হিসেবে আক্রান্তের হার ৬৫ দশমিক ৬ শতাংশ। এ বছরের এটিই একদিনের সর্বোচ্চ সংখ্যক শনাক্তের রেকর্ড। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা উপসর্গ নিয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার (২২ জুন) সকালে চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন ডা. এএসএম মারুফ হাসান এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।চুয়াডাঙ্গা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা জেলায় নতুন শনাক্ত ৮২ জনের মধ্যে চুয়াডাঙ্গা সদরে ৩৫ জন, দামুড়হুদায় ২০ জন, আলমডাঙ্গায় সাতজন এবং জীবননগর উপজেলায় ২০ জন। এ পর্যন্ত চুয়াডাঙ্গায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২ হাজার ৭৩২ জন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩১ জন সুস্থসহ মোট সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ১০ জন। জেলায় মোট মারা গেছেন ৮৪ জন। এর মধ্যে জেলায় ৭৪ জন এবং জেলার বাইরে ১০ জন রয়েছেন।বর্তমানে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৬৩৮ জন। এর মধ্যে হোম আইসোলেশন ৫৮৪ জন। হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৫০ জন এবং রেফার আছেন চারজন।

ক্রমাগত করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় বুধবার (২৩ জুন) সকাল ৬টা থেকে জীবননগর উপজেলা কঠোর লকডাউনের আওতায় নেয়া হচ্ছে। চুয়াডাঙ্গা জেলা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।এর আগে রোববার (২০ জুন) সকাল ৬টা থেকে চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকাসহ সদর উপজেলার আলুকদিয়া ইউনিয়নে সাতদিনের জন্য কঠোর লকডাউন শুরু হয়েছে। ১৫ জুন লকডাউন করা হয় জেলার সীমান্তবর্তী দামুড়হুদা উপজেলা।জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার বলেন, ‘চুয়াডাঙ্গায় আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। এর প্রতিরোধে সবাইকে দায়িত্বশীল হওয়া এখন খুবই জরুরি। সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।’


চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন ডা. এএসএম মারুফ হাসান বলেন, ‘প্রশাসনের বেঁধে দেয়া স্বাস্থ্যবিধি না মানলে জেলায় করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ ধারণ করবে। তাই সবাইকে মাস্ক ব্যবহার এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচল করতে হবে।’



শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ