Abdul Wadut
প্রকাশ ০৬/০৪/২০২১ ১২:৩৫এ এম

বগুড়ায় জরিমানা ১ লাখ ৪২হাজার, লকডাউন প্রত্যাহারের দাবি

বগুড়ায় জরিমানা ১ লাখ ৪২হাজার, লকডাউন প্রত্যাহারের দাবি Ad Banner

করোনা সংক্রমণ রোধে সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়নে লকডাউনের প্রথম দিয়ে বগুড়ায় কয়েকটি উপজেলায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালিয়ে অটোরিকশার গ্যারেজ সিলগালা ও ১ লক্ষ ৪২ হাজার ২শ ৫০টাকা অর্থদন্ড আদায় করা হয়েছে।

সোমবার (৫ এপ্রিল) সকাল থেকে লকডাউনের প্রথমদিনে সদর, শেরপুর, সারিয়াকান্দি ও আদমদীঘি উপজেলায় পৃথক পৃথক অভিযান পরিচালনা করা হয়। লকডাউন চলাকালীন সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়নে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ৭ মামলায় ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও ইউএনও মো. আজিজুর রহমান।

সরকারি নির্দেশনা অমান্য করায় গণপরিবহণ ও খাবার হোটেলে জরিমানা করেন তিনি। একই অপরাধে আরেক অভিযানে ৫টি মামলায় ১৭হাজার ৫০০টাকা অর্থদণ্ড দেন সহকারী কমিশনার ও জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাছিম রেজা ও মো. তাসনিমুজ্জামান।

এ সময় ৬টি অটোরিকশা গ্যারেজ সিলাগালা করা হয়। নির্দেশনা অম্যান্য করে খাবার হোটেল পরিচালনা ও স্বাস্থ্যবিধি না মেনে বাইরে ঘোরঘুরি করায় শেরপুর উপজেলায় ৮ জনের ৬ হাজার ৮০০টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এরমধ্যে ২ হোটেল কতৃপক্ষকে ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও ইউএনও মো. লিয়াকত আলী সেখ, এ সময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (শেরপুর সার্কেল) গাজিউর রহমান, শেরপুর থানা অফিসান ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম, উপজেলা ইউআরসি সায়েদুর রহমান। পৃথক অভিযানে শেরপুর উপজেলায় এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাবরিনা শারমিন ৬ জনকে ১ হাজার ৮০০টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছেন। সরকারি নির্দেশ অমান্য করে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে ওই ৬ জন বাইরে ঘোরঘুরি করছিলেন।

পরে সোমবার বিকেলে আরেক অভিযানে সরকারি নির্দেশ অমান্য করায় আরও ৬ জনকে ২ হাজার ৬০০টাকা অর্থদণ্ড দেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সাবরিনা শারমিন। এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাবরিনা শারমিন বলেন, ‘সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়নে শেরপুর উপজেলা প্রশাসনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।’সারিয়াকান্দি উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, উপজেলায় বিভিন্ন এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ৩৩ মামলায় ৭৮ হাজার ৩৫০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সোমবার দিনব্যাপী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. রাসেল মিয়া ও  সহকারি কমিশনার (ভূমি) আকরামুল হক পৃথক দুটি অভিযানে এ জরিমানা করেন। সারিয়াকান্দি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. রাসেল বলেন, করোনাভাইরাস প্রতিরোধ সরকারি নির্দেশনা মানাতে অভিযান অব্যাহত থাকবে।’ আদমদীঘি উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, সরকারি নির্দেশনা অমান্য করায় কয়েকটি প্রতিষ্ঠান, যানবাহন চালক ও পথচারিদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১৭ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। 

সোমবার সকাল থেকেই এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সীমা শারমিন এ অভিযান পরিচালনা করেন। ভ্রাম্যমাণ আদালতে মোট ১ লাখ ৩৮ হাজার ২৫০টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

এসব অভিযানে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। অন্যদিকে, লকডাউন প্রত্যাহারের দাবিতে বগুড়া মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন ব্যবসায়ীরা। সোমবার দুপুরে শহরের  রানার প্লাজার দোকান মালিক ও ব্যবসায়ীরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন। মানববন্ধনে তারা দাবি তোলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে শপিংমল খোলা রাখার অনুমতি দিতে হবে।

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ উদ্বেগজনক হারে বাড়তে থাকায় আগামী ৫ থেকে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন ঘোষণা করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার। রোববার (৪ এপ্রিল ) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এই প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উপসচিব মো.শাফায়াত মাহবুব চৌধুরী এই প্রজ্ঞাপনে স্বাক্ষর করেন।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ

Verified আই নিউজ বিডি ডেস্ক
প্রকাশ ১৫/০৪/২০২১ ০২:০৪পি এম