About Us
MD.MOSTAFIZUR RAHMAN - (Dhaka)
প্রকাশ ১১/০৬/২০২১ ১১:৩৮এ এম

লবঙ্গের ৮ টি উপকারিতা

লবঙ্গের ৮ টি উপকারিতা Ad Banner

১৪ দশকের মাঝামাঝি সময়ে দেশে তুমুল লড়াই চলে।  যুদ্ধের কারণ ছিলো আজব।  ইন্দোনেশিয়ার একটি দ্বীপে চাষ  হতো লবঙ্গ কিন্তু সেই দ্বীপের অধিকার কার হাতে থাকবে সে নিয়ে বেধেছিল লড়াই। কিছু বছর যুদ্ধ চলে রক্ত ঝরার পরে সেখানে  পৌছালেন ডাচরা ( নেদারল্যান্ড)  তখন থেকে লবঙ্গের উপর অধিকার স্থাপন হলো ইউরোপের একটি দেশের।  ধীরে ধীরে সময় পরিবর্তনের সাথে এই ক্ষমতারও পরিবর্তন হয় কিন্তু পরিবর্তন হয়নি লবঙ্গের গুরুত্ব।

লবঙ্গ মুখে পরতেই যখন বেশ কয়েকটি রোগের নিরাময় হয় তখন এই মহৌষধিকে কে বা কাছে রাখতে চাইবেনা। 

১০০ গ্রাম লবঙ্গে যা যা আছে -

১.৬৫ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট 

 ৬ গ্রাম প্রোটিন 

৩. ১৩ গ্রাম লিপিড 

৪. ২ গ্রাম চিনি 

সেই সাথে ফাইবার,  ক্যালসিয়াম,  আয়রন,  ম্যাগনেসিয়াম,  ফসফরাস,  পটাসিয়াম,  সোডিয়াম,  জিঙ্ক,  ভিটামিন সি,  থিয়েমিন,  ভিটামিন বি৬, বি ১২, ভিটামিন কে,  ভিটামিন ই এসব উপাদান বিভিন্ন ভাবে শরীরের গঠনে কাজে  লাগে । এছাড়াও লবঙ্গে আছে ২০-১৫ সতাংশ ক্লোভ তেল ১০-১৫ শতাংশ টাইটার পেনিক এসিড যার ফলে এর স্বাদ ঝাজালো এর আরেক নাম ' লং ' 

যে সব রোগের জন্যে উপকারী লবঙ্গ - 

১.আর্থ্রাইটিস - আর্থ্রাইটিসের যন্ত্রণা কমায় লবঙ্গ এতে উপস্থিত এন্টি- ইনফ্লেমেটরি উপাদান যা আর্থ্রাইটিসের প্রকোপ কমাতে সাহায্য করে।  এছাড়াও জয়েন্টে ব্যথা,  পেশিতে ব্যথা,  হাটুতে,  পিঠে বা হাড়ের ব্যথা এবং ফোলা ভাব কমাতে লবঙ্গ বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।  

২. ডায়াবেটিস - নিয়মিত লবঙ্গ খাওয়ার ফলে মানবদেহের ইনসুলিনের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।  ফলে স্বাভাবিক ভাবেই রক্তে শর্করার পরিমান বৃদ্ধি পায়না ফলে ডায়বেটিস রোগের ঝুকি কমে। 

৩. জ্বরের চিকিৎসা -  লবঙ্গে থাকা ভিটামিন কে এবং ভিটামিন সি শরীরের রোগ প্রতিরোধে সহায়তা করে।  লবঙ্গ রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে এতোটাই শক্তিশালী করে দেয় যে শরীরে উপস্থিত সব ভাইরাস মারা পড়ে।  ফলে ভাইরাস ফিবারের প্রকোপ কমে যায়।  রোগ প্রতিরোধে ক্ষমতা বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে  সংক্রমণ হওয়ার ঝুকি কমায় 

৪.  দাতের ব্যথা কমায় - দাতের ক্ষয় বা মাড়ি ফোলার মতো ব্যথা কমায় লবঙ্গ।  লবঙ্গে থাকা এন্টি - ইনফ্লেমেটরি উপাদান শরীরে প্রবেশ করার ফলে কিছু বিক্রিয়া করে যা নিমেষেই দাতের ব্যথা কমায়। 

৫. হজম ক্ষমতা বাড়ায় - লাঞ্চ বা ডিনার করার আগে লবঙ্গ দিয়ে বানানো গরম চা খেলে হজমে সহায়ক এসিডের ক্ষরণ বেড়ে যায় একই সাথে পেটের দিকে রক্ত প্রবাহের উন্নতি করে বলে খাবার হজম হতে সময় লাগেনা।  ভাজা পোড়া এবং কম মশলায় খাবার খেলেও যাদের হজমে সমস্যা হয় তাদের জন্যে লবঙ্গ অত্যন্ত উপকারি। 

৬. সাইনাস ইনফেকশন কমায় - সাইনাসের আক্রমণ সহ্য করা এক প্রকার অসাধ্য কর।  লবঙ্গ শরীরের উপস্থিত ইগুয়েনাল এর উপাদান বাড়ায় যা সাইনাসের কষ্ট কমাতে সাহায্য করে।  সেকারনে আয়ুর্বেদিক বিশেষজ্ঞরা এই চিকিৎসায় যুগ যুগ ধরে লবঙ্গ ব্যবহার করে আসছে।  

৭. ব্রণ - ব্রণ দূর করতে লবঙ্গের তুলনা হয়না।  তাড়া লবঙ্গের গুড়ো সামান্য মধুর সাথে মিশিয়ে ব্রণের উপর দিয়ে রাখলে ব্রণ দূর হয়। 

৮. লিভার - লিভারের কর্ম- ক্ষমতা বাড়ায় লবঙ্গ। লবঙ্গে থাকা এন্টি - অক্সিজেন লিভারের অন্দরে জমে থাকা টক্সিক উপাদান বের করে দেয়।  ফলে লিভারের কার্যক্ষমতা বাড়তে শুরু করে।  এছাড়াও এখানে হেপাটোপ্রটেক্টিভ প্রপার্টিজ যা লিভার ভালো রাখতে সাহায্য করে। 

 


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ