About Us
শনিবার, ১৫ মে ২০২১
  • সোশ্যাল প্ল্যাটফর্ম:
মোঃ ইলিয়াস আলী
প্রকাশ ০২/০৫/২০২১ ০৫:১২পি এম

বালিয়াডাঙ্গীতে ‘রহস্যজনক’ আগুন, ২ নারীসহ আটক ১২

বালিয়াডাঙ্গীতে ‘রহস্যজনক’ আগুন, ২ নারীসহ আটক ১২ Ad Banner

কয়েক সপ্তাহ থেকে ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে থেমে থেমে যেখানে সেখানে জ্বলে উঠা আগুনের রহস্য উন্মোচনে ওই গ্রামের ১০টি পরিবারের নারীসহ ১২ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। গতকাল শনিবার গভীর রাতে উপজেলার চাড়োল ইউনিয়নের ছোট সিঙ্গিয়া গ্রাম থেকে তাদের আটক করা হয়।

আজ রবিবার সকালে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান দিলিপ কুমার চ্যাটার্জী বাবু ও বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি তদন্ত আব্দুস সবুর আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  স্থানীয় চেয়ারম্যান দিলিপ কুমার চ্যাটার্জী জানান, গেল কয়েকদিন ধরে পুলিশ ও গ্রাম পুলিশের নজরদারি বৃদ্ধি করা হয়েছে। এরপর থেকেই রাত্রিবেলা আগুন লাগা বন্ধ এবং দিনের বেলাও আগুন লাগার ঘটনা কমেছে।  রবিবার সকালে ওই গ্রামে গিয়ে দেখা গেছে, ১৫ জন পুলিশ সদস্য, ৪ জন গ্রাম পুলিশ সার্বক্ষণিক ১০ টি পরিবারের বাড়িতে নরজদারি রাখছেন। 

ভুক্তভোগী মোতালেব হোসেন জানান, হঠাৎ করেই গোয়েন্দা পুলিশ এসে গ্রামের লোকজনেরাই আগুন লাগিয়েছে এমন অভিযোগ তুলে মারধর করে নারীসহ ১২ জনকে থানায় তুলে নিয়ে গেছে। আমরা নিজেরাই নিজেদের ঘরে আগুন দিচ্ছি এমন অভিযোগ তোলা হচ্ছে আমাদের বিরুদ্ধে।  আমেনা বেগম বলেন, আমরা চাই দ্রুত ঘটনার রহস্য উন্মোচন ও এমন ভীতিকর পরিস্থিতি থেকে পরিত্রাণ চাই।  বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুস সবুর জানান, ঠাকুরগাঁও থেকে গোয়েন্দা পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে গেছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষ হলেই ছেড়ে দিবে বলে জানা গেছে।  গ্রেফতার এর বিষয়ে মুঠোফোনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা যোবায়ের হোসেনের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি কিছুই জানেন না বলে জানান ৷ 

উল্লেখ, গেল মাসের ২৯ তারিখে শবে বরাতের রাতে প্রথম আগুনের সূত্রপাত হয়। ওইদিন আগুন নিয়ন্ত্রণে আনলেও পরের দিন ৩০ মার্চ আগুনে ৩টি পরিবারের ঘর-বাড়িসহ আসবাবপত্র পুড়ে গিয়ে প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়। এরপর থেকেই গ্রামের বিভিন্ন স্থানে আগুন লেগেই আছে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ