About Us
Apu Das - (Dhaka)
প্রকাশ ০৮/০৬/২০২১ ১১:২৫পি এম

বিজনেস স্ট্রাটেজি এর ধাপ

বিজনেস স্ট্রাটেজি এর ধাপ Ad Banner

গতপর্বে আমি বিজনেস স্ট্রাটেজি এর গুরুত্ব সম্পর্কে আলোচনা করেছিলাম। আর ঐ পোস্ট থেকে জানতে পারি, বিজনেস শুরু করার প্রথম ধাপ হল বিজনেস স্ট্রাটেজি তৈরি করা।

কারণ, বিজনেস স্ট্রাটেজি আমাদের বিজনেস এর লক্ষ্য অর্জনের রূপরেখা পরিকল্পনা করা থাকে। আর বিজনেস স্ট্রাটেজি তৈরি করতে হলে কয়েকটি ধাপ সম্পর্কে জানতে হবে। 

আজকের পোস্ট এর মাধ্যমে আমরা জানব বিজনেস স্ট্রাটেজি এর ধাপগুলো এবং কিভাবে একটি বিজনেস স্ট্রাটেজি তৈরি করা যায় -  বিজনেস স্ট্রাটেজি এর ধাপগুলো হল : 

১. বিজনেস নেইম :  বিজনেস স্ট্রাটেজি এর প্রথম ধাপ হল বিজনেস নেইম ঠিক করা। বিজনেস নেইম এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় যা আপনার বর্তমান হিসেব না করে ভবিষ্যৎ এর বিষয় মাথায় রেখে সিলেক্ট করতে হবে। একটা বিজনেস নেম সিলেক্ট করার জন্য নিচের বিষয়গুলো লক্ষ্য রাখতে হবে -

☞ আপনি যে নেইম টা আপনার বিজনেস এর জন্য সিলেক্ট করছেন, সেই নামে কোনো প্রকার কোম্পানি রেজিষ্ট্রেশন করা আছে কিনা।

☞ নামটির ডটকম/ডটকম ডট বিডি ডোমেইন এবেইলএবল আছে কিনা?

☞ এবং নামটি অবশ্যই ইউনিক হতে হবে। মনে রাখবেন, বিজনেস নেইম বার বার পরিবর্তন করা যায় না। যার কারণে সতর্কতার সাথে উপরের বিষয় গুলো লক্ষ্য রেখে আপনার বিজনেস নেইম নির্বাচন করতে হবে।

২. মিশন স্টেটমেন্ট/টেগ লাইন: আপনি বিখ্যাত ব্যান্ড গুলোতে দেখে থাকবেন বিজনেস নেম এর পাশাপাশি একটি মিশন স্টেটমেন্ট/টেগ লাইন থাকে। একটি মিশন স্টেটমেন্ট/টেগ লাইন আপনার বিজনেস এর বিশেষত্ব প্রকাশ করে। আর এই মিশন স্টেটমেন্ট/টেগ লাইন অবশ্যই একটি বাক্যের এর মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখবেন, যাতে আপনার কাস্টমার মনে রাখতে পারে।

৩. অবজেক্টিভ: বিজনেস স্ট্রাটেজি এর তৃতীয় ধাপটি হলো অবজেক্টিভ বা উদ্দেশ্য। বিজনেস স্ট্রাটেজি এর এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ।কারণ আপনার বিজনেস এর উদ্দেশ্য গুলো কী কী হবে তা ঠিক করতে না পারলে আপনার কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবেন না। এজন্যই আপনার প্রোডাক্ট বা সার্ভিসের উপর ভিত্তি করে আপনার বিজনেস এর উদ্দেশ্য গুলো সেট করে ফেলুন।

৪. ভেলো প্রপোজিশন : বিজনেস স্ট্রাটেজি এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হল ভেলো প্রপোজিশন । কারণ, আপনি আপনার বিজনেস এর মাধ্যমে কাস্টমারের কোন ধরনের প্রবলেম এর সলিউশন দিবেন সেটা যদি না জানেন, তাহলে আপনি কখনোই সফল হবেন না। আর এই জন্যই আপনি এই ধাপে সেট করে ফেলুন আপনি আপনার কাস্টমারদের কোন প্রবলেম এর সলিউশন দিবেন। 

৫. এলেভাটর পিছ: বিজনেস স্ট্রাটেজি এর শেষ ধাপ হল এলেভাটর পিছ এই ধাপে সাধারণত আপনার বিজনেস এর সামারিটা আলোচনা করা হয়ে থাকে। আপনার পুরো বিজনেস নিয়ে একটি ১০-১৫ সেকেন্ডের সামারি তৈরি করবেন এই ধাপে। যার মাধ্যমে আপনার বিজনেস সম্পর্কে সহজেই আপনার কাস্টোমার জানতে পারবে।  তাহলে আর দেরি কেন? এখনই তৈরি করে ফেলুন আপনার বিজনেস স্ট্রাটেজি, একপাতার মধ্যে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ