About Us
MD.KAMRUZZAMAN SOHAG - (Kushtia)
প্রকাশ ০৬/০৪/২০২১ ১২:৩৭পি এম

আমের বাম্পার ফলনের আশায় মেহেরপুরের বাগানিরা

আমের বাম্পার ফলনের আশায় মেহেরপুরের বাগানিরা Ad Banner

মেহেরপুরকে আমের জেলা বলেই অনেকে চেনে। বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের এই ছোট্ট জেলাতে উৎপাদিত হয় প্রচুর সুস্বাদু আম। দেশের যে কয়টি জেলাতে আম উৎপাদিত হয় তার মধ্যে স্বাদে-গন্ধে মেহেরপুর শীর্ষে। চলতি মৌসুমেও আমের বাম্পার ফলন হবে বলে আশাবাদী চাষিরা। এ বছর ছোট বড় গাছ মিলে জেলায় প্রায় তিন হাজার ৩৫০ হেক্টর জমিতে আমের বাগান রয়েছে। প্রায় প্রতিটি বাগানেই মুকুল থেকে গুটিতে রূপ নিয়েছে।

মেহেরপুর জেলায় উৎপাদিত আমের মধ্যে হিমসাগর, বোম্বাই, ল্যাংড়া, আম্রপালি প্রসিদ্ধ। এছাড়াও গোপালভোগ, ক্ষীরসাপাতি, আশ্বিনা, গবেষণাকৃত বারি-৩, বারি-৪, বারোমাসি কাটিমন জাতের বাগান তৈরির ক্ষেত্রেও আগ্রহী হয়ে উঠছে অনেকে। মেহেরপুরের হিমসাগর দেশের বাজার ছাড়িয়ে রপ্তানি হচ্ছে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে। তবে করোনাভাইরাস এর কারণে গত বছর থেকে ইউরোপে আম রপ্তানি বন্ধ আছে।

মেহেরপুরের উৎপাদিত আম ফড়িয়ারা কিনে ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, রংপুর, বরিশালসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করে থাকে। বড় কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে বাম্পার ফলনের প্রত্যাশা করছেন আম বাগান মালিক ও ব্যাবসায়ীরা। ভাল ফলন নিশ্চিত করতে পোকার সংক্রমণ রোধ ও আমের গুটি যেন ঝরে না যায় সে লক্ষে গাছের পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষকরা।

মেহেরপুর সদর উপজেলার আম চাষি শাহরিয়ার লিয়ন জানান, অনুকুল আবহাওয়া ও সঠিক পরিচর্যার কারণে এ বছর আমের বাগানে ব্যাপক মুকুল এসেছিল। সে হিসেবে প্রচুর গুটি ধরেছে। কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে ভাল ফলন পাবার প্রত্যাশা করছি।

আম চাষিদের দাবি সরকারের অন্যান্য চাষে ভূতুর্কির মতো আম চাষিদের জেনো ভর্তুকি দেয়। তাহলে এই জেলায় সুস্বাদু আম চাষে বিপ্লব ঘটবে। এছাড়াও আম পাড়ার ভরা মৌসুমে আমের দাম কমে যায়। এই পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকারের নিকট একটি আম সংরক্ষণাগার স্থাপনের দাবি বাগান মালিকদের।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক স্বপর কুমার খাঁ জানান, অন্যান্য বছরের তুলনায় চলতি বছর মেহেরপুরে আমের ব্যাপক ফলনের আশা করা হচ্ছে। আমের ফলন যেন ভাল হয় তার জন্য প্রতিনিয়ত সঠিক পরিচর্যা ও পোকামাকড় দমনে বালাইনাশক প্রয়োগ করার পরামর্শ দিচ্ছে কৃষি বিভাগের মাঠ কর্মীরা।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ