About Us
MD.KAMRUZZAMAN SOHAG - (Kushtia)
প্রকাশ ০১/০৫/২০২১ ০৫:১৮পি এম

কক্সবাজারে আবাসিক হোটেল থেকে তরুণীর মরদেহ উদ্ধার

কক্সবাজারে আবাসিক হোটেল থেকে তরুণীর মরদেহ উদ্ধার Ad Banner

কক্সবাজার শহরের কলাতলী এলাকার একটি আবাসিক হোটেল থেকে এক তরুণীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

গতকাল শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) বিকেলে তরুণীর মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। ধর্ষণের পর ওই তরুণীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে সন্দেহ পুলিশের। 

পুলিশ জানায়, নিহত তরুণীর ব্যাগ থেকে একটি জাতীয় পরিচয়পত্র উদ্ধার করা হয়েছে। তাতে তার নাম ছেনুয়ারা (২১)। বাবার নাম হাসান। বাড়ি চট্টগ্রাম মহানগরের পাঁচলাইশ থানার চকবাজার আরাকান সড়কে উল্লেখ আছে। 

হোটেলকক্ষে তরুণীর মৃত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করে কক্সবাজার সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বিপুল চন্দ্র ধর বলেন, বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে ওই তরুণীকে নিয়ে সি-পার্ল-১ নামের হোটেলের পঞ্চম তলার ডি-১ কক্ষে ওঠেন এক তরুণ। কক্ষটির ভাড়াটিয়া মালিক মোতাহের হোসেন। শুক্রবার দুপুরে ঐ কক্ষের ভেতর কারও সাড়াশব্দ না পেয়ে বিকল্প চাবি দিয়ে কক্ষের দরজা খোলেন হোটেলের কর্মচারীরা। এ সময় সিলিং ফ্যানের সঙ্গে তরুণীকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান তাঁরা।

এরপর পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। বিকেল চারটার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে কক্ষের মেঝেতে পড়া অবস্থায় তরুণীর মরদেহ দেখতে পায়। তরুণীর গলায় চাদর মোড়ানো। ঘটনার পর থেকে তরুণ পলাতক। 

হোটেলকক্ষের ভাড়াটিয়া মালিক মোতাহেরকে আটক করে থানায় আনা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মোতাহের পুলিশকে জানিয়েছেন, পলাতক তরুণ তাঁর পূর্ব পরিচিত ছিলেন। কিন্তু কী কারণে তরুণী মারা গেছেন, তা তিনি জানেন না। 

ঘটনাস্থলে পৌঁছে মামলার আলামত সংগ্রহ করে পুলিশের পৃথক দুটি দল সিআইডি ও পিবিআই। পুলিশের সন্দেহ, বৃহস্পতিবার রাতের কোনো একসময় ধর্ষণের পর তরুণীকে কক্ষের ভেতর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হতে পারে। এরপর গলায় চাদর পেঁচিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়।  ময়নাতদন্তের জন্য তরুণীর মরদেহ কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন হাতে এলেই বলা যাবে এটা আত্মহত্যা নাকি ধর্ষণের পর হত্যা।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ