About Us
md rabiul alam - (Comilla)
প্রকাশ ১৯/০৬/২০২১ ০৩:৫৭পি এম

কুমিল্লায় কাঁটাবিল ঐক্য ফোরামের উদ্যোগে মাদক বিরোধী আন্দোলন

কুমিল্লায় কাঁটাবিল ঐক্য ফোরামের উদ্যোগে মাদক বিরোধী আন্দোলন Ad Banner
চল যাই যুদ্ধে,মাদকের বিরুদ্ধে। মাদক মুক্ত সমাজ হোক তারুণ্যের অহংকার। মাদক নয় শিক্ষা চাই, মাদক মুক্ত সমাজ গড়তে চাই। এমনই শ্লোগানে শ্লোগানে প্রতিবাদ জানান কাটাবিল এলাবাসি। কুমিল্লা নগরীর ১৫ নং ও ১৮ নং ওয়ার্ডবাসীর সমন্বয়ে গড়ে তুলেছে সময়ের সেরা ও সাহসী মাদক বিরোধী আন্দোলন।

শুক্রবার (১৮ জুন) বিকেলে কাটাবিল পুরো এলাকাজুড়ে মাদকের বিরুদ্ধে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে এলাকাবাসীর সাথে ঐক্যমত পোষণ করে মানববন্ধনে অংশ নেন কুমিল্লা মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক ও জেলা পরিষদ প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ সহিদ।
তিনি বলেন, সকলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টার ফলে ইতিমধ্যে মাদক ৮০ শতাংশ নির্মূল করতে সক্ষম হয়েছি আগামী ১ মাসে সম্পূর্ণভাবে এ ওয়ার্ডগুলো থেকে চিরতরে মাদক নির্মূল করবো ইনশাআল্লাহ।

এসময় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন কাটাবিল নাগরিক ঐক্য ফোরামের মাদক বিক্রয়, সেবন, সন্ত্রাস নির্মূল কমিটির সভাপতি ও ১৮ নং ওয়ার্ড সাবেক কাউন্সিল এ্যাডভোকেট মোঃ শওকত আকবর (এপিপি)। ১৬,১৭,১৮ নং ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিল নেহার বেগম, বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদিন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ জালাল উদ্দীন, কোষাধ্যক্ষ মোঃ জুয়েল রানা।

মাদকের আগ্রাসনে একটি যুবক শুধু নিজেই ধ্বংস হয় না সে তার পরিবার সমাজ এমনি রাষ্ট্রকেও ধ্বংস করতে পারে। মরণব্যাধি মাদকের অভিশাপ থেকে যুব সমাজকে বাঁচাতে বধ্যপরিকর ওয়ার্ডবাসি। অতন্দ্র প্রহরীর ন্যায় কাজ করে যাচ্ছেন যারা তাদের মধ্যে হলো সাদেকুর রহমান সর্দার, হাজী আহমেদ হোসেন মানিক সর্দার, নূরে আলম সর্দার, মাছুম মিয়া সর্দার, জাহাঙ্গীর আলম সর্দার, শহিদুল্লাহ ফকির সর্দার, শফিক মিয়া, আব্দুল লতিফ, শাহ আলম, আবু তাহের, হাজী আলী আক্কাছ, সোহরাব হোসেন, ডাঃ মোসলেহ উদ্দিন বাবুল, ফখরুল হাসান ফারুক, মোঃ আলম মিয়া, হুমায়ুন কবির, খোরশেদ আলম, শাহ আলম, আব্দুল আউয়াল, মোঃ হেলাল, মোঃ রাজু আহমেদ, মজিফ আহমেদ মজুমদার খোকন, ফয়েজ আহমেদ ও মোঃ আনোয়ার হোসেন।

যুব সমাজের পক্ষে দেলোয়ার হোসেন, সবির আহমদ,রফিক মিয়া, হাসেম মিয়া, আব্দুস সামাদ, মোতাবেক হোসেন, রেনু, সাগর, আশিক, মিঠু, ইয়াসিন আরাফাত, নাজিম আহমেদ, উজ্জল, রাকিবসহ প্রমূখ।
নগরীর দুই ওয়ার্ড বাসীরা সামাজিকভাবে সঙ্ঘবদ্ধ হয়ে মাদকের মরণ ছোবল থেকে সমাজ ও যুব সমাজকে বাচাতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার অঙ্গিকার ব্যক্ত করেন ১৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি মোস্তফা কামাল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফখরুল হাসান ফারুক, প্রচার সম্পাদক সাদেক হানাফিসহ ওয়ার্ড আওয়ামিলীগের নেতৃবৃন্দ।

এ সময় বক্তব্য রাখেন ১৫ নং ওয়ার্ড মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির। তিনি বলেন, আমাদের কাহারো একার পক্ষে সম্ভব না মরণব্যাধি মাদক নির্মূলে, সকলে ঐক্য হয়ে কাজ করতে হবে আমাদের নেতা কুমিল্লার সদর সাংসদ হাজী আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহার ভাই মাদকের ব্যাপারে অনেক কঠিন।

সংগঠনের পক্ষে বক্তব্য রাখেন মোঃ জাহাঙ্গীর আলম সর্দার। তিনি বলেন, চলুন সবাই মাদককে না বলি, মাদকের অভিশাপ থেকে যুব সমাজকে বাচাতে রাত বিরাত আমাদের সাথে পরিশ্রম করছে সকল শ্রেণীর পেশার মানুষ আমরা শপথ নিয়েছি মাদক নির্মূল করেই আমরা শান্তিতে ঘরে ফিরবো। সর্দার শহিদুল্লাহ ফকির বলেন মাদক নির্মূল অভিযানে নেমে অনেক হুমকি আসতেছে শুধু তাই নয় মেরে ফেলার হুমকিও আসছে তবুও মাদক নির্মূল করে ছাড়বো ইনশাআল্লাহ। এ সময় সোহরাব হোসেন বলেন ইতিমধ্যে মাদক ব্যবসায়িরা আমার উপর অনেক হামলা করেছে, প্রতিনিয়ত তাদের অপশক্তি আমাকে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে এমতাবস্থায় প্রশাশনের সার্বিক সহযোগিতা পেলেই আমাদের ওয়ার্ড থেকে চিরতরে মাদক নির্মূল করা সম্ভব হবে। এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক আব্দুল আউয়াল তিনি বলেন অতীতে আমরা কয়েকবার মাদক নির্মূলে উদ্যোগ নিয়েও পারিনি তবে এবার আমরা বদ্ধপরিকর আমাদের ওয়ার্ড ও সমাজ থেকে মাদক নির্মূল করে ছাড়বোই। যাহারা মাদক সেবন করে ও বিক্রি করে তারা হয়তো মাদক ছাড়বে নয়তো এ সমাজ ছাড়বে। মাদকের বিষয়ে সতর্কতা বার্তা দিয়ে আব্দুল লতিফ বলেন মাদক ছেড়ে কলম ধরি, চলো সবাই শিক্ষিত সমাজ গড়ি।

এসময় মাদক নির্মূল কমিটির সাধারণ সম্পাদক মৃত হাজী বেলায়েত হোসেনের ছেলে মোঃ জালাল উদ্দীন বলেন, আমাদের যুব সমাজ মাদকের ছোবলে পথভ্রষ্ট হয়ে যাচ্ছে এমন অবস্থা চলমান থাকলে আগামীর জাতি পথ হারাবে এই অভিশাপ থেকে রক্ষা পেতে প্রশাসনের সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রয়োজন।

আগামীর সুন্দর সমাজ গঠনে সকলকে ঐক্য বদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে কাটাবিল নাগরিক ঐক্য ফোরামের মাদক বিক্রয়, সেবন, সন্ত্রাস নির্মূলের কার্যকরি কমিটির সভাপতি কুসিক ১৮ নং ওয়ার্ড সাবেক কাউন্সিলর এ্যাডভোকেট শওকত আকবর বলেন, মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারীরা যতই শক্তিশালী হোক না কেন আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে তাদেরকে দমন করবো ইতিমধ্যে আঠারোজন আত্মসমর্পণ করাতে সক্ষম হয়েছি। আমাদের এ উদ্যোগের ফলে অনেকেই নতুন ও সোনালী জীবনের সন্ধান পেয়েছে। মাদক থেকে ফিরে এলে আমরা তাদের ও পরিবারের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে দিবো ও অতীতে তাদের সকল মামলা বিনা খরচে আমি পরিচালনা করে দিবো।

তিনি আরো বলেন, মাদক ব্যবসায়ি ও সেবনকারীদের সাথে কোন আপোষ করব না। পরিশেষে মাদকের অভিশাপ থেকে সসাজ ও রাষ্ট্রকে বাঁচাতে প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতা একান্তভাবে কামনা করছি। মানববন্ধনে পূর্বে মাদক সেবনকারী মৃত কালা মিয়ার ছেলে হানিফ মিয়া বলেন, মাদক একটি অভিশাপ সবার সহযোগিতায় আমি এ অভিশাপ থেকে মুক্তি পেয়েছি যারা এ পথে আছেন তারাও এ অভিশাপ থেকে বের হয়ে আসেন। এসময় আরো বক্তব্য রাখেন তরুণ সমাজ সেবক রাজন ও ১৫ নং ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি এস কে সাদেক।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ