About Us
শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১
  • সোশ্যাল প্ল্যাটফর্ম:
রুহুল ইসলাম হৃদয় - (Moulvibazar)
প্রকাশ ২৮/০৪/২০২১ ১০:০১পি এম

লাউয়াছড়ায় অগ্নিকান্ডে বনবিভাগের ৩ জন দায়ী: তদন্ত কমিটি

লাউয়াছড়ায় অগ্নিকান্ডে বনবিভাগের ৩ জন দায়ী: তদন্ত কমিটি Ad Banner

মৌলভীবাজার লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে আগ্নিকান্ডের ঘটনায় তদন্ত কমিটি তাদের প্রতিবেদন বিভাগীয় বন কর্মকর্তার অফিসে জমা দিয়েছে। প্রতিবেদনে আগুন লাগার ঘটনায় লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের ৩ কর্মচারী ও কর্মকর্তার দায়িত্বে অবহেলাকে দায়ী করা হয়েছে।  বুধবার দুপুরে তারা প্রতিবেদনটি জমা দেন বলে নিশ্চিত করেছেন তদন্ত কমিটির প্রধান বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ কর্মকর্তা মির্জা মেহেদি সরোয়ার। 

জানা যায়, তদন্ত কমিটি প্রতিবেদনে ১০টি পয়েন্ট উল্লেখ করেছে। এরমধ্যে ৭ এবং ৮ নং পয়েন্টে উল্লেখ করা হয়েছে ইচ্ছেকৃতভাবে আগুন লাগার ঘটনার প্রমাণ সেভাবে মেলেনি তবে বনে কোনো ময়লা বা আগাছায় কোনভাবেই আগুন দেওয়া যাবে না বলে পূর্বেই নির্দেশ দিয়েছিল বিভাগীয় বন কর্মকর্তা। তাই আগুন লাগার ঘটনায় নির্দেশ অমান্য করা হয়েছে।  এই ঘটনায় দায় দেওয়া হয়েছে বনবিভাগের ৩ জনের উপর। তারা হলেন বাঘমারা ক্যাম্পের বনপ্রহরী মোতাহার হোসেন,লাউয়াছড়া বিট অফিসার মিজানুর রহমান এবং সহযোগী সদস্য (কমিনিউটি পেন্ট্রোল দল) মো. মহসিন।

এই তিনজন দায়িত্ব পালন না করা, আগুন লাগার পর তা নেভানোর চেষ্টা না করে ঘটনাস্থল থেকে দূরে চলে যাওয়া, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবগত না করাসহ বিভিন্ন কারণে তদন্ত কমিটি এই ঘটনার জন্য তাদেরকেই দায় দিয়েছে।  একই সাথে তদন্ত কমিটি তাদের প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছেন, আগুনের সূত্রপাত বনায়নের জায়গা থেকে হয়েছে। এতে পুড়েছে দেড় একর জায়গা তবে তেমন বড় কোনো গাছ পুড়েনি। যে জায়গায় বনায়ন করা হবে সে জায়গা পোড়ায় তা বনায়নের মাধ্যমে এবং অন্য জায়গায় বৃষ্টি হলেই নতুন গাছ প্রাকৃতিকভাবে জন্মাবে। 

তদন্ত কমিটি বেশ কিছু সুপারিশ করেছে তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে, বনবিভাগের স্টাফদের উপর তদারকি বাড়াতে হবে। প্রাকৃতিকভাবে জন্ম নেওয়া গাছ ও লতাপাতার প্রতি যত্নশীল হতে হবে। বনের উন্নয়নমূলক কাজের সময় গ্যাস লাইট বা দিয়াশলাই সাথে রাখা যাবে না। অগ্নিনির্বাপক সরঞ্জাম সাথে রাখতে হবে। সেই সাথে আশপাশের ফায়ার স্টেশনের নম্বর রাখতে হবে। 

বিভাগীয় বন কর্মকর্তা রেজাউল করিম চৌধুরী জানান, প্রতিবেদন হাতে পেয়েছেন। সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করে বনবিভাগের নিয়ম অনুসারে দায়িত্বে অবহেলার জন্য ৩ জনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এবং ভবিষ্যতে যেন এমন অনাক্ষাকিত কিছু না ঘটে সেজন্য তদন্ত কমিটি যে সুপারিশ করছে তা আমলে নিয়ে পদক্ষেপ নেয়া হবে। 

উল্লেখ্য, গত ২৪ এপ্রিল লাউয়াছড়ার স্টুডেন্ট ডরমেটরি অংশের পাশে বাঘ মারা এলাকায় কাজ করছিলেন কিছু শ্রমিক। সেখানে আগাছা পরিষ্কার করে গাছ লাগানোর জন্য বনবিভাগের অধীনে কাজ করছিলেন তারা। সে জায়গায় দুপর ১২টার দিকে হঠাৎ আগুনের সূত্রপাত হয় এবং ৪টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে বনবিভাগ ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজন। এই ঘটনার তদন্তে দুই সদস্যের কমিটি গঠন করে বনবিভাগ।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ