About Us
Md Atay Rabby - (Dhaka)
প্রকাশ ০৯/০৬/২০২১ ১১:২৩পি এম

লকডাউনের নাম করে লঞ্চ গুলোর ভাড়া এভাবে বেশি নেওয়ার কারণ কী?

লকডাউনের নাম করে লঞ্চ গুলোর ভাড়া এভাবে বেশি নেওয়ার কারণ কী? Ad Banner

লকডাউনের নাম করে চাঁদপুর, বরিশাল এমনকি সকল জেলার লঞ্চগুলোর ভাড়া এভাবে বেশি নেওয়ার কারন কী? যেখানে (চাদঁপুর রুটে) আগের সাধারন ভাড়া ছিলো ১০০ টাকা, তারপর গতবছর লকডাউনে ভাড়া বেড়ে হয় ১১৫ টাকা কিন্তু গত কিছুদিন ধরে লঞ্চে এখন ডেকের ভাড়া ১৫০ টাকা থেকে ১৮০ টাকা নেওয়া হচ্ছে।

আবার দ্বিতীয় শ্রেনীর চেয়ার 'করোনাকালে' ছিলো ১৫০ টাকা, পরবর্তীতে করোনার প্রথম ডেউ শুরুর পর ভাড়া হয় ১৮০ এবং করোনার দ্বিতীয় ডেউ শরুর পর আবার ভাড়া বৃদ্ধি হয়ে ২৮০ টাকা হয়। অন্যান্য শ্রেনীর ক্ষেত্রেও একি অবস্থা।

কিন্তু সরকারি কোন নিদিষ্ট ভাড়ার তালিকা নেই তাদের চার্টে, দেখতে চাইলে লঞ্চ কর্তৃপক্ষ দেখাতে পারেনি । তারপর লঞ্চে কোন স্বাস্থ্যবিধি মানা হয় না। যে যার মতো চলাফেরা করছে, এমনকি লঞ্চ কর্তৃপক্ষ ইচ্ছেমতো যাত্রী নিচ্ছে।

তাহলে কোন যুক্তিতে লঞ্চে এতো ভাড়া নেওয়া হচ্ছে? আমাদের দেশে লকডাউনের নাম করে গরীব অসহায় মানুষের ভোগান্তি দিন দিন বাড়ছে। প্রশ্ন হচ্ছে যেখানে বর্তমানে বিভিন্ন লঞ্চ বিভিন্ন ভাড়া নিচ্ছে । ডেকের ভাড়া ছিলো ১০০ টাকা সেখানে কোন যুক্তিতে ১৮০ টাকা করে ডেকের ভাড়া নিচ্ছে? তার মধ্যে একটি হলো 'সোনার তরী-৩' লঞ্চ।

তারপর লঞ্চে স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারে নেই কোন সর্তকতা। লঞ্চে যাত্রীর সংখ্যার নেই কোন মাত্রা। বিআইডব্লিউটি কতৃপক্ষের দৃষ্টি আর্কষন করছি। লঞ্চের স্বাস্থ্যবিধি এবং ভাড়া নির্ধারন মূল্য তালিকা প্রকাশ করে যাত্রীদের ভাড়া বৃদ্ধি রাখার ভোগান্তি থেকে মুক্ত করবেন।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ