About Us
Lutfor Rahman - (Lalmonirhat)
প্রকাশ ০২/০৫/২০২১ ১০:০৯এ এম

ঈদের উপহার হিসেবে গাভী-বাছুর পেলেন সেই আফজাল হোসেন

ঈদের উপহার হিসেবে গাভী-বাছুর পেলেন সেই আফজাল হোসেন Ad Banner

এবার ঈদে একটি গাভী ও একটি বাছুর গরু উপহার হিসেবে পেলেন বাঁশের মুড়া বিক্রেতা সেই আফজাল হোসেন। এ মহান কাজটি করেছেন ধনাঢ্য এক হ্নদয়বান ব্যক্তি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই ব্যক্তি বলেন কিছুদিন আগে বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রকাশিত "বাঁশের মুড়ায় সংসার চালান আফজাল হোসেন" খবরটি দেখে বিস্মিত হই। এছাড়া বুড়িমারী ইউপি সচিব (প্রাক্তন সচিব জগতবেড়) মাসুদুর রহমান মাসুম ও সমাজসেবক তাহেরুল ইসলাম হিটু আমাকে অনুপ্রাণিত করেন। এরপর যৌথভাবে চিন্তা করে সেই আফজাল হোসেনের সাথে কথা বলে তার মতামত নেওয়া হয়। আফজাল হোসেনের শারিরীক অবস্থা ও বয়স বিবেচনা করে একটি গাভী ও বাছুর উপহার দেয়ার সিদ্ধান্ত নেই।

গত বৃহস্পতিবার পাটগ্রাম পৌরসভার রসূলগঞ্জ হাটে ৪৫ হাজার টাকায় গাভী গরুটি বাছুরসহ কেনা হয়।ওইদিন দুপুরবেলা বাছুরসহ গাভী গরুটি আফজাল হোসেনের হাতে তুলে দেওয়া হয়। গাভী গরু বাছুর পেয়ে খুবই খুশি হয়েছেন তিনি।দোকান করতে পারবেন না জানিয়ে আফজাল হোসেন একটি গাভী ও বাছুর পাওয়ার জন্য মনোবাসনা প্রকাশ করেছিলেন। তার ইচ্ছা পূরণে এগিয়ে এলেন সমাজের হিতৈষী কয়েকজন মহান ব্যক্তি। আফজাল হোসেন বলেন,সীমাহীন কষ্ট আর দুঃখ থাকবে না।একবেলা আধবেলা না খেয়ে আর থাকতে হবে না।আল্লাহর পক্ষ থেকে একজন বান্দা এগিয়ে এসেছেন।

এ দুনিয়ায় কষ্ট সহ্য করার মত ক্ষমতা সবার থাকে না। কষ্টের সংসারে বোঝা বহনের মত এক ছেলে ছিল।সে মারা যাওয়ায় সেই ছেলের স্ত্রী বউমা,নাতী নাতনীদের সাথে নিজ স্ত্রী ও একটি প্রতিবন্ধী মেয়েসহ করোনাকালে ৬ সদস্যের সংসার অচলাবস্থা হয়ে পড়ে। এমন একটি খবরে আফজাল হোসেনের অবর্ণনীয় দুঃখের ভাগিদার হলেন সেই মহান ব্যক্তি। তার জন্য ঈদের দিন নামাজে দোয়া করবেন বলে জানান আফজাল হোসেন। এমন পরিস্থিতি শুনে গরু ক্রয় বাবদ রশিদ ফি নেননি পাটগ্রাম পৌরসভার রসূলগঞ্জ হাট -বাজার ইজারাদার আলী আহমেদ।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ