About Us
Nazrul
প্রকাশ ১৬/০৬/২০২১ ০২:৫২পি এম

সুরের আকাশে তুমি যে গো শুকতারা

সুরের আকাশে তুমি যে গো শুকতারা Ad Banner

বাংলা গানে আধুনিক ধারার পথিকৃৎ হেমন্ত মুখোপাধ্যায়। উচ্চারণ ও স্বর প্রক্ষেপণে একটা সাবেকিয়ানা ছিল আগে যখন চোঙার  মতো মাইক্রোফোনে মাথা প্রবেশ করিয়ে গান করতেন লাল চাঁদ বড়াল। এরপর ত্রিশের দশকে সঙ্গীতে হিমালয়তূল্য পঙ্কজ মল্লিকের অপার কণ্ঠে আস্তে আস্তে গানের উচ্চারণে পরিবর্তন আসে। তবু সাবেকিয়ানা থেকেই যায়। চল্লিশের দশকে হেমন্তের গানও এরকম ছিল। কিন্তু পঞ্চাশের দশকে পুরোদস্তুর আধুনিক উচ্চারণ রীতি প্রবর্তন করেন হেমন্ত মুখোপাধ্যায়। স্বাভাবিক ভাবে তাই বাংলা গানের ভুবনে শিল্পী হেমন্ত মুখোপাধ্যায় শ্রেষ্ঠ আসনে আসীন হন। আজ তাঁর ১০১তম জন্মদিন। সমসাময়িক কিশোর কুমার ও মান্না দের মতো কীর্তিমানদের ছাপিয়ে  জনপ্রিয়তায় তিনি ছিলেন আকাশচুম্বী। কারণ পঞ্চাশ,ষাট ও সত্তরের দশকে বাংলা সিনেমায় মহানায়ক উত্তম কুমারের লিপে অধিকাংশ গানের শিল্পী ছিলেন হেমন্ত। সপ্তপদী সিনেমার "এই পথ যদি না শেষ হয়"-সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়ের সাথে দ্বৈত কণ্ঠের এ গানটি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাংলা রোমান্টিক গান হিসেবে পরিচিত। এ-ত গেলো আধুনিক ধারার কথা। রবীন্দ্র সঙ্গীতেও জনপ্রিয়তায় আজও হেমন্তের ধারে কাছে কেউ নেই। অথচ তিনি কারও কাছে রবীন্দ্র সঙ্গীত শেখেননি। স্বরলিপি দেখে রবীন্দ্রনাথের গান শিখেছেন তিনি। আর কিংবদন্তি পঙ্কজ মল্লিকের কাছ থেকেও প্রেরণা পেয়েছেন। সঙ্গীত পরিচালক হিসেবেও হেমন্ত মুখোপাধ্যায় খ্যাতির চূড়ায় উঠেন। 'হারানো সুর' সিনেমায় পরিচালকের সঙ্গে। অনেকটা জোরাজুরি করে গীতা দত্তকে বেছে নেন তিনি। সুচিত্রা সেনের লিপে তখন সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়ের তুমুল জনপ্রিয়তা ছিল। তবে সন্ধ্যার বদলে গীতা দত্তকে বেছে নেওয়ার চ্যালেঞ্জ নেন হেমন্ত। মহানায়িকার লিপে 'তুমি যে আমার' গানটি এত জনপ্রিয় হয়। পরে সবাই বুঝতে পারে গীতা দত্তই এ গানের জন্য ঠিক ছিল।লতা মঙ্গেশকরকে বাংলা গানে নিয়ে আসাটাও সঙ্গীত পরিচালক হেমন্তের বড় দিক ছিল।ব্যক্তিত্বে হেমন্ত মুখোপাধ্যায় ছিলেন আকাশের মতো বিশাল। কিংবদন্তি শিল্পী প্রতিমা বন্দোপাধ্যায় মূলত তাঁর কারণে সঙ্গীত জগতে প্রতিষ্ঠিত হন। নিরহংকার, সদাচারী হেমন্ত মুখোপাধ্যায় ১৯২০ সালের ১৬ জুন বারাণসীতে জন্মগ্রহণ করেন। পড়াশোনা করেন ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে। সাহিত্যিক বন্ধু সুভাষ মুখোপাধ্যায়ের প্রেরণাতে সঙ্গীতে পদার্পণ করেন। ১৯৮৯ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর জীবনাবসান ঘটে এ কিংবদন্তির। তাঁর গাওয়া বিখ্যাত গানগুলো হলো- মাগো ভাবনা কেন, পথের ক্লান্তি ভুলে স্নেহ ভরা কোলে তব মাগো,ও নদীরে, একটি কথা শুধাই শুধু তোমারে, আয় খুকু আয়,আয় খুকু আয়, মুছে যাওয়া দিনগুলি আমায় যে পিছু ডাকে,ও আকাশ প্রদীপ জ্বেলোনা, ও বাতাস আঁখি মেলোনা,আমি দূর হতে তোমারেই দেখেছি,আর মুগ্ধ এ চোখে চেয়ে থেকেছি, এই রাত তোমার আমার, ঐ চাঁদ তোমার আমার.. শুধু দুজনে, মেঘ কালো, আঁধার কালো, রানার ছুটেছে তাই ঝুমঝুম ঘণ্টা বাজছে রাতে, আজ দুজনার দুটি পথ ওগো দুটি দিকে গেছে বেঁকে, আমায় প্রশ্ন করে নীল ধ্রুবতারা, বন্ধু তোমার পথের সাথীকে চিনে নিও,আমার এই পথ চাওয়াতেই আনন্দ, কেন দূরে থাকো, ওলিরও কথা শুনে বকুল হাসে, যদি জানতে চাও, আমিও পথের মত হারিয়ে যাব ইত্যাদি।



শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ

Md. Al-Amin Rana - (Dhaka)
প্রকাশ ৩০/০৭/২০২১ ০১:৩২পি এম