Md.Shagar Hasan - (Kushtia)
প্রকাশ ০৭/০৪/২০২১ ১০:১৮পি এম

একজন প্রকৌশলী সাইফুল আলম মারুফ ও তার হার না মানা গল্প

একজন প্রকৌশলী সাইফুল আলম মারুফ ও তার হার না মানা গল্প Ad Banner

সড়ক দুর্ঘটনায় চলার শক্তি হারান কুষ্টিয়ার প্রকৌশলী সাইফুল আলম মারুফ। ছন্দ পতন হয় স্বাভাবিক জীবনে। সব প্রতিকূলতা পেরিয়ে ঘুরে দাঁড়ান তিনি। আমদানি করেন অটো রাইস মিলের যন্ত্রাংশ। এরপর হন যন্ত্রাংশ তৈরি কারখানার মালিক।কুষ্টিয়ার প্রকৌশলী সাইফুল আলম মারুফ। জীবন যুদ্ধে ঘুরে দাঁড়ানোর এক জীবন্ত গল্প।কাজ করতেন একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে। 

আজ থেকে ১৪ বছর আগে সড়ক দুর্ঘটনায় পতিত হন তিনি।২০০৬ সালে সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে মেরুদণ্ডে আঘাত পাওয়ায় হারিয়ে ফেলেন চলার শক্তি। ফলে অনিশ্চিত হয়ে পড়ে চাকরি জীবন।বেঁচে থাকার তাগিদে মারুফ বিদেশ থেকে আমদানি করেন আটো রাইস মিলের যন্ত্রাংশ। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। এখন তিনি আটো রাইস মিলের যন্ত্রাংশের কারখানার মালিক। তার অধীনে কাজ করছেন ২০০ জন মানুষ।

প্রকৌশলী সাইফুল আলম শুধু একজন সফল উদ্যোক্তাই নন, তিনি এখন প্রতিবন্ধী মানুষেরও প্রেরণা। প্রতিবন্ধীদের জন্য সহযোগীতার হাত বাড়ানোর পাশাপাশি তিনি নিজেকে সামাজিক বিভিন্ন কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত রেখেছেন।তিনি কুষ্টিয়া চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির পরিচালকের পাশাপাশি তিনি দুর্ণীত প্রতিরোধ কমিটি কুষ্টিয়া জেলা মাখার সদস্য।এক বার্তায় তিনি বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা আজ আমার ১৪ বছর পুর্ন হল।

সুস্থ্যতা আল্লাহ পাকের বড় নিয়ামত। তাই আমি আল্লাহতায়ালার কাছে লাখো কোটি শুকরিয়া আদায় করি। আমি আমার এই বাকী জীবন টুকুতে কারও উপকার করতে না পারলেও আমাকে দিয়ে যেন কারো কোন ক্ষতি না হয় এই কামনাই করি।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ