About Us
Md. Rasel Uddin - (Kurigram)
প্রকাশ ০৮/০৬/২০২১ ০৬:২৩পি এম

কুড়িগ্রামে তিস্তার ভয়াবহ ভাঙনে দিশেহারা এলাকাবাসী

কুড়িগ্রামে তিস্তার ভয়াবহ ভাঙনে দিশেহারা এলাকাবাসী Ad Banner

কুড়িগ্রামের রাজারহাট, উলিপুর ও গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে তিস্তা নদীতে ভয়াবহ ভাঙন শুরু হয়েছে । একই চিত্র রংপুরের গঙ্গাচড়া, কাউনিয়া ও পীরগাছার নদী তীরবর্তী গ্রামে। এতে দিন দিন ভাঙনের তীবত্রা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এতে দিশেহারা হয়ে পড়েছে তিস্তাপাড়ের মানুষ। 

বিলিন হয়ে যাচ্ছে, শত শত বিঘা আবাদি জমি, গাছপালাসহ শতাধিক বাড়ি ঘর, মসজিদ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন স্থাপনা। ভেঙে গেছে মুল সড়কের ৪০ মিটার।

প্রশাসন এবং পানি উন্নয়ন বোর্ড থেকে ভাঙন মোকাবেলায় নানান প্রতিশ্রুতি দেয়া হলেও চোখের সামনে বাড়িঘর ভেঙ্গে যেতে দেখে ক্ষুব্ধ তিস্তা পাড়ের মানুষ। 

কুড়িগ্রামে উজানে ভারতীয় অঞ্চলে প্রচুর বৃষ্টিপাতের কারণে ব্রহ্মপুত্র, তিস্তা, ধরলার নদীর পানি বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। কুড়িগ্রামে মেগা প্রকল্পের নামে তিস্তা নদীর ভাঙন রোধে জরুরি বরাদ্দ না থাকায় ক্ষুব্ধ তিস্তা পাড়ের মানুষ। বর্ষার আগেই পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে তিস্তা নদী তার ভয়ালরূপ দেখাতে শুরু করেছে। 

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ড নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম বলেন, তিস্তা নদীর ভাঙন রোধ প্রকল্পে প্রায় ৮হাজার ২শ কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য সরকার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। এটি বাস্তবায়ন হলে তিস্তা নদীর ভাঙন রোধে স্থায়ীভাবে সমস্যা সমাধান হবে। 

বজরা ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম আমিন বাবলু বলেন, গত কয়েকদিনে ইউনিয়নের পশ্চিম বজরা এলাকায় ব্যাপক ভাঙন শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যেই নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে এলজিইডির পাকা সড়কসহ পুরান বজরা জামে মসজিদ এবং বেশ কিছু ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বসত বাড়ি ।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ