About Us
Md. Nayeem Uddin Khan - (Dhaka)
প্রকাশ ০৮/০৬/২০২১ ০১:৩১এ এম

দেশে শিগগিরই চীনের টিকা আনার চেষ্টা চলছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

দেশে শিগগিরই চীনের টিকা আনার চেষ্টা চলছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী Ad Banner

স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, চীন থেকে দেড় কোটি ডোজ করোনাভাইরাসের টিকা সিনোভ্যাক কেনার জন্য সরকারের ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি অনুমোদন দিয়েছে। একই সঙ্গে শিগগিরই এই টিকা দেশে আনার প্রয়াস অব্যাহত রয়েছে।   

আজ সোমবার (৭ জুন) জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তরে নেত্রকোণা-৩ আসনের এমপি অসীম কুমার উকিলের প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সংসদকে এ তথ্য জানান।  মন্ত্রী বলেন, চীন সরকার থেকে ৫ লাখ ডোজ টিকা উপহার পাওয়া গেছে।

এই টিকা ২৫ মে থেকে প্রয়োগ শুরু হয়েছে। আরো ৬ লাখ ডোজ অনুদান হিসাবে শিগগিরই পাওয়া যাবে। সেরাম থেকে তিন কোটি ডোজ টিকা ক্রয়ের চুক্তি হয়েছিল।

এর মধ্যে ৭০ লাখ ডোজ পাওয়া গেছে। চুক্তি মোতাবেক বাকি ২ কোটি ৩০ লাখ ডোজ সংগ্রহের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। সেরামের সরবরাহকৃত ৭০ লাখ এবং ভারত সরকারের উপহারে পাওয়া ৩২ লাখ ডোজের মধ্যে ১ কোটি ডোজ টিকা প্রদান হয়েছে। 

তিনি বলেন, রাশিয়া থেকে ১ কোটি ডোজ স্পুটনিক-ভি কেনা প্রক্রিয়াধীন। ফাইজারের ১ লাখ ৬২০ ডোজ টিকাদান শিগগিরই শুরু হবে। করোনাভাইরাসের টিকা সংগ্রহের জন্য প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে সরকার। এ জন্য বিভিন্ন দেশ ও টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে।

এছাড়াও দেশে টিকা উৎপাদনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ জন্য প্রযুক্তি হস্তান্তরের জন্য বিভিন্ন দেশ ও উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে আলোচনা চলছে। 

এমপি এম আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, বেসরকারি চিকিৎসা সেবা আইন প্রণয়নের কাজ ২০০৮ সালে শুরু হলেও বিভিন্ন কারণে এখনও তা চূড়ান্ত হয়নি। পর্যায়ক্রমে এ আইনের সংস্কার কার্যক্রম করা হয়েছে।

সবশেষ ২০১৯ সালে স্বাস্থ্য সুরক্ষা আইন ২০১৯ নামে ওই আইনটি প্রণয়নের কার্যক্রম মন্ত্রণালয়ে চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। আইনটি দ্রুত করার লক্ষ্যে কার্যক্রম চলমান রয়েছে। 

মন্ত্রী জানান, বেসরকারি খাতে কোভিড-১৯ আক্রান্তদের জন্য বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার মূল্য নির্ধারণের জন্য উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এরই মধ্যে অক্সিজেন ব্যবহারের মূল্য এবং এক্স-রে ও সিটি স্ক্যানসহ ১০টি জরুরি প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষার মূল্য সহনশীল মাত্রায় নির্ধারণ করা হয়েছে।

এছাড়া ডেঙ্গু রোগীদের জন্য প্রয়োজনীয় আরো দুটি পরীক্ষার মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে। স্বাস্থ্যসেবা সুরক্ষা আইন প্রণয়ন হলে অন্যান্য পরীক্ষা-নিরীক্ষার মূল্যও নির্ধারণ করা সম্ভব হবে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ