About Us
Md. Jashim Uddin
প্রকাশ ০১/০৫/২০২১ ০১:২১এ এম

কৃষ্ণচূড়ার রঙে সেজেছে বানিয়াচংয়ের প্রকৃতি

কৃষ্ণচূড়ার রঙে সেজেছে বানিয়াচংয়ের প্রকৃতি Ad Banner

কৃষ্ণচূড়া। এক ধরনের বৃক্ষ জাতীয় উদ্ভিদ। ইংরেজি নাম ফ্লেম ট্রি (Flame Tree). বৈজ্ঞানিক নাম ডেলোনিক্স রেজিয়া (Delonix regia).  বাংলাদেশের শহর থেকে গ্রাম প্রায় সব অঞ্চলেই ফুটে থাকে মনোমুগ্ধকর এই ফুলটি। বৈশাখের প্রখর সূর্যের আলোতে যখন প্রকৃতি তপ্ত, তীব্র দাবদাহে হঠাৎ বয়ে যায় মৃদু গরম হাওয়া। করোনার ভয়াল থাবায় যখন স্তব্ধ সারা বিশ্ব। উদবেগ-উৎকন্ঠায় যখন কাটছে মানুষের জীবন। প্রকৃতি তখন সেজে চলেছে তার আপন মহিমায়।     

সবুজ পাতা-ফুলে-ফলে প্রকৃতি সেজে চলেছে তার চিরচেনা রুপে। দেশের অন্যান্য অঞ্চলের ন্যায় সেজেছে বিশ্বের বৃহত্তম গ্রাম বানিয়াচংয়ের প্রকৃতি। গ্রীষ্মের নানা রঙের নবপল্লবে, ফুলে, ফলে ভরে উঠেছে প্রকৃতি। আনাছে কানাছে ফুটছে নানা রঙের ফুল। বৈশাখ মাসের তপ্ত রোদ, ঝলমলে আলোর খেলা আর বাতাসে বোরো ধানের মৌ মৌ গন্ধে ছন্দ তুলে ধরেছে বানিয়াচংয়ের নয়নাভিরাম প্রকৃতি। 

এমন রুক্ষ গ্রীষ্মে বানিয়াচংয়ের প্রকৃতি সেজেছে বাহারি রঙের ফুলে। অন্যান্য ফুলের ন্যায় গাছে গাছে ফুটেছে রক্তিম কৃষ্ণচূড়া। করোনার এই মন খারাপের সময়ে আপন মনে সৌন্দর্য্য বিলাচ্ছে এই রক্তিম কৃষ্ণচূড়া। বানিয়াচংয়ের পাড়ায়-মহল্লায় রাস্তার পাশে এখন দেখা মিলে অসংখ্য কৃষ্ণচূড়া গাছের। গাছের ডালে সবুজ পাতা ভেদ করে, মৃদু বাতাসে হেলে দুলে যেন পথচারীদের স্বাগত জানাচ্ছে রক্তিম কৃষ্ণচূড়া। যদিও এই আহবানে সাড়া দেয়ার সময় নেই ব্যস্ত পথিকের।

তবে সবুজ পাতার ফাঁকে বের হওয়া রক্তিম কৃষ্ণচূড়ার মায়াবী এই আহবান কবি-সাহিত্যিকদের হৃদয়কে আন্দোলিত করে খুব সহজেই। কেননা- দুঃখ, যন্ত্রণা, বঞ্চনা, হতাশা ও সংশয়ে ভরা মানবজীবনে এই ফুল ও বৃক্ষ আনন্দ আর প্রেমের এক অফুরান উৎস হয়ে ঠিকে আছে পৃথিবীতে।     

বাংলা সাহিত্য, গান ও বিভিন্ন স্থানে কৃষ্ণচূড়া ফুলের কথা নানাভাবে উঠে এসেছে। তাই তো কবি শামসুর রাহমান লিখেছেন, ‘আবার ফুটেছে দ্যাখো কৃষ্ণচূড়া থরে থরে শহরের পথে/কেমন নিবিড় হয়ে। কখনো মিছিলো কখনো বা/একা হেঁটে যেতে যেতে মনে হয়- ফুল নয়, ওরা/শহীদের ঝলকিত রক্তের বুদবুদ, স্থৃতিগন্ধে ভরপুর।’    বাংলার বিভিন্ন গানেও এসেছে মায়াবী এই কৃষ্ণচূড়ার কথা। শিল্পী আসিফ আকবর গেয়েছেন-  'রং লেগেছে কৃষ্ণচূড়ায়/ শাখায়-শাখায়—/পাতায়-পাতায়—/রং লেগেছে, তোমার অবুঝ-মনে /আমার অনেক কথা আছে/ বলবো তোমার সনে—।’     

লেখকঃ প্রভাষক, বানিয়াচং আইডিয়েল কলেজ।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ

Md.Abu Jafar - (Bhola)
প্রকাশ ১৩/০৫/২০২১ ০৩:৫৯পি এম
Md.Abu Jafar - (Bhola)
প্রকাশ ১৩/০৫/২০২১ ১২:৫০পি এম
Md.Mahadi Hasan Munshi - (Comilla)
প্রকাশ ১১/০৫/২০২১ ০২:২১পি এম
MD hedaetul Islam - (Sirajganj)
প্রকাশ ১০/০৫/২০২১ ০৮:৫৭পি এম
Md.Abu Jafar - (Bhola)
প্রকাশ ০৯/০৫/২০২১ ০৮:৪৫পি এম