About Us
Md Yusuf Ali Chowdhory - (Rajshahi)
প্রকাশ ৩১/০৩/২০২১ ০৬:২৪পি এম

রাজশাহী অঞ্চলে সংক্রমণ বাড়লেও মানা হচ্ছেনা স্বাস্থ্যবিধি

রাজশাহী অঞ্চলে সংক্রমণ বাড়লেও মানা হচ্ছেনা স্বাস্থ্যবিধি Ad Banner

ইউসুফ আলী চৌধুরী-রাজশাহী প্রতিনিধিঃ রাজশাহী বিভাগেও আবারও করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে এবং সংক্রমণের উচ্চ ঝুঁকি হিসেবে স্বাস্থ্য বিভাগ দেশের যে ২৯টি জেলাকে চিহ্নিত করেছে তার মধ্যে রাজশাহী জেলাও আছে। বিভাগে করোনার হটস্পট বগুড়াও আছে এই তালিকায়। এছাড়া বিভাগের নওগাঁকেও উচ্চ ঝুঁকিতে থাকা জেলা হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। 

এছাড়াও কয়েকদিন ধরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে রোগীর চাপ বাড়ছে। তাই হাসপাতালে কোভিড-১৯ রোগীদের জন্য বাড়ানো হয়েছে আরও দুটি ওয়ার্ড। 

রামেক হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস জানান, রাজশাহীতে করোনা শনাক্তের পর হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা সর্বনিম্ন চারজনে নেমেছিল। এখন রোগীর সংখ্যা প্রতিদিনই আবার বাড়ছে। মঙ্গলবার হাসপাতালে ২৯ জন করোনা রোগী ভর্তি ছিলেন। এছাড়া করোনার লক্ষণ নিয়ে ছিলেন আরও ৩৬ জন। হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি ছিলেন ১০ জন করোনা রোগী। 

এদিকে বিভাগে করোনার সংক্রমণ বাড়লেও মানুষের সচেতনতা কমে গেছে। মাস্ক ছাড়াই হাটে-বাজারে বেড়াচ্ছেন মানুষ। হাত ধোয়ার অভ্যাসও কমে গেছে। করোনার প্রথম দিকে বিভিন্ন সরকারি দপ্তরসহ সড়কের ধারে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করা হলেও সেগুলো এখন অকেজো। এমন পরিস্থিতিতে আবারও মানুষকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছে স্বাস্থ্য বিভাগ।  রাজশাহী জেলার সিভিল সার্জন ডা. কাইয়ুম তালুকদার বলেন, মানুষের মাঝে সচেতনতা কমে গেছে। এ রকম হলে সংক্রমণ বাড়বেই। টিকা আসার পর মানুষ মনে করছেন, সংক্রমণ কমবে। কিন্তু এখনও সবাই তো টিকা নেননি। তাই বেপরোয়া চলাচলে সংক্রমণ বাড়ছে। মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে আবারও অভিযান প্রয়োজন বলে মনে করেন সিভিল সার্জন। 

জানতে চাইলে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) আবু আসলাম সাংবাদিকদের বলেন, কয়েকদিন আগে আমরা অভিযান চালিয়েছি। মাস্ক বিতরণ করেছি। দু’একদিনের মধ্যে আবারও অভিযান শুরু হবে।         


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ