About Us
oyasim uddin - (Kishoreganj)
প্রকাশ ৩০/০৪/২০২১ ১০:১০এ এম

হবলু পাগলা সমাচার পর্ব--৭

হবলু পাগলা সমাচার পর্ব--৭ Ad Banner

দোকান থেকে পাঁচ টাকা দিয়ে আরেকটি কেক কিনে কুকুরটির কাছে যায়। মোড় থেকে পূর্ব দিকে হাইস্কুলের মাঠে গিয়ে কেকটিকে খেতে দেয়। আর মনে মনে বলছে, 

শুনেছি শয়তানের থুথু ও মানুষের নাভীর কিছু অংশ দিয়ে তোর সৃষ্টি। তবুও তুই  কতইনা কৃতজ্ঞ। 
অথচ মানুষকে উপরওয়ালা কত মহব্বত করে সৃষ্টি করেছে তারপরও বেশীরভাগ ক্ষেত্রে তারা হয় অকৃতজ্ঞ। কত অন্যায় অবিচার হয় এই মানুষের দ্বারা।
-- খাবার শেষ হয়েছে, যা এবার তোর পথে তুই যা আমার পথে আমি। 
হাইস্কুলের উত্তর পশ্চিমের রাস্তা দিয়ে মেইন রোডে এসে দাড়ায়।  
কুকুরটি আবার পিছু নেয়। হবলু বুজতে বাকি নেই যে এই অবলা কুকুরটি তার কোন কথা শুনবেনা। 
 তাই ভাবছে হেটে গেলে হয়ত পিছু পিছু আমার গন্তব্য পর্যন্ত চলে যাবে। 
মীর সাহেব আবার কুকুর সহ্য করতে পারেনা। যা পূর্বের অভিজ্ঞতা থেকে জানা আছে। 
তাই বাধ্য হয়ে একটি রিকশার খোঁজ করছে। রাতে মাহফিল হয়ে যাওয়ায়  সকাল বেলা এই এলাকায় লোক সমাগম কম। রাস্তাঘাট বলতে গেলে গাড়ী শূন্য। 
উত্তর দিক থেকে একটি রিকসা পায়ে প্যাটেল দিয়ে এদিকে আসছে। বয়োজ্যেষ্ঠ মানুষ এই বয়সে  কেনো যে রিকসা চালায় তাই বুজিনা। মনে হয় নিঃসন্তান তা নাহলে এমনটি হবার কথা নয়।
আমাকে দেখে রিকসা থামাল। বলল
-- কোথাও যাবেন ভাই?
-- হুম যাব, দামিহাতে যাবো 
-- দাইম্যা 
-- হুম 
-- ওখানে তো যাওয়া যাবেনা ভাই। মাগুরীর ব্রীজের কাজ চলতাছে আবার  বারুকপাড়ের রাস্তার উপর পাহাড় সমান মাটি কাটতাছে  পাক্কা রাস্তা বানাইব কাজলার মতিন সাহেব।
-- হুম আমি জানি, কারণ আমি ওইখানেই বসবাস করি। আমাকে মাগুরীর ঘাট পর্যন্ত দিলেই চলবে।
-- চল্লিশ টাকা ভাড়া চেয়ে বৃদ্ধ লোকটি হু করে চেয়ে রইল। হবলু কিছু না বলাতে বৃদ্ধ আবার বলল ভাড়া কি বেশি চাইছি? 
সবটা পাকা রাস্তা না। বগারবাইদের কাছে কাঁচা রাস্তাও আছে।
-- হবলু বললো না না বেশি বলেন নি। 
-- তাহলে উঠুন
-- হবলু কুকুরটির উদ্দেশ্য বলে যা এবার যা -নিজে ঘুরে ফিরে পরিশ্রম করে খাইস। মানুষের অত্যাচারের স্বীকার হইস না। পারলে কোন গৃহস্তের ঘরে রাখালী করিস। তাহলে খাওয়া খাদ্যর খুব একটা অভাব হবে না।
-- কুকুরের সাথে কথা বলতে দেখে বৃদ্ধ লোকটি মনে মনে বলে, লোকটাকে তো ভালো মানুষ মনে করেছিলাম। এখনতো দেখছি আস্তা পাগল।
চলমান,,,,,,,,,,,,,
(এই উপন্যাসের প্রতিটি পর্বই কাল্পনিক শুধু ভালো লাগার স্থান ও গ্রামের নাম ব্যবহার করেছি)

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ