About Us
Rakib Monasib
প্রকাশ ০৩/০৪/২০২১ ০২:৪২পি এম

মূলধন হারিয়েছে ঢাকা পুঁজিবাজার

মূলধন হারিয়েছে ঢাকা পুঁজিবাজার Ad Banner

আগের সপ্তাহের ধারা বজায় রেখে গত সপ্তাহেও দেশের পুঁজিবাজারে সূচক কমেছে। পাশাপাশি আলোচ্য সময়ে সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকার বেশি বাজার মূলধন হারিয়েছে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। পতনের ধারা অব্যাহত রয়েছে লেনদেনেও। দেশের উভয় স্টক এক্সচেঞ্জেই টাকার অংকে মোট লেনদেন গত সপ্তাহে কমেছে।   

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, গত সপ্তাহে লেনদেন শুরুর আগে ডিএসইর বাজার মূলধন ছিল ৪ লাখ ৬৩ হাজার ৩৯৪ কোটি টাকা। সপ্তাহ শেষে তা কমে দাঁড়িয়েছে ৪ লাখ ৫৮ হাজার ৬৮০ কোটি টাকায়। অর্থাৎ চার কার্যদিবসের ব্যবধানে ডিএসইর বাজার মূলধন কমেছে ৪ হাজার ৭১৪ কোটি টাকা বা ১ দশমিক শূন্য ৭ শতাংশ।    বাজার মূলধনের পাশাপাশি গত সপ্তাহে ডিএসইতে টাকার অংকে মোট লেনদেনও কমেছে।

গত সপ্তাহের চার কার্যদিবসে ডিএসইতে ২ হাজার ২৮ কোটি ৮১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যেখানে আগের সপ্তাহের পাঁচ কার্যদিবসে লেনদেন ছিল ৩ হাজার ৮ কোটি ৮৪ লাখ টাকা। সেই হিসাবে টাকার অংকে লেনদেন কমেছে ৩২ দশমিক ৫৭ শতাংশ। সর্বশেষ সপ্তাহে স্টক এক্সচেঞ্জটিতে প্রতি কার্যদিবসে গড়ে ৫০৭ কোটি ২০ লাখ টাকার সিকিউরিটিজ হাতবদল হয়েছে, আগের সপ্তাহে যা ছিল ৬০১ কোটি ৭৭ লাখ টাকা।   

সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স প্রায় ৫৭ পয়েন্ট বা ১ দশমিক শূন্য ৬ শতাংশ কমে ৫ হাজার ২৭০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে, আগের সপ্তাহ শেষে যা ছিল ৫ হাজার ৩২৭ পয়েন্ট। এ সময়ে ৩৭ দশমিক ৬০ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৮৬ শতাংশ কমেছে নির্বাচিত কোম্পানির সূচক ডিএস-৩০। সপ্তাহ শেষে সূচকটির অবস্থান ছিল ১ হাজার ৯৮৩ পয়েন্টে, আগের সপ্তাহ শেষে যা ছিল ২ হাজার ২১ পয়েন্ট। শরিয়াহ সূচক ডিএসইএস ১৫ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ২৪ শতাংশ কমে ১ হাজার ২০২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে, আগের সপ্তাহে যা ছিল ১ হাজার ২১৭ পয়েন্টে।   

গত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৭৪টি কোম্পানি, মিউচুয়াল ফান্ড ও করপোরেট বন্ডের মধ্যে সপ্তাহ শেষে দর বেড়েছে ৯১টির, কমেছে ১২৩টির, অপরিবর্তিত ছিল ১৫৭টির আর লেনদেন হয়নি তিনটির।    আলোচ্য সময়ে ডিএসইতে লেনদেনে শীর্ষে ছিল বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি (বেক্সিমকো) লিমিটেড। গত সপ্তাহে কোম্পানিটির মোট ২৯৩ কোটি ১২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে এর পরেই ছিল বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির মোট ১৩৯ কোটি ৫৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে এর পরের অবস্থানে ছিল রবি আজিয়াটা লিমিটেড।

চার কার্যদিবসে কোম্পানিটির মোট ৯৪ কোটি ১৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এছাড়া লেনদেনে শীর্ষ ১০ সিকিউরিটিজের তালিকায় রয়েছে লংকাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেড, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড, লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ লিমিটেড, প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেড, প্রভাতী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড, রহিমা ফুড করপোরেশন লিমিটেড ও ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ কোম্পানি (বিএটিবিসি) লিমিটেড।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ