Dibarul Islam Dip - (Dhaka)
প্রকাশ ০৩/০৪/২০২১ ০১:৩৯পি এম

তরুণ লেখক অংকনের দ্বিতীয় উপন্যাস খোঁপার বাঁধন

তরুণ লেখক অংকনের দ্বিতীয় উপন্যাস খোঁপার বাঁধন Ad Banner

ঠাকুরগাঁও এর ছেলে মোঃ জাহিদুল ইসলাম অংকন। প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পড়াশোনা শেষ করেছেন ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় থেকে। বর্তমানে ঢাকায় বসবাস করছেন এবং আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীতে অধ্যায়নরত আছেন।

লেখালেখির শুরুটা খুব ছোটবেলাতে না হলেও মাধ্যমিকে থাকতেই শুরু করেছিলেন তিনি। দশম শ্রেণি থেকে   নিজের অস্তিত্ব বাঁচায়ে রাখতে, বাংলা সাহিত্যকে মজবুত কিছু উপহার দিতে লেখালেখির আরম্ভ বলে জানান তিনি।

স্বল্প সময়ের ব্যবধানে সাহিত্যের প্রতি ভালোবাসা আর তীব্র আগ্রহের সাথে নিরলস পরিশ্রমের ফল স্বরূপ ২০২০ সালে প্রকাশিত হয় প্রথম বই 'শূন্য ঠিকানা' । এবং সাহিত্যমালা এই তরুণ লেখক পরবর্তী বছরেই দ্বিতীয় বই প্রকাশ করেন। তার লেখা দ্বিতীয় বই খোঁপার বাঁধন প্রকাশ হয়   ২০২১ সালের ১৪ জানুয়ারি। মূলত তার দুইটি বই-ই উপন্যাস। বই দুইটি এবছর ২০২১ এর বইমেলায় ঘাসফুল প্রকাশনীর ২২৯ নাম্বার স্টোলে পাওয়া যাচ্ছে। 

লেখালেখিতে কাকে  অনুসরণ করা হয় জানতে চাইলে তিনি তার সাহিত্যের মাধুর্যতায় উত্তর জানান,  "যাঁদের কলমের আঁচড়ে যুদ্ধ থেমে যেত তাঁরাই অনুপ্রেরণা।" পরিবারের সহযোগিতা সম্পর্কে জানান,  "বাঁধা ছাড়া তেমন কোন সহযোগিতা পাইনি। মা শুধু বলেছেন, 'আমি জানি তুই যা করবি বুঝেই করবি।' তাই বিশেষ কাউকে ধন্যবাদ দিতে হলে মা কেই দেব।"


গল্প, কবিতা লিখায়  কয়েকবার পুরস্কারের সৌভাগ্যও হয়েছে তার। লেখালেখি নিয়ে ভবিষ্যত পরিকল্পনা ও বই প্রকাশের অনুভূতি সম্পর্কে মোঃ জাহিদুল ইসলাম অংকন জানানঃ "এক জীবন লিখে যেতে চাই। একজন লেখকের জন্য তার নিজের বই হলো সন্তানের মতো। বই প্রিন্ট হয়ে বের হলে তার গন্ধে মাতোয়ারা হওয়ার অনুভূতি শব্দে প্রকাশ করা খুব কঠিন আমার জন্য।"

তিনি আরো বলেন, "সকল ভালো কাজ শুরুতেই বাঁধা আসে, উপরে উঠতে গেলে একদল মানুষ পেছন থেকে টেনে ধরে। এমন পরিস্থিতির স্বীকার হওয়া মানুষদের বলব যেন থেমে না যায়। আর শুরু থেকেই যে সকল মানুষ আমায় সাহায্য করেছেন, আমায় ভালোবেসেছেন, সে সকল মানুষদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ সারাজীবন।"


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ