About Us
শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১
  • সোশ্যাল প্ল্যাটফর্ম:
Nazrul
প্রকাশ ১৯/০৬/২০২১ ০৩:১১পি এম

কেউ পরীমনির মতো পোশাক পরে কি না প্রশ্ন তুললেন জাপা নেতা রাঙা

কেউ পরীমনির মতো পোশাক পরে কি না প্রশ্ন তুললেন জাপা নেতা রাঙা Ad Banner
ঢাকা বোট ক্লাবে চিত্রনায়িকা পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার ঘটনায় তার পোশাককে দোষ দিয়েছেন জাতীয় পার্টির নেতা ও রংপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) মসিউর রহমান রাঙ্গা। বাংলাদেশের কেউ পরীমনির মতো কাপড় পরে কি না, সেই প্রশ্নও তুলেছেন তিনি।

সম্প্রতি বেসরকারি একটি টেলিভিশন চ্যানেলের বিশ্লেষণধর্মী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন মসিউর রহমান রাঙ্গা। এসময় ধর্ষণকাণ্ডের মতো ঘটনায় যদি তার দলের কেউ থাকে তাকে আইনের আওতায় নেওয়ার জন্য বলেছেন তিনি। দোষ প্রমাণ হলে তার যদি মৃত্যুদণ্ডও হয়, এ বিষয়ে তিনি কিছু বলবেন না বলেও জানান।

অনুষ্ঠানে পরীমনিকে ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যাচেষ্টার খবরটি গণমাধ্যমে ফলাও করে প্রচার করেছে ইঙ্গিত দিয়ে মসিউর রহমান রাঙ্গা বলেন, ‘তার কথায় বিচার হবে? সাক্ষী লাগবে না? সিসি ক্যামেরা আছে, কোন জায়গায় নাই? সব জায়গায় সিসি ক্যামেরা আছে।’

অনুষ্ঠানে প্রশ্নকারীর উদ্দেশে রাঙ্গা বলেন, ‘আল্লাহ না করুক, এটা যদি আপনার ওপর হতো, সবার আগে এগিয়ে আসতাম আমি। কারণ, আপনার কথা বলা, চলা সবকিছুই বাংলাদেশের… আমরা যে বাঙালি ললনা বলি, আপনি তার মধ্যে আছেন। আপনাকে তো আমরা কোনো দিন এই অবস্থায় দেখি নাই। কোনো সাংবাদিক মহিলাকে আমি এই অবস্থায় দেখি নাই।’

রাঙ্গা আরো বলেন, ‘সে নায়িকা, বাংলাদেশে কি ওই কাপড় পরে কোনো… ছবি আছে? এমন তো কোনো ছবি নাই। এটা তো সেন্সর বোর্ডে কাট করে দেবে। একটা নারীর ভূষণ নিয়ে অবশ্যই কথা বলার জায়গা আছে। আমিও চাই নাসির যদি অন্যায় করে থাকে, হি স্যুড বি পানিশড অনডাউডেটলি। আমার এখানে কোনো ভুল নাই। কিন্তু এটা প্রমাণ করতে হবে; সে এটা করেছে। সিসি ক্যামেরা বলবে। বহু কিছু আছে গর্ভনমেন্ট’র তথ্য প্রযুক্তির মধ্যে। এর মধ্যে প্রমাণ হয়ে যাবে দুধ কা দুধ, পানি কা পানি। এটা হোক, এটা আমরাও চাই যে, আসল ঘটনা বের হোক।’

অনুষ্ঠানে পরিবহনে ধর্ষণ ও নারীর শ্লীলতাহানির প্রশ্নে রাঙ্গা বলেন, ‘যদি এই ধরনের কর্মকাণ্ডের সঙ্গে কেউ জড়িত থাকে, আমি স্পষ্ট ভাষায় বলছি, তাদের আইনের আওতায় দিয়ে দেন। আইন যদি দেখে কেউ এটা করেছে, এসব প্রমাণ করার অনেক কিছু আছে, যদি এটা প্রমাণ হয়-সে দোষী, আর সেই দোষে তার মৃত্যুদণ্ডও হয় আমরা একটা আন্দোলনও তার জন্য করবো না। একটা কথাও সেই শ্রমিকের জন্য বলবো না। এটা শুধু আমি নয়, শাহজাহান খানের দায়িত্ব নিয়েও বলছি, তিনিও এ ব্যাপারে কোনো কথা বলবেন না। বলতে দিব না আমি।’

প্রতিনিয়ত এমন ঘটনা ঘটছে। কয়েকটি অঞ্চলের উদাহরণ দিয়ে রাঙাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে আসলেই না আমরা এ ব্যাপারে কথা বলবো। আমাদের কাছে না এসে তারা যাচ্ছে পুলিশের কাছে। আমাকে দেন না, কোন গাড়িতে এসব হচ্ছে সেই গাড়ির নম্বর দেন। দেখেন আমি ব্যবস্থা নেই কি না।’

এদিকে, ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে চিত্রনায়িকা পরীমনির দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তার নাসির উদ্দিন মাহমুদের মুক্তি দাবি করেছেন জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য গোলাম কিবরিয়া টিপু। গত বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) জাতীয় সংসদে দাঁড়িয়ে নাসির উদ্দিনকে ওই অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেওয়ার দাবি করেন তিনি।

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাংসদ টিপু বলেন, ‘গত কয়েকদিন ধরে একজন চিত্রনায়িকা ও আমাদের প্রেসিডিয়াম সদস্যকে নিয়ে ঘটনা দেখছি। নাসির উদ্দিনকে আমি প্রায় ৩৫ বছর ধরে চিনি। প্রায় ছাত্র অবস্থা থেকে। সে একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী এবং সরকারকে খাজনা দেয়। ওই ক্লাবে যে নায়িকা গিয়েছিলেন, তারা তো অভিনয় করতে জানেন।


সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেখলাম তাকে কোলে করে একটা গাড়িতে তোলা হচ্ছে। তাদের এই সমস্ত দিকে লক্ষ্য রেখে আমি সরকারের কাছে আবেদন রাখবো, আইন আইনের মতো চলবে। অবিলম্বে নাসির মাহমুদকে যাতে এই ইসের থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। আইন চলবে, তাকে যেন মুক্তি দেওয়া হয়।’

গত ৮ জুন উত্তরার কাছের বিরুলিয়ায় ঢাকা বোট ক্লাবে পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যার চেষ্টা করা হয় বলে অভিযোগ ওঠে। এ ঘটনায় আবাসন ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদ, অমিসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে মামলা দায়ের করেন এই চিত্রনায়িকা। মামলায় এখন পর্যন্ত পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ