About Us
শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১
  • সোশ্যাল প্ল্যাটফর্ম:
Sk Shakil Ahmed
প্রকাশ ২৪/০৪/২০২১ ০৩:১১পি এম

মধুর উপকারিতা ও রোগ নিরাময় গুণাবলী

মধুর উপকারিতা ও রোগ নিরাময় গুণাবলী Ad Banner

মধু কেবল উপকারী খাদ্য নয়, মহাঔষধও বটে। খাঁটি  মধুর অসংখ্য গুনাগুন আছে যা স্বাস্থ্যের সুরক্ষায় ভূমিকা রাখতে সক্ষম। মধু হলো লাখ লাখ মৌমাছির অক্লান্ত শ্রম আর সেবাব্রতী জীবনের দান। মধুতে ভিটামিন এ, বি, সি প্রচুর পরিমাণ বিদ্যমান। অনেক প্রয়োজনীয় খাদ্য উপাদানও আছে। যেমন- এনজাইম বা উৎসেচক, খনিজ পদার্থ যেমন পটাশিয়াম, ক্যালশিয়াম, ফসফরাস, ম্যাঙ্গানিজ। এছাড়াও প্রোটিন আছে।

মধুতে কোনও কোলস্টেরল নেই। জেনে নিন মধুর বহুগুণ-  মধুতে বিদ্যমান গ্লুকোজ, ফ্রুক্টোজ ও শর্করা শরীরে শক্তি সবরাহে কাজ করে। প্রতিদিন সকালে ১ চামচ মধু সারা দিনের জন্য দেহের পেশির ক্লান্তি দূর করতে সহায়তা করে ও আপনাকে রাখে এনার্জিতে ভরপুর।  মধু ওজন কমাতে সাহায্য করে। প্রতিদিন সকালে ১ গ্লাস কুসুম গরম পানিতে ১ চামচ মধু মিশিয়ে পান করলে হজমশক্তি বাড়ে। ফলে খাবারের ক্যালোরি দ্রুত ক্ষয় হয়। 

প্রাকৃতিক অ্যান্টিসেপটিক হওয়ার কারণে ব্রনর সমস্যার দারুন সমাধান রয়েছে মধুতে। মধু দিয়ে নিয়মিত মুখ পরিস্কার করলে, মুখে ব্রন, অ্যাকনে প্রভৃতি হয় না।   চোখকে সংক্রমণের হাত থেকেও বাঁচায় মধু। কনজাংকটিভাইটিস এবং অন্যান্য অসুখের হাত থেকে চোখকে মধু রক্ষা করে। 

মধুতে প্রচুর পরিমানে প্রাকৃতিক অ্যান্টি-অক্সিডেন্টস থাকায় এটি আমাদের ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। মধু আমাদের ত্বককে কোমল ও উজ্জ্বল করে এবং ত্বকে বয়সের ছাপ পড়তে দেয় না। মধুতে রয়েছে ভিটামিন ‘বি’ কমপ্লেক্স, যা কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। ভোরে ১ চা চামচ খাঁটি মধু খেলে কোষ্ঠবদ্ধতা ও অম্লত্ব দূর হয়।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ