About Us
Abdul Latif Moral - (Khulna)
প্রকাশ ০২/০৪/২০২১ ০৮:৪৮পি এম

ডুমুরিয়ায় সরকারি খাস জমিতে অবৈধভাবে ঘর নির্মাণের অভিযোগ

ডুমুরিয়ায় সরকারি খাস জমিতে অবৈধভাবে ঘর নির্মাণের অভিযোগ Ad Banner

খুলনার ডুমুরিয়ার মাগুরাঘোনা গ্রামের শামছুর রহমান বিশ্বাসের বিরুদ্ধে সরকারি খাস-খালের জমি অবৈধ ভাবে দখল করে পাকা বসত ঘর নির্মাণের অভিযােগ উঠেছে।

এ ঘটনায় এলাকার ভুক্তভােগী আতাউর রহমান বিশ্বাসসহ ৫০ জন ব্যক্তি প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে লিখিত অভিযােগ করেছেন।

লিখিত অভিযােগ ও সরেজমিনে যেয়ে জানা গেছে, উপজেলার দক্ষিণ মাগুরাঘােনা গ্রামের মৃত আফছার বিশ্বাসের ছেলে শামছুর রহমান বিশ্বাস মাগুরাঘােনা মৌজার এস.এ ৫৭২৫ দাগের সরকারি খাস সম্পত্তি যা এলাকার সাধারণ মানুষের পানি সরবরাহ কাজে ব্যবহৃত হয় তা অবৈধ ভাবে দখল করে পাঁকা বসত বাড়ি নির্মাণ কাজ শুরু করেছেন।

বিষয়টি নিয়ে পার্শ্ববর্তী বাসিন্দা আতাউর রহমান বিশ্বাসসহ ৫০ জন ব্যক্তি সরকারি খাস জমিতে অবৈধ ভাবে ঘর নির্মাণ কাজ বন্ধ এবং এলাকার পানি নিষ্কাষনের ব্যবস্হার জন্যে উক্ত খাস খালটি উন্মূক্ত রাখার দাবিতে  গত ২৩-০৩-২০২১ ইং তারিখে ডুমুরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিযােগ দায়ের করেন।

বিষয়টি আমলে নিয়ে উপজেলা প্রশাসন স্হানীয় বয়ারসিং  ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তাকে সরেজমিনে তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

ইউএনও’র নির্দেশনা মােতাবক ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মােঃ ইকবাল হােসন গত বহস্পতিবার সরেজমিনে যেয়ে শামছুর রহমান বিশ্বাসকে ঘর নির্মাণ কাজ স্হগিত রাখতে বলেন।

কিন্ত তার নির্দেশনা উপেক্ষা করে আজ শুক্রবার আবারও  ঘর নির্মাণ কাজ অব্যাহত রেখেছেন শামছুর রহমান। অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে, শামছুর রহমান জানান, তিনি তার নিজস্ব মালিকানাধীন সম্পত্তিতে ঘর করছেন। এর ভিতর যদি সরকারি জায়গা থেকে থাকে এবং সরকারি প্রয়োজনে  তা ব্যবহার করে তা হলে তিনি তা নিজের মালিকানাধীন জমি থেকে ছেড়ে দিবেন বলে জানান।     

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বয়ারসিং ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মোঃ ইকবাল হােসেন জানান, ইউএনও স্যারের নির্দেশনা মােতাবেক তিনি গত বৃহস্পতিবার সরেজমিনে যেয়ে ঘর নির্মাণ কাজ স্হগিত রাখতে বলেছেন।

 এ প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: আবদুল ওয়াদুদ জানান, এলাকাবাসীর লিখিত অভিযােগের প্রেক্ষিতে স্হানীয় বয়ারসিং ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তাকে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়ছে। প্রতিবেদন পেলে সে মােতাবেক পরবর্তী প্রয়ােজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ