About Us
শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১
  • সোশ্যাল প্ল্যাটফর্ম:
Sobuj Shah
প্রকাশ ২৬/০৪/২০২১ ০২:৩৬পি এম

নওগাঁয় তরমুজ বাজার নিয়ন্ত্রণ করছে সিন্ডিকেটরা

নওগাঁয় তরমুজ বাজার নিয়ন্ত্রণ করছে সিন্ডিকেটরা Ad Banner

নওগাঁর মান্দাসহ এগারো উপজেলায় সেন্ডিকেট করে তরমুজের দাম বাড়িছে ব্যবসায়ীরা।  একদিনের ব্যবধানে প্রতি কেজি তরমুজের দাম   বেড়েছে ৩০ থেকে ৪০ টাকা।  তরমুজ ব্যবসায়ীরা বলছে লকডাউনের কারণে পরিবহন ভাড়া বেড়েছে। ব্যবসায়ীদের মতে পরিবহন ভাড়াসহ তরমুজ লোড-আনলোড শ্রমিকের পারিশ্রমিক এবং বকশিস বেড়েছে কয়েক গুণ।   

তবে পরিবহন ভাড়া বৃদ্ধির বিষয়টি অস্বীকার করে নওগাঁ জেলা ট্রাক বন্দবস্তকারী সমিতির এক নেতা বলেন,   পরিবহন ভাড়া বৃদ্ধির কথা বলে তরমুজ ব্যবসায়ীরা প্রশাসনের সহানভূতি পাওয়ার চেষ্টা করছে।  এদিকে ভোক্তারা বলছেন, লকডাউন এবং পরিবহন ভাড়া বৃদ্ধির অজুহাতে জেলার তরমুজসহ অন্যান্য ফল ব্যাবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে অতিরিক্ত মুনাফা অর্জন অব্যহত রেখেছে।  মাত্র একদিন আগে যে তরমুজ ২৫ থেকে ৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে।

হটাৎ করে সেই তরমুজ গত ২৪ এপ্রিল শনিবার জেলা সদরসহ ১১ উপজেলার তরমুজসহ ফল ব্যবসায়ীরা কেজি প্রতি ৩০ থেকে ৪০ টাকা বৃদ্ধি করছে।  অপর দিকে জেলার পত্নীতলা, মান্দা ও মহাদেবপুর উপজেলার বিভিন্ন এলাকার তরমুজ চাষীরা জানান, তারা চলতি মৌসুমে পাইকারদের কাছে সর্বোচ্চ দেশি জাতের তরমুজ ১০/২০টাকা কেজি দরে এবং ভিয়েতনামের ক্রাউন জাতের হলুদ রঙের তরমুজ ৪০/৫০টাকা কেজি দরে বিক্রি করে আসছে।  খোঁজ নিয়ে জানা গেছে জেলার প্রতিটি আড়তে এবং খুচরা ব্যাবসায়ীদের গুদামে পর্যাপ্ত পরিমাণ তরমুজ এবং অন্যান্য ফল রয়েছে। 

ভোক্তাদের অভিযোগ সরকারের বাজার নিয়ন্ত্রণ ও মনিটরিং ব্যবস্থা দুর্বলের কারণে ব্যবসায়ীরা ইচ্ছামত তাদের পণ্যের মূল্য নির্ধারণ করে আসছে।   ফলের ভরা মৌশুমে হটাৎ করে অতিরিক্ত মুনাফা অর্জনের লক্ষে দাম বৃদ্ধির ফলে সাধারণ মানুষ পড়েছে বিপাকে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ