About Us
Rezwan Ahmed Al Mamun - (Sunamganj)
প্রকাশ ০৭/০৬/২০২১ ১১:৪৪এ এম

সরকার দলীয়রা তৎপর

সরকার দলীয়রা তৎপর Ad Banner

হাওর-বাওরের জেলা সুনামগঞ্জের ৮৮ ইউনিয়নের বেশিরভাগ ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হবার পর নির্বাচন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবার ১৮০ দিনও পার হয়ে গেছে। করোনার কারণে এসব ইউনিয়নের নির্বাচন পিছিয়ে গেছে। ২১ জুন থেকে এসব ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন শুরু হচ্ছে। করোনা পরিস্থিতির অবনতি না হলে ধাপে ধাপে হবে অন্য ইউনিয়নগুলোর নির্বাচন। ২০২১’এর শেষ ৬ মাস ও ২০২২ সালের প্রথম ৬ মাস স্থানীয় সরকার নির্বাচনের উৎসব থাকবে দেশজুড়ে। জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

ছাতকের তিন ইউনিয়নে ২১ জুন নির্বাচন ঘোষণা করায় ওই তিন ইউনিয়নে নির্বাচনী উৎসব জমে ওঠেছে। এই তিন ইউনিয়নের নির্বাচনী ঢেউ লেগেছে আশপাশের ইউনিয়নেও। গত কয়েকদিনে জেলার ১১ উপজেলার ৮৮ ইউনিয়নেই নির্বাচনী আমেজ ছড়িয়ে পড়েছে।


স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মী ও একাধিক সরকারি দায়িত্বশীল সংস্থার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী জেলার ৮৮ ইউনিয়নে ৫৩০ জন সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্বাচনী প্রচারণায় নেমেছেন। এরমধ্যে আওয়ামী লীগের সমর্থক প্রার্থী-ই বেশি। দলীয় মনোনয়ন পাবার জন্যও এই দলের সমর্থকরাই দৌড়ঝাপ করছেন বেশি।

জেলা নির্বাচন অফিসের তথ্য অনুযায়ী, সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার ৯ ইউনিয়নের মেয়াদ শেষ হয়েছে ২২ এপ্রিল। এসব ইউনিয়নের বর্তমান পরিষদের দায়িত্বশীলরা অতিরিক্ত সময় পার করছেন। দক্ষিণ সুনামগঞ্জের ৮ ইউনিয়নেরও মেয়াদ শেষ হয়েছে ২২ এপ্রিল। দোয়ারাবাজার উপজেলার নয় ইউনিয়নের মেয়াদ শেষ হয়েছে ২৩ এপ্রিল।

জগন্নাথপুরের কলকলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হবে আগামী ৯ জুলাই। মিরপুর ইউনিয়নের মেয়াদ শেষ হবে ২০২৪’ এর অক্টোবরে। চিলাউরা হলদিপুর ইউনিয়নের মেয়াদ শেষ হয়েছে ২৭ মে। রানীগঞ্জ ইউনিয়নের মেয়াদ শেষ হয়েছে ৩রা জুন। সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়ন মেয়াদ শেষ হয়েছে ২৭ মে। আশারকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হচ্ছে ৩০ জুলাই। পাইলগাও ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হবে ৬ আগস্ট।


জামালগঞ্জের জামালগঞ্জ সদর ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হবে ২০২২ সালের অক্টোবরে। বেহেলী ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হবে ৬ সেপ্টেম্বর। জামালগঞ্জ উত্তর ইউনিয়নের মেয়াদ শেষ হয়েছে গত ২২ মে। ফেনারবাঁক ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হবে এইবছরের ৭ সেপ্টেম্বর। সাচনা বাজার ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হবে ৬ সেপ্টেম্বর। ভীমখালী ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হবে এবছরের ৭ সেপ্টেম্বর। দিরাই উপজেলার ৯ ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হয়েছে গেল ২৭ মে। শাল্লা উপজেলার চার ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হয়েছে গত ২৭ মে। বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ৪ ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হয়েছে গত ৪ জুন। তাহিরপুর উপজেলার ৭ ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হয়েছে ৪ জুন। ধর্মপাশা উপজেলার ইউনিয়নগুলোর মেয়াদও ৪ জুন শেষ হয়েছে।

ছাতক উপজেলার ১৩ ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হয়েছে গেল ৩০ মার্চ। এরমধ্যে নোয়ারাই, ভাতগাঁও ও সিংসাপইর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন ঘোষণা করা হয়েছে আগামী ২১ জুন।


নির্বাচনী প্রচারণায় থাকা আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা দলের প্রার্থী মনোনয়ন প্রক্রিয়ায় ভিন্ন ভিন্ন মত প্রকাশ করেছেন।

সুনামগঞ্জ শহরতলির কোরবাননগর ইউনিয়ন পরিষদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য শামছুদ্দিন আহমদ বললেন, প্রার্থী মনোনয়নের ক্ষেত্রে তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মতামত যাচাইয়ের জন্য প্রথমে ওয়ার্ড, পরে ইউনিয়ন ও উপজেলা কমিটি পর্যাক্রমিকভাবে জেলা কমিটির কাছে নাম পাঠালে সঠিক গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় নাম যাবে কেন্দ্রে।

এই ইউনিয়নের অপর আওয়ামী লীগ নেতা আফজাল হোসেন এই প্রক্রিয়ায় অবিচার হতে পারে মন্তব্য করে বললেন, তৃণমূলের ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন কমিটি পক্ষপাতিত্ব করতে পারে। এক্ষেত্রে তৃণমূলের ভোটারদের কাছে যার জনপ্রিয়তা বেশি জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা পর্যবেক্ষণ করে খোঁজ খবর নিয়ে তার নাম কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ডে পাঠালে, সেই অনুযায়ী মনোনয়ন দিলে দলের মনোনীত প্রার্থীর জয় নিশ্চিত হবে।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির এই প্রসঙ্গে বললেন, ইউনিয়ন পরিষদে দলীয় প্রার্থী মনোনয়ন হবে গঠনতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায়। সংগঠনের ইউনিয়ন কমিটি সম্ভাব্যদের নাম পাঠাবে উপজেলা কমিটিতে। উপজেলা কমিটি যাচাই করে জেলা কমিটিতে পাঠাবে। বড় কোন মতভেদ সৃষ্টি না হলে, জেলা কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক মনোনয়ন প্রত্যাশীদের নাম কেন্দ্রে পাঠাবেন। কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ড প্রার্থী মনোনয়ন দেবে।

জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল হুদা মুকুট বললেন, প্রার্থী মনোনয়নের ক্ষেত্রে ইউনিয়ন কমিটি পাঠাবে উপজেলা কমিটিতে। উপজেলা কমিটি পাঠাবে জেলা কমিটিতে। জেলা কমিটি বৈঠকে বসে প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করে কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ডে পাঠাবে। সভাপতি বা সম্পাদক অর্থাৎ দুইজন আর একজনে কোন সুপারিশ করে পাঠালে এটি অগঠনতান্ত্রিক হবে।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুরাদ উদ্দিন হাওলাদার বললেন, সুনামগঞ্জের বেশিরভাগ ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। করেনা পরিস্থিতির কারণে নির্বাচন করা যায় নি। পরিস্থিতির অবনতি না হলে ধাপে ধাপে সবগুলোরই নির্বাচন হয়ে যাবে। স্থানীয় সরকারের নির্বাচন প্রক্রিয়া ২১ জুন থেকে শুরু হচ্ছে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ