About Us
Lutfor Rahman - (Lalmonirhat)
প্রকাশ ০১/০৫/২০২১ ১২:১০এ এম

তদন্তে বিজিবি'র দুই বিওপি'র তিনজন বদলি

তদন্তে বিজিবি'র দুই বিওপি'র তিনজন বদলি Ad Banner

বহুল আলোচিত তিনবিঘা করিডোর। এটি লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার দহগ্রাম -আঙ্গারপোতাবাসীর চলাচলের একমাত পথ। এখানে যেতে হলে বিজিবি'র দুটি বিওপি দুটি চেকপোস্ট এ তল্লাসী করা হয়।

চোরাচালান ঠেকাতে সপ্তাহে দু'দিন শনি ও বুধবার ৩০ টি করে ৬০ টি গবাদিপশু বিক্রয়ের জন্য ইউনিয়ন পরিষদের দেয়া স্লীপ অনুমোদন দেন বিজিবি ও বিএসএফ। সম্প্রতি সেখান থেকে ৩০ টি গরুর সাথে একটি গাভী'র একটি বাছুর ছিল। বাছুরটি কেন অতিরিক্ত নেয়া হয়েছে, এজন্য বিজিবি'র বিএসবি গোয়েন্দা এব্রাহিম সেটি আটক করে পরদিন দহগ্রাম বিওপিতে ১৫ হাজার টাকায় নিলাম দেন। দহগ্রামের বাসিন্দা জব্বারের পোষা গাভী ও বাছুর গরুটি কিনে নেন পাটগ্রামের সিরাজ নামের একলোক। গরু কেনা ৯৫ হাজার স্লিপ, দালাল ও নিলাম বাবদ তার খরচ আরও ৪৫ হাজার। ১ লাখ ৪০ হাজার টাকার গরু বাঁচাতে চোখের জল ফেলেন তিনি। এমন ঘটনা বিরল। ছোট্ট একটা বাছুর অবৈধ ঘোষনা করে অথচ গাভীটি বৈধ হিসেবে অনুমতি দেন বিজিবি'র গোয়েন্দা।

এ ঘটনায় গোপন তদন্তে দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগে পানবাড়ি কোম্পানি কমান্ডার সাঈদ,হাবিলদার মাহবুব এবং দহগ্রাম বিওপি কমান্ডার আবু জাফরকে বদলি করা হয়েছে। পানবাড়ি কোং কমান্ডার হিসেবে নজরুল ইসলাম এবং দহগ্রামে বিওপি কমান্ডার হিসেবে নাসিরকে পোস্টিং দিয়েছেন ৫১ বিজিবি'র কর্তৃপক্ষ।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করার চেস্টা করলে, লে.কর্ণেল ইসহাক ফোন রিসিপ করেননি। তবে বিজিবি'র পক্ষ থেকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আরেকজন গোয়েন্দা বলেন,বাছুর গরু আটকের ঘটনায় বদলি নয়,এটি রুটিন মাফিক বদলি।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ