About Us
Rezwan Ahmed Al Mamun - (Sunamganj)
প্রকাশ ১০/০৬/২০২১ ০৩:৫৯পি এম

বালিশচাপায় হত্যা মাদ্রাসারছাত্রীকে, ঘাতক পলাতক

বালিশচাপায় হত্যা মাদ্রাসারছাত্রীকে, ঘাতক পলাতক Ad Banner

 বালিশচাপায় হত্যা মাদ্রাসার ছাত্রীকে, ঘাতক পলাতক


স্থানীয়রা জানান, উপজেলার সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়নের সৈয়দপুর গোয়ালগাঁও গ্রামের শয়ফুল ইসলামের মেয়ে সানজিদা বেগম (১৫) মঙ্গলবার রাতে প্রতিদিনের ন্যায় রাতের খাওয়া-দাওয়া শেষে নিজ শয়নকক্ষে ঘুমাতে যায়। রাতের কোনো একসময় মেয়েটির আপন চাচা রবিউল ইসলাম (৪২) সানজিদার ঘরে প্রবেশ করে বালিশচাপা দিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায়। গতকাল ভোরে মেয়েটির নিথরদেহ নিজ ঘরের বিছানায় পড়ে থাকতে দেখেন পরিবারের লোকজন।

পরিবারের লোকজন জানান, শয়ফুল ইসলামের চার ভাইয়ের মধ্যে এক ভাই যুক্তরাজ্যে বসবাস করেন। ওই প্রবাসি নিঃসন্তান হওয়ায় মেয়েটিকে তিনি নিজের মেয়ের মতো মায়া করে সংসারের টাকা মেয়েটির কাছে পাঠাতেন। এনিয়ে ঘাতক ভাইয়ের সাথে কিছু বিরোধ চলছিল। কিছু দিন আগে এসব নিয়ে বিরোধের জের ধরে স্ত্রী সন্তান নিয়ে তিনি শ্বশুর বাড়ি চলে যান। মঙ্গলবার বাড়ি ফিরে এ ঘটনা ঘটান রবিউল ইসলাম।
নিহতের মাদ্রাসাছাত্রীর বড়ভাই হাম্মদ আহমদ বলেন, আমাদের ধারনা চাচাই আমার বোনকে হত্যা করে পালিয়েছেন। তার বোন স্থানীয় একটি মাদসার ৮ম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।
নিহতের মাদরাসাছাত্রীর মা সৈয়দা ছালেহা বেগম কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, ঘাতক আমার মেয়েকে বালিশচাপা দিয়ে হত্যা করেছে।
ঘটনাস্থল পরিদর্শকারী জগন্নাথপুর থানার ওসি (তদন্ত) মোছলেহ উদ্দিন বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে শ্বাসরূদ্ধ করে মেয়েটিকে হত্যা করা হয়েছে। আমরা লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ মর্গে পাঠিয়েছি।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ